সিলেট থেকে

উন্নয়নমুখী বর্তমান সরকার পুরো ৫ বছর ক্ষমতায় থাকবে

শীর্ষবিন্দু নিউজ: ভারতের নির্বাচনে বিজেপি’র বিজয়ে বিএনপি’র নেতারা যে হইচই শুরু করেছেন, এটা তাদের কুসুম বিলাস হতে পারে। বর্তমান সরকার ৫ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছে এবং আগামী ৫ বছরও থাকবে।আজ মঙ্গলবার বিকেল ৬টায় সিলেট সার্কিট হাউসে সিলেটে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এসব কথা বলেন।

মতবিনিময় কালে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুজ জহির চৌধুরী সুফিয়ান, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, জেলা সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, বিজিত চৌধুরী, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু জাহিদ প্রমুখ।

গণমাধ্যমের কর্মীদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী আরো বলেন, বিদেশী সম্পর্ক কোন নির্দিষ্ট দলের উপর নির্ভর করে না। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের কংগ্রেস সরকার ছিল। তবে সে সময় ভারতের প্রায় সবক’টি দল ও সে দেশের সাধারণ মানুষ আমাদের সহযোগিতা ও সমর্থন করেছিল। তিনি বলেন, বিজেপি আগেও ভারতের ক্ষমতায় ছিল।। তখনও তারা বাংলাদেশের সাথে অত্যন্ত সুসম্পর্ক বজায় রেখেছে। তাই এবারও বিজেপি সরকার গঠন করলে বাংলাদেশের সাথে অব্যাহত সম্পর্কের কোন ব্যতিক্রম ঘটবে না বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষ এখন অনেক শান্তিতে আছে। বিশেষ করে গ্রামের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। রাস্তাঘাটের উন্নয়ন হয়েছে। বিদ্যুত মানুষের ঘরে ঘরে পৌছে দেয়া হয়েছে। তাই যে যাই বলুক, এই সরকার ৫ বছর পর্যন্ত থাকবে। বাজেট প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, গত পাঁচ বছরে দেশের বাজেটের আকার যে হারে বেড়েছে, এর আগের ১১ বছরেও তা হয়নি। আগামীতে বাজেটের আকার আড়াইগুণ বৃদ্ধি পাবে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশের অর্থনীতির সুরক্ষা দেওয়া ছিলো আমার প্রধান লক্ষ্য। বর্তমানে অন্যান্য দেশের চাইতে আমাদের দেশের অর্থনীতির গ্র্যোথ অনেক ভাল।সিলেটের উন্নয়ন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত পাঁচ বছর একান্ত দেশের জন্য কাজ রেছি। সিলেটবাসীর প্রতিনিধি হিসেবে সিলেটেও বেশ উন্নয়ন হয়েছে। তবে দ্বিতীয় মেয়াদে অর্থমন্ত্রী হওয়ার পর এই সুযোগ আরো প্রসারিত হয়েছে। আবুল মাল মুহিত বলেন, আমার সংসদীয় সিলেট-১ আসনে যতগুলো রাস্তা হওয়া প্রয়োজন ছিলো সেগুলো আমি করেছি। এখন এগুলো কেবল মেরামত সংস্কার করতে হবে।

সিলেট এখন খেলাধুলার কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়াম নির্মাণ হয়েছে। যেখানে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া সিলেটে ক্রিড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে।কাজিরবাজার ব্রিজের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে জানিয়ে তিনি বলেন, এ বছরই এটার উদ্বোধন করা হবে। বাদাঘাট-বিমানবন্দর বাইপাস সড়ককে কোম্পানীগঞ্জ-সুনামগঞ্জ ন্যাশনাল হাইওয়েতে রূপান্তরিত করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে জানান মন্ত্রী।

এছাড়াও অর্থমন্ত্রীর প্রতিশ্রতি শাহী ঈদগাহে মিনার স্থাপন, নতুন স্থানে কারাগার নির্মাণ, পুরাতন কারাগারে বিনোদনকেন্দ্র ও কার পার্ক করা, নগর ওয়াটার ট্রিটম্যান্ট প্লান্ট নির্মাণ, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার আধুনিক ও প্রশস্তকরণ, ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল এবং বিমানবন্দরের রিফুয়েলিং স্টেশন নির্মাণ কাজ বেশিরভাগই শেষ পর্যায়ে বলে জানান তিনি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close