অর্থনীতি

সার্বিক মূল্যস্ফীতি আশাব্যাঞ্জক

শীর্ষবিন্দু নিউজ: ২০০৫-০৬ অর্থ বছরকে ভিত্তি বছর ধরে এবছরের এপ্রিল মাসে পয়েন্ট টু পয়েন্টে সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমে দাড়িয়েছে ৭ দশমিক ৪৬ শতাংশে। যা মার্চে ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশে ছিল। অন্যদিকে এপ্রিলে খাদ্য পণ্যেরও মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৯৫ শতাংশে। যা মার্চে ছিল  ৮ দশমিক ৯৬ শতাংশে। খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ২৩ শতাংশ। যা মার্চে ৫ দশমিক ২৬ শতাংশে ছিল। বুধবার সকালে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোতে (বিবিএস) এক সাংবাদিক সম্মেলনে ব্যুরোর মহাপরিচালক গোলাম মোস্তফা কামাল এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং সরকারের সঠিক পরিকল্পনার ওপর ভিত্তি করেই মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আছে। দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ভালো থাকায় পণ্য সরবরাহ চেইন সঠিক ভাবে কাজ করেছে। চাহিদা অনুযায়ী দেশের সর্বত্রই পণ্য সরবরাহ করা হয়েছে বলেও জানান মোস্তফা কামাল। মূল্যস্ফীতি প্রসঙ্গে মোস্তফা কামাল বলেন, রাজনৈতিক পরিবেশ ভালো থাকায় মাঠ পর্যায়ে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে সামঞ্জস্য ছিল। এজন্য গত মাসের (মার্চ) তুলনায় এবার সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে।

তিনি জানান, চাল, ডাল, আটা, শাক-সবজি,ফল,মসলা, তেল, দুধ ও তামাক জাতীয় দ্রব্যের দামও ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে ছিল। তবে মার্চ মাসের তুলনায় এপ্রিল মাসে খাদ্য সামগ্রী উপখাতে মূল্যস্ফীতি হয়েছে শতকরা দশমিক ২ ভাগ। যা মার্চে শতকরা দশমিক ১৩ শতাংশে ছিল। এছাড়া কাপড়-চোপড়, বাড়ি ভাড়া, আসবাবপত্র ও গৃহস্থালী, চিকিৎসাসেবা, পরিবহন, শিক্ষা উপকরণ এবং বিবিধ দ্রব্যসহ সেবা খাতে মূল্য বৃদ্ধির কারণে খাদ্য বহির্ভ‍ূত উপখাতে মূল্যস্ফীতি হয়েছে। এপ্রিল মাসে এ খাতে তা বেড়ে দাড়িয়েছে দশমিক ৮ শতাংশে। যা মার্চে ছিল দশমিক ১৭ শতাংশে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত বছরের মে থেকে চলতি বছরের এপ্রিলে গড় মূল্যস্ফীতির হার দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ৪৯ শতাংশে। যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৬ দশমিক ৪১ শতাংশে। শহরের সার্বিক মূল্যস্ফীতি কিছুটা কমে দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ৯৬ শতাংশে। যা আগের মাসে ৭ দশমিক ৯৮ শতাংশে ছিল। খাদ্যপণ্যের মূল্যেস্ফীতি বেড়েছে ৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ। আগের মাসে তা ৯ দশমিক ৯৮ শতাংশে ছিল। খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কিছুটা কমে ৫ দশমিক ৮৩ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। যা আগের মাসে ৫ দশমিক ৮৮ শতাংশে অবস্থান করছিল।

অন্যদিকে গ্রামে সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে ৭ দশমিক ১৯ শতাংশ। যা আগের মাসে ৭ দশমিক ২১ শতাংশ ছিল। খাদ্য পণ্যের মূল্যস্ফীতি  কমেছে ৮ দশমিক ৫২ শতাংশ। যা গত মাসে ছিল ৮ দশমিক ৫৩ শতাংশ। খাদ্য বহির্ভ‍ূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কিছুটা কমে ৪ দশমিক ৮১ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। যা গত মাসে ৪ দশমিক ৮৩শতাংশে ছিল।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close