জাতীয়

চীনের সঙ্গে চার সামরিক চুক্তি সম্পন্ন

শীর্ষবিন্দু নিউজ: প্রতিরক্ষা সক্ষমতা বাড়াতে চীনের সঙ্গে চারটি সামরিক চুক্তিতে সই করেছে সরকার। সফররত চীনা কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান জেনারেল জু কুইলিয়াংয়ের উপস্থিতিতে সোমবার এসব চুক্তি সই হয়। বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী এবং সশস্ত্র বাহিনী পরিচালিত বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালসের সঙ্গে চুক্তিগুলো হয়েছে। চুক্তির আওতায় বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীকে সহযোগিতার পাশাপাশি সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেবে চীনের সেনাবাহিনী।

আলোচনায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা সামরিক বাহিনীর উন্নয়নে চীনের সামরিক বাহিনীর সহযোগিতার কথা স্মরণ করেন এবং বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের সামরিক সম্পর্কের গুরুত্ব তুলে ধরেন। চীনা প্রতিনিধিরা বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর পেশাদারিত্বের প্রশংসা করেন। বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর উন্নয়নে ভবিষ্যতে সহযোগিতা আরো বাড়ানোর আশ্বাস দেন তারা। বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের সামরিক প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন চীনা প্রতিনিধিরা। ভবিষ্যতে দুই দেশের মধ্যে সামরিক সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হওয়ার ব্যাপারেও আশা প্রকাশ করেন তারা। 

দুই দেশের সামরিক বাহিনীর সদস্যদের নিয়মিত দ্বিপক্ষীয় সফরের ওপরও গুরুত্ব আরোপ করেন তারা। চার দশক আগে চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক  গড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে দুই দেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যেও সম্পর্ক তৈরি হয়। সুইডেনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) তথ্য অনুযায়ী, গত পাঁচ বছরে চীন থেকেই সবচেয়ে বেশি অস্ত্র আমদানি করেছে বাংলাদেশ। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী ২০১৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে দুটি চীনা সাবমেরিন যুক্ত হবে। চীন থেকে আনা আবু বকর ও আলী হায়দার নামে দুটি নতুন ফ্রিগেট গত মার্চে নৌবাহিনীতে যুক্ত হয়েছে।

এছাড়া বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালসে একটি ভাষা গবেষণা কেন্দ্র গড়ে তুলতেও সহযোগিতা করবে তারা। এসবের জন্য চীনের সেনাবাহিনীকে কোনো অর্থ দিতে হবে না। চুক্তি স্বাক্ষরের আগে চীনা সামরিক প্রতিনিধি দলের সদস্যরা বাংলাদেশের উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় নানা বিষয়ে আলোচনা করেন। প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল তারিক আহমেদ সিদ্দিক, সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া, নৌবাহিনীর প্রধান ভাইস এডমিরাল এম ফরিদ হাবিব, বিমান বাহিনীর প্রধান এয়ার মার্শাল মোহাম্মদ ইনামুল বারী এবং সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্ট্যাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close