দুনিয়া জুড়ে

বিশ্বের সবচেয়ে আবেদনময়ী অপরাধী

নিউজ ডেস্ক: বিশ্বের সবচেয়ে আবেদনময়ী অপরাধী স্টেফানি বেয়াউদোইন। বিভিন্ন অপরাধে সে জেল খেটেছে। তার বিরুদ্ধে রয়েছে বিভিন্ন অপরাধে ১১৪টি অভিযোগ। এজন্য তাকে বিভিন্ন মিডিয়া বিশ্বের সবচেয়ে আবেদনময়ী অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

কানাডার ভিক্টোরিয়াভিলে এলাকায় ৪২টি ঘরের দরজা ও বেজমেন্ট ভেঙে অনৈতিকভাবে প্রবেশের অভিযোগে গত মাসে গ্রেপ্তার হয়েছিল স্টেফানি। এ ঘটনাই তাকে বিশ্বজুড়ে সংবাদের শিরোনাম বানিয়ে দেয়। তবে সেটা ভিন্ন কারণে। গ্রেপ্তারের পরপর মন্ট্রিয়ল জার্নালে তার একটি ছবি ছাপা হয়। এতে সে ছিল বিকিনি পরা। ওই ছবিটি অত্যন্ত আকর্ষণীয় ও আবেদনময়ী। ছাপা হওয়ার পরই তা লুফে নেয় বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহারকারীরা। দ্রুত  সে পরিচিতি পায় ‘ওয়ার্ল্ডস সেক্সিয়েস্ট ক্রিমিনাল’ বা ‘বিশ্বের সবচেয়ে আবেদনময়ী অপরাধী’ নামে!

কানাডিয়ান কর্তৃপক্ষ মনে করে, অপ্রাপ্তবয়স্ক থাকা অবস্থায়ই আথাবাস্কা ও ম্যাপল এলাকায় বিভিন্ন বাসায় চুরি করে স্টেফানি। নার্সিং শিক্ষার্থী স্টেফানি ও তার দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা পেছনের দরজা কিংবা বেজমেন্ট ভেঙে অন্যের ঘরে প্রবেশ করে। গত সপ্তাহে তার বিরুদ্ধে আরও অনেক অভিযোগ আনা হয়। মোট ১১৪টি অভিযোগ দায়ের হয়েছে তার বিরুদ্ধে!

এর মধ্যে অন্যতম ঘর ভাঙা ও প্রবেশ করা, চুরি করা জিনিস গ্রহণ করা, অবৈধভাবে ৯টি অস্ত্র রাখা। অস্ত্রগুলো তার মিতসুবিশি ল্যান্সার গাড়িটির পেছনে পাওয়া গেছে। তার আইনজীবী ডেনিস ল্যাভিগনে বলেছেন, রেকর্ড রীতিমতো মুগ্ধ করার মতো। আমাকে তার মামলার যেসব নথিপত্র দেয়া হয়েছে, সেগুলো প্রায় ১২ ইঞ্চি পুরু!

ল্যাভিগনে জানিয়েছেন, তার মক্কেল স্টেফানি নিজের মানসিক সমস্যা চিহ্নিত করতে ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়েছে। এদিকে স্টেফানি বেয়াউদোইনকে ‘নিউজ পার্সোনালিটি’ আখ্যা দিয়ে খোলা হয়েছে একটি ফেসবুক ফ্যানপেইজ। সেখানে মুহূর্তেই ২০০০ লাইক চলে এসেছে। তার ছবি অনলাইনে প্রকাশিত হওয়ার পর টুইটার ইউজাররা তাকে আখ্যায়িত করছে ‘নিউয়েস্ট ওয়ার্ল্ডস সেক্সিয়েস্ট ক্রিমিনাল’ নামে। একজন টুইটার ইউজারের মন্তব্য, স্টেফানি আগে তোমার হৃদয় চুরি করবে, এরপর জিনিসপত্র!

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close