গ্যালারী থেকে

ব্রাজিলকে ৭-১ গোলে হারিয়ে জার্মানির ইতিহাস সৃষ্টি

ওয়াল্ড কাপ ডেস্ক: হেক্সা জয়ের লক্ষে শিরোপার আরও একধাপ কাছে যেতে সেমিফাইনালে মঙ্গলবার জার্মানির বিপক্ষে মাঠে নামে স্বাগতিক ব্রাজিল। ব্রাজিল সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে নাস্তানাবুদ হয়ে সমর্থকদের কান্নায় ভাসালো।

যে ডিফেন্সের উপর ভর করে শিরোপা ঘরে তোলার স্বপ্নে বিভোর ছিলো ব্রাজিল সেই ডিফেন্সই কিনা হজম করলো মাত্র ছয় মিনিটের ব্যবধানে চার গোল। বল পজিশনে এগিয়ে থেকেও ব্রাজিলকে কেন এই বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হলো, এই প্রশ্নের উত্তর অজানাই থাকলো। ব্রাজিলের বেলো হরিজন্তের এস্তাদিও মিনেইরাও স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে একের পর এক সুবর্ণ কিছু সুযোগ সৃষ্টি করেও কাঙ্খিত গোল তুলে নিতে ব্যর্থ হয় ব্রাজিল।

অপরদিকে, জার্মানি যে কয়েকটি আক্রমণ রচনা করে তার অধিকাংশকেই গোলে রূপান্তরিত করায় এই বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয় স্বাগতিকদের। এই দিন ব্রাজিলের দুর্বল ডিফেন্সের পাশাপাশি জার্মান গোলরক্ষক ন্যুয়ারও যেন স্বাগতিকদের বিপক্ষে চীনের প্রাচীর হয়ে দাঁড়ালেন। ফলে রেকর্ড ৭-১ গোলের পরাজয় মেনে নিয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হলো সাম্বার দেশ স্বাগতিক ব্রাজিলকে।খেলা শুরুর প্রথম মিনিটেই জার্মান উইঙ্গার বাস্তিয়ান শোয়ানস্টাইগারকে ছুঁয়ে বল মাঠের বাইরে যাওয়া বলে কর্নার কিক পায় ব্র্রাজিল। কর্নার কিক থেকে বল পেয়ে মার্সেলো গোল মুখে শট নিতে সাইড বারের পাশ দিয়ে চলে যায়।

এরপর খেলার ৮ মিনিটের মাথায় ওজিলের পাসে ডি-বক্সের মাঝ থেকে স্যামি খেদিরার শট রুখে দেয় ব্রাজিলের ডিফেন্স।এরপরই যেন শুরু হয় জার্মানদের গোল উৎসব। প্রধমার্ধের মাত্র ২৯ মিনিটের মধ্যেই পাঁচ পাঁচবার স্বাগতিকদের জালে বল জড়ায় জার্মানরা। জার্মানদের হয়ে খেলায় ১১ মিনিটে প্রথম গোলটি করেন থমাস মুলার। এরপর ২৩ মিনিটে স্বাগতিকদের জালে বল জড়িয়ে মিরোস্লাভ ক্লোসা ব্রাজিল কিংবদন্তি রোনালদোকে ছাড়িয়ে হয়ে যান বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতা।

এরপর, ম্যাচের ২৪ ও ২৬ মিনিটে পরপর দুটি গোল করেন টনি ক্রস। এবং ম্যাচের ২৯ তম মিনিটে জার্মানির পক্ষে গোল করে বিরতির আগেই স্বাগতিকদের বিপক্ষে ৫-০ গোলে এগিয়ে যায় জোয়াকিম লোর শিষ্যরা।বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে একের পর এক সুযোগও সৃষ্টি করতে থাকে ব্রাজিল। কিন্তু প্রত্যেক বারই নেইমারহীন স্বাগতিকদের ঝিমানো আক্রমণভাগ গোল আদায় করতে ব্যর্থ হয়।

ফলে গোল আদায় দূরের কথা উল্টো আরও দুটি গোল হজম করে ব্রাজিল।দ্বিতীয়ার্ধেও ৬৯ ও ৭৯ মিনিটে সেলেকাওদের জালে ষষ্ঠ ও সপ্তমবারের মতো বল পাঠান জার্মানির আন্দ্রে শুরলে। খেলার শেষ মুহুর্তে ম্যাচের ৯০ মিনিটে ব্রাজিলের হয়ে সান্তনা সূচক একমাত্র গোলটি করেন অস্কার। এই ম্যাচে ব্রাজিলিয়ানদের স্বপ্ন সারথি পোস্টারবয় নেইমার ও সেরা ডিফেন্ডার থিয়েগো সিলভার অনুপস্থির ভালো ভাবেই টের পেয়েছে ব্রাজিল। ব্রাজিলের পরাজয়ে মাধ্যমে বিশ্বকাপের চতুর্থ শিরোপার কাছাকাছি গেল জার্মানি তা ঠিক। কিন্তু আজ ব্রাজিলের বিদায়ের সাথে সাথেই বিশ্বকাপের উন্মাদনা, সৌন্দর্যও অনেক অংশে হারিয়ে গেল সেটাও ঠিক।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close