সিলেট থেকে

সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা: পক্ষে-বিপক্ষে মিছিল-সমাবেশ অনুষ্ঠিত

সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা

শীর্ষবিন্দু নিউজ: সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে জেলা সভাপতি পদে সাঈদ আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক পদে রাহাত চৌধুরী মুন্নার নাম ঘোষণা করা হয়। মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি পদে নূরুল আলম সিদ্দিকী খালেদ ও সাধারণ সম্পাদক পদে আবু সালেহ মোহাম্মদ লোকমানের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব এ কমিটি অনুমোদন দেন। দুই কমিটির ৮টি পদে নেতাদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়া জেলা কমিটিতে স্থান পেয়েছেন সিনিয়র সহ সভাপতি আহমেদ চৌধুরী ফয়েজ, সহ সভাপতি চৌধুরী মোহাম্মদ সুহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক এখলাছ মুন্না, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমেদ, মিজানুর রহমান নেসার, সহ সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন পান্না। নবনির্বাচিত কমিটিকে আগামী একমাসের মধ্যে ৮১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা এবং সম্মেলনের মাধ্যমে অধীনস্থ সকল সাংগঠনিক কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়া জেলা মহানগর কমিটির অন্যান্য পদে রয়েছেন- সিনিয়র সহ সভাপতি মাহফুজ করিম জেহিন, সহ সভাপতি ফখরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রকিব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুমেল শাহ, আজিজ হোসেন ও সহ সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক স্বপন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ছাত্রদলের একাধিক সূত্র জানায়, রাজপথের আন্দোলনে যাদের সম্পৃক্ততা ছিল না-তাদেরকে কমিটিতে স্থান দেয়া হয়েছে। নিয়মিত ছাত্রদের বাদ দিয়ে অছাত্রদের দিয়ে ঘোষণা করা হয়েছে কমিটি। এ কারণে ছাত্রদলের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মধ্যে কমিটি নিয়ে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে বলে ওই সূত্র জানায়।

এদিকে, ছাত্রদলের নয়া কমিটি ঘোষণা নিয়ে সিলেট ছাত্রদলের বিরোধ আরো প্রকট আকার ধারণ করলো। নয়া কমিটির পক্ষে-বিপক্ষে বৃহস্পতিবার রাতে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ হয়েছে। রাতে কমিটি ঘোষণার পর পরই কমিটিতে পদ বঞ্চিত নেতারা নগরীর চৌহাট্টাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে জড়ো হয়ে মিছিল বের করেন। মিছিলটি জিন্দাবাজার হয়ে কোর্ট পয়েন্টে এসে শেষ হয়। এ সময় বেশ কয়েকটি স্থানে ককটেল বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

ককটেল  বিস্ফোরণের পর জিন্দাবাজার এবং বন্দর বাজার এলাকায় মানুষের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। ভয়ে অনেকেই দোকান পাট বন্ধ করে দিক-বিদিক ছোটাছুটি শুরু করেন। পথচারীদের মধ্যে দেখা দেয় আতংক। এ সময় কোর্ট পয়েন্টে পুলিশ উপস্থিত হয়ে বিশৃংখলা সৃষ্টি না করতে ছাত্রদল নেতা-কর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানালে তারা ওই এলাকা ত্যাগ করে।

অন্যদিকে,সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের নতুন কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় নগরীতে একটি আনন্দ মিছিলও বের করা হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের আয়োজন করা হয়। মহানগর ছাত্রদলের সাবেক ভারপাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সাহেদ আহমদ চমনের সভাপতিত্বে এবং সিলেটে মহানগর ৮নং ওয়ার্ড ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মো: আফছর খান ও মহানগর ছাত্রদল নেতা বিধান স¤্রাট এর যৌথ পরিচালনায় এতে বেশ কিছু ছাত্রদল নেতা-কর্মী অংশ নেন। –

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close