জাতীয়

নির্বাচন বিষয়ক জাদুঘর প্রতিষ্ঠা করবে ইসি

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: এদেশের গণতন্ত্রের ইতিহাসে বিভিন্ন সময়ে সম্পন্ন নির্বাচনে ব্যবহৃত উপকরণ ও যন্ত্রপাতি নিয়ে একটি জাদুঘর প্রতিষ্ঠা করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ইতোমধ্যে প্রাথমিক কাজও শুরু করেছে সংস্থাটি।

সূত্র জানিয়েছে, স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে রাষ্ট্রপতি ও সংসদ নির্বাচনসহ যেসব নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে, তা সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরতেই নির্বাচন বিষয়ক জাদুঘর প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। এতে বিভিন্ন নির্বাচনে ব্যবহৃত ব্যালট পেপার, ব্যালট বাক্স, নিরাপত্তা সিল, বস্তাসহ সকল উপকরণ সংরক্ষণ করা হবে।

এছাড়া নির্বাচনে ব্যবহৃত টাইপ মেশিন, ভোট দেওয়ার সিল, ব্যালট পেপার ছাপানোর যন্ত্র ইত্যাদিও স্থান পাবে এতে। অন্যদিকে বিভিন্ন নির্বাচনে ইসির চ্যালেঞ্জ ও সাফল্যগাঁথাও থাকবে এ জাদুঘরে। জানা গেছে, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালে রাজধানীর শের-ই-বাংলা নগরে ‘নির্বাচন কমিশন-বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠিত হয়। সেই থেকে বর্তমান কমিশনসহ মোট ১১টি কমিশনের অধীনে ১০টি সাধারণ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া ১০টি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন, ৩টি গণভোট ও উপজেলা পরিষদসহ বিভিন্ন স্থানীয় নির্বাচনেও ভোটগ্রহণ করেছে ইসি। আর এসব নির্বাচনের যাবতীয় উপকরণ ও যন্ত্রপাতি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে এই জাদুঘরে।

এজন্য ৩ সদস্যের একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। যারা এই জাদুঘরের জন্য প্রয়োজনীয় সকল তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা বলেছেন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আমেরিকাসহ পৃথিবীর অনেক দেশেই নির্বাচন বিষয়ক জাদুঘর আছে। সেখানে নির্বাচনের যাবতীয় উপকরণ সাধারণ মানুষের জন্য প্রদর্শনের ব্যবস্থা রয়েছে।

এদেশে বিভিন্ন নির্বাচনে ব্যবহৃত উপকরণগুলো কীভাবে কালক্রমে আধুনিকতার ছোঁয়া পেয়েছে এবং প্রযুক্তির সহায়তায় নির্বাচন ব্যবস্থা কীভাবে বর্তমানের ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) যুগে প্রবেশ করেছে, সেই ধারাবাহিকতার একটি স্থায়ী স্বাক্ষর জাদুঘরের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ জানতে পারবে। একইসঙ্গে সঠিক পরিচর্যা ও যত্নের অভাবে উপকরণগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ার হাত থেকেও রক্ষা পাবে।

এ বিষয়ে জাদুঘর প্রতিষ্ঠায় গঠিত কমিটির একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এটি আপাতত রাজধানীর শের-ই-বাংলা নগরের পরিকল্পনা কমিশন প্রাঙ্গণে অবস্থিত নির্বাচন কমিশনেই সীমিত পরিসরে প্রতিষ্ঠা করা হবে। তবে আগারগাঁওয়ে নির্মিতব্য ইসির নিজস্ব ভবনে বড় পরিসরেই জাদুঘর করার পরিকল্পনা রয়েছে। এ বিষয়ে ইসির জনসংযোগ পরিচালক এস এম আসাদুজ্জামান বলেন, নির্বাচন বিষয়ক জাদুঘর স্থাপনের পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে এর মূল কাজ এখনো শুরু হয়নি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close