অন্য পত্রিকা থেকে

প্রবাসে বাংলাদেশিদের সম্মেলনে বিভক্তি

আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ায় দুই দিনব্যাপী নর্থ আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলন এবং নিউইয়র্ক ও লস অ্যাঞ্জেলেসে বিভক্তির ফোবানা বাংলাদেশ সম্মেলন শুরু হয়েছে।

গতকাল শনিবার, ৩০ আগস্ট ফিলাডেলফিয়ায় নর্থ আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলন (এনএবিসি) উদ্বোধন করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার দক্ষিণ এশিয়ান প্যাসিফিক আইল্যান্ড উপদেষ্টা ড. নীনা আহমেদ। অপর দিকে নিউইয়র্কে ২৮তম ফোবানা বাংলাদেশ সম্মেলন উদ্বোধন করেন আইনজীবী ড. তুহিন মালিক। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির নেতা ও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা।

এদিকে লস অ্যাঞ্জেলেসে ফোবানা বাংলাদেশ সম্মেলন উদ্বোধন হয়েছে গত ২৯ আগস্ট, শুক্রবার সন্ধ্যায়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেসম্যান ব্রার্ড সারম্যান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা সৈয়দ মোদাচ্ছের আলীসহ বেশ কয়েকজন কাউন্সিলম্যান।

ফিলাডেলফিয়ায় এনএবিসি সম্মেলনফিলাডেলফিয়ায় এনএবিসি সম্মেলনফিলাডেলফিয়ায় এনএবিসি সম্মেলন

নীনা আহমেদ বলেন, ‘আমেরিকান স্বপ্ন পূরণের পাশাপাশি প্রিয় মাতৃভূমির সার্বিক কল্যাণের স্বার্থে সব প্রবাসীকে দলমতের ঊর্ধ্বে উঠতে হবে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ব্যাপারটি অত্যন্ত জটিল এবং কঠিন হলেও সেটি ঘটাতে হবে।’

পেনসিলভেনিয়া রাজ্যের ফিলাডেলফিয়া সিটির উপকণ্ঠে ফিলাডেলফিয়া এক্সপো সেন্টারের বিশাল অডিটরিয়ামে এনএবিসির (নর্থ আমেরিকা বাংলাদেশ কনভেনশন) দুই দিনব্যাপী ২৮তম বাংলাদেশ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ড. নীনা আরও বলেন, ‘আমেরিকায় জন্মগ্রহণকারী প্রজন্মে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির বিকাশের স্বার্থেই প্রথম প্রজন্মকে অনেক উদার হতে হবে।

শনিবার বিকেলে এক্সপো সেন্টারের গেটে বেলুন উড়িয়ে বাংলাদেশ সম্মেলনের বর্ণাঢ্য এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন এনএবিসির চেয়ারম্যান নাহিদ নজরুল, সদস্যসচিব মোহাম্মদ জামান, নির্বাহী কমিটির সদস্য সাঈদ উর-রব, সম্মেলনের কনভেনর কাজী মতিউর রহমান এবং প্রধান সমন্বয়কারী ড. ইবরুল চৌধুরী। এ সময় কানাডা ও আমেরিকার বিভিন্ন রাজ্য থেকে আগত প্রতিনিধিরা বাংলাদেশ, আমেরিকা এবং কানাডার জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন।

এ সম্মেলনের বিভিন্ন পর্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির পাশাপাশি প্রবাসে বাংলা সংস্কৃতি বিকাশের সংকল্প ব্যক্ত করা হয়। অনুষ্ঠানে অতিথি বক্তা হিসেবে আরও বক্তব্য দেন বিল ক্লিনটনের একমাত্র সন্তান চেলসি ক্লিনটনের শাশুড়ি রাজনীতিক-সমাজকর্মী মারজোরি মেজভিস্কি। তিনি নারী ক্ষমতায়নের মাধ্যমে গোটা বিশ্বকে স্বয়ম্ভরতা প্রদানের কর্মকৌশল তুলে ধরেন।

বাংলাদেশের মত্স্য সম্পদ সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তা, কমিউনিটিকে এগিয়ে নিতে মিডিয়ার ভূমিকা এবং মূলধারায় সম্পৃক্ত হওয়ার প্রয়োজনীয়তা শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কণ্ঠশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন, কাদেরী কিবরিয়া, ফকির আলমগীর, জাহিদুল রিপন প্রমুখ সংগীত পরিবেশন করেন।

নিউইয়র্কে সম্মেলননিউইয়র্কে সম্মেলননিউইয়র্কে সম্মেলন

গতকাল শনিবার, ৩০ আগস্ট নিউইয়র্কের লাগোর্ডিয়া মেরিয়ট হোটেলে স্থানীয় সময় দুপুরে বেলুন উড়িয়ে ২৮তম উত্তর আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আইনজীবী ড. তুহিন মালিক। সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির নেতা ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বর্তমানে ক্যানসারের চিকিত্সা নিতে আসা সাদেক হোসেন খোকা। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এস এম মাহফুজুর রহমান, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও গ্রিনওয়াচের সম্পাদক মোস্তফা কামাল মজুমদার।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ফোবানার চেয়ারম্যান গিয়াস আহমেদ, চিফ কো-অর্ডিনেটর হাসানুজ্জামান হাসান, ফোবানার যুগ্ম কনভেনর কাজী আশরাফ নয়ন, হযরত আলী, সদস্যসচিব সিরাজুল ইসলাম খান, কো-কনভেনর আতাউর রহমান ওরফে আতা, হোস্ট সংগঠনের সভাপতি আতিকুর রহমান ওরফে সালু, সদস্যসচিব তৈয়মুর জাকারিয়া, প্রধান উপদেষ্টা মোহাম্মদ আমিনুল্লাহ, ফোবানার স্ট্রিয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান এজাজ আক্তার তৌফিক, সদস্যসচিব আলী ইমাম শিকদার, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা আবদুল লতিফ ওরফে সম্রাট, আজাদ বাকির প্রমুখ।

লস অ্যাঞ্জেলেসে ফোবানা সম্মেলনলস অ্যাঞ্জেলেসে ফোবানা সম্মেলনলস অ্যাঞ্জেলেসে ফোবানা সম্মেলন

শুক্রবার সন্ধ্যায় বারব্যাংক কনভেনশন সেন্টারে চারটি ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠের পর আমেরিকা, কানাডা ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে এ সম্মেলনের শুরু। আর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেসম্যান ব্রার্ড সারম্যান, কংগ্রেসওমেন জুড়ি চু, এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা সৈয়দ মোদাচ্ছের আলীসহ বেশ কয়েকজন কাউন্সিলম্যান।

কংগ্রেসম্যান ব্রার্ড সারম্যান ও কংগ্রেসওমেন জুড়ি চু বলেন, বাংলাদেশি আমেরিকানরা একদিকে যেমন আমেরিকার বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে অনন্য অবদান রাখছে, ঠিক তেমনি ফোবানা সম্মেলন সেতুবন্ধন তৈরি করে দিচ্ছে ওয়াশিংটন এবং ঢাকার মধ্যে। যা সামনের দিনগুলোতে আরও বাড়বে বলে আশাবাদী এই দুই কংগ্রেসম্যান।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী মনে করেন, প্রবাসী বাংলাদেশিরা মূলধারায় আরও বেশি সম্পৃক্ত হতে পারলে নিজেদের পাশাপাশি দেশের জন্য কল্যাণকর হবে। তবে এর জন্য ফোবানার মতো প্ল্যাটফর্মের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান বলেন, মতৈক্য এবং রাজনীতির বাইরে রাখতে পারলেই ফোবানা হয়ে উঠতে পারবে বাংলাদেশি আমেরিকান তথা বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি। এসব অতিথিদের বক্তব্যের পর পরই মঞ্চে আসেন ফোবানার হোস্ট ও এক্সিকিউটিভ কমিটির নেতারা। এরপর শুরু হয় বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যাতে অংশ নিয়েছেন স্থানীয় ও অতিথি শিল্পীরা।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close