Featuredসিলেট থেকে

চলে গেলেন সিলেটের গানের পাখি চন্দ্রাবতী রায়: অর্থমন্ত্রীর শোক প্রকাশ

শীর্ষবিন্দু নিউজ: সিলেটের প্রবীন লোকসংগীত শিল্পী চন্দ্রাবতী রায় বর্মণ (৮৫) আর নেই। বুধবার ভোর ৬টায় সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ‍তিনি। ‘মাসী মা’র মহাপ্রয়ানের খবর পেয়ে সিলেটের হাজারো ভক্ত অনুরাগী তার বাসায় ও হাসপাতালে ছুটে যান।

প্রায় আশি বছর বয়সেও মাসী মার সুর-তাল-লয়ের কোনো কমতি ছিল না । এক বৈঠকেই গেয়ে যেতেন গানের পর গান । দেশের প্রবীণ লোকসংগীত শিল্পী, বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের কণ্ঠশিল্পী বৃহত্তর সিলেটের অহংকার চন্দ্রাবতী রায়বর্মণ বার্ধক্যজনিত ও মস্তিষ্কের জটিল সমস্যায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। চন্দ্রাবতী রায়বর্মণের প্রতি ভক্তঅনুরাগীদের শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বিকেল পৌনে ৩ টায় সিলেটের কেন্দ্রীয় মিনারে নিয়ে যাওয়া হবে।

এরপর বিকেল ৪ টায় নগরীর চালিবন্দর শ্বশ্মানঘাটে শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে বলে তার পরিবার সূত্র নিশ্চিত করে। প্রবীণ লোকসঙ্গীত শিল্পী চন্দ্রাবতী রায়বর্মণ ১৯৬৯ সালে বেতারের শিল্পী হিসেবে প্রথম যোগদান করেন। এরপর থেকে দেশ-বিদেশে তার খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। গানের পাখি হিসেবে জীবদ্দশায় তিনি অংখ্য সম্মাননা পেয়েছেন। সর্বশেষ ১২ আগস্ট  তার দু’টি গান রেকর্ড করে বাংলাদেশ বেতার সিলেট আঞ্চলিক কার্যালয়।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি শোক:

‘মাসি মা’ খ্যাত লোক সংগীত শিল্পি চন্দ্রাবতী রায় বর্মণের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। অর্থমন্ত্রী চন্দ্রবতী রায়ের আত্মার প্রশান্তি কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এক বিবৃতি অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের শিল্পি চন্দ্রবাতী রায় বর্মণ মহাপ্রয়ান আমাদের জন্য একটি দুঃসংবাদ। তিনি বৃহত্তর সিলেটের অহংকার, দেশে বিদেশে তার অনেক খ্যাতি রয়েছে। কারো কাছে মাসি মা আবার কারো কাছে গানের পাখি হিসেবে পরিচিত ছিলেন চন্দ্রাবতী রায়। লোকগান ও ধামাইল গানের একজন প্রাণপুরুষ হিসেবে তিনি ছিলেন আমাদের সংস্কৃতিক প্রেরণার উৎস। তার মৃত্যুতে সিলেটে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে যে শূন্যতা সৃষ্টি হলো তা পূরণ হবার নয়।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close