জাতীয়

আবারও দুঃখ প্রকাশ করলেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী মহসিন আলী

নিউজ ডেস্ক: সাংবাদিকদের হুমকি দিয়ে বক্তব্য দেয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই দুঃখ প্রকাশ করেছেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী, যিনি এর আগে শিশুদের সামনে প্রকাশ্যে ধূমপান করে সমালোচিত হয়েছিলেন। এবং একইভাবে ক্ষমাও চেয়েছিলেন। এটা তার দ্বিতীয় ক্ষমা প্রার্থনা।
সব সাংবাদিককে উদ্দেশ করে বক্তব্য রাখেননি দাবি করে রোববার এক বিবৃতিতে মন্ত্রী বলেছেন, সিলেটের কিছু স্থানীয় সাংবাদিকের উদ্দেশ্যে কথাগুলো বলেছিলেন তিনি। রোববার সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. মাইদুল ইসলাম প্রধানের স্বাক্ষরিত এই বিবৃতি গণমাধ্যমে পাঠান মহসিন আলী।

এতে বলা হয়েছে, আমার বক্তৃতায় সাংবাদিকদের প্রতি বিরাগভাজনের যে কথাগুলি বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রকাশ পেয়েছে তা আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। আমি কথাগুলি সকল সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলিনি। আমি বিশ্বাস করি সাংবাদিকতা একটি মহান পেশা। মন্ত্রীর অনুষ্ঠান মঞ্চের সামনে বসে কয়েক সাংবাদিক প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে নিয়ে টিপ্পনী কাটছিলেন বলে বিবৃতিতে দাবি করেন মহসীন।

আমি ওইসব কথা শুনে সইতে না পেরে হঠাৎ কিছুটা রেগে যাই এবং স্থানীয় কতিপয় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে কিছু কথা রাগত অবস্থায় বলি। আমার বলা কথাগুলো বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচার করা হয়, যা দেখে আমি কষ্টবোধ করছি, বলেন তিনি।

শনিবার সিলেটে এক অনুষ্ঠানে মহসিন আলী সাংবাদিকদের হুমকি দিয়ে বলেন, ত্রুটি ধরতেই জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা করা হয়েছে। সতর্ক হয়ে যান, বউ নিয়ে ঘরে ঘুমাতে পারবেন না। স্থানীয় দু/একজন সাংবাদিকের উদ্দেশ্যে ওই বক্তব্য দিয়েছেন দাবি করে মন্ত্রী বলেন, মূলত আমার বলা কথাগুলো ছিল কেবল দুই/একজন স্থানীয় কতিপয় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে যারা গত কয়েকদিন ধরে আমার বক্তব্যকে বিকৃত করে প্রকাশ করছিলেন। কিন্তু আমার বলা কথাগুলো থেকে দেশের সাংবাদিকগণ আহত হয়েছেন দেখে আমি ভীষণভাবে ব্যথিত ও কষ্ট পেয়েছি। আমার অনিচ্ছাকৃতভাবে বলা কথাগুলো থেকে যদি সাংবাদিকগণ দুঃখ পেয়ে থাকেন আমি তার জন্য আন্তুরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

সাংবাদিকতাকে একটি মহান পেশা হিসেবে অভিহিত করে বিবৃতিতে মন্ত্রী বলেন, এ পেশার প্রতি আমি শ্রদ্ধাশীল ছিলাম, আছি এবং থাকব। এই বিবৃতির পর ভুল বোঝাবুঝির অবসান হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী। জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা অনুমোদনের আগে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েন এই মন্ত্রী। নীতিমালাকে ইঙ্গিত করে তখন এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, এমন আইন করা হচ্ছে যে সংবাদ মাধ্যমের কোনো স্বাধীনতাই থাকবে না।

সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ওই অনুষ্ঠানে মহসিন বলেন, সাংবাদিকরা আর অন্যায় করতে পারবে না, আগেই বলছিলাম আমি…ত্রুটি ধরতে সম্প্রচার নীতিমালা হয়েছে। ওই দিন আমি কেবিনেটে থাকলে আরো শাস্তির ব্যবস্থা করতাম.. আরো রস বের করে দিতাম। এখন থেকে সতর্ক হয়ে যান, যা মনে হয় লিখে দিয়েন না। নইলে সিলেটের মানুষকে তোমাদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিতে সময় লাগবে না। নইলে বিয়ে করে বউ নিয়ে ঘুমাতে পারবেন না।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close