Featuredএশিয়া জুড়ে

সাজাপ্রাপ্ত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার কয়েদি নম্বর ৭৪০২

দুর্নীতির দায়ে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা জয়রামকে গতকাল শনিবার চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন বেঙ্গালুরুর এক আদালত। রায়ের ফলে দক্ষিণ ভারতের এই প্রভাবশালী রাজনীতিক অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীর পদ হারাবেন বলে মনে করা হচ্ছে। ছবি: পিটিআইআন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতির দায়ে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা জয়রামকে গতকাল শনিবার চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন বেঙ্গালুরুর এক আদালত। রায়ের ফলে দক্ষিণ ভারতের এই প্রভাবশালী রাজনীতিক অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীর পদ হারাবেন বলে মনে করা হচ্ছে। দীর্ঘ ১৮ বছর আগে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির অন্যতম নেতা সুব্রামানিয়ান স্বামীর দায়ের করা মামলার রায় গতকাল শনিবার ঘোষণা করেন বেঙ্গালুরুর একটি আদালত।

রায়ে ৬৬ বছর বয়সী জয়ললিতাকে চার বছরের কারাদণ্ডের পাশাপাশি ১০০ কোটি রুপি জরিমানাও করা হয়েছে। তাঁর তিনজন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিও দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। দুর্নীতির দায়ে সাজা পাওয়া ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা জয়রাম গতকাল শনিবার বেঙ্গালুরুর কেন্দ্রীয় কারাগারের নারী শাখার বিশেষ সেলে প্রথম রাত কাটিয়েছেন। কারাগারের নিয়ম অনুযায়ী তাঁকে একটি কয়েদি নম্বর দেওয়া হয়েছে। তাঁর নম্বর ৭৪০২।

দেশটির সুপ্রিম কোর্ট গত বছর এক আদেশে বলেছিলেন, কোনো আইনপ্রণেতা দুই বছর বা ততোধিক সময়ের জন্য কারাদণ্ড হয় এমন অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হলে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে তাঁর পদের জন্য অযোগ্য হবেন।
বেঙ্গালুরুর আদালতের রায়ের ফলে দক্ষিণ ভারতের প্রভাবশালী রাজনীতিক জয়ললিতা অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীর পদ হারাবেন বলে মনে করা হচ্ছে। জয়ললিতার আইনজীবীরা এনডিটিভিকে বলেছেন, কর্ণাটক হাইকোর্টে কাল সোমবার জামিনের জন্য আবেদন জানানো হবে।

কারাগারে জয়ললিতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করা মন্ত্রী ও আইনপ্রণেতারা বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী হাঁটু, বুক ও পাকস্থলিতে তীব্র ব্যথা অনুভব করছেন। তাঁর ডায়াবেটিসও আছে। কারাগারের সুযোগ-সুবিধা পর্যাপ্ত নয়। তাঁর জন্য ভালো সুবিধা চাওয়া হচ্ছে।

সূত্র জানিয়েছে, তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রীকে কোনো বিশেষ চিকিৎসাসুবিধা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। হাই সিকিউরিটির ওই কারাগারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিভিআইপি) জন্য কোনো সেল নেই।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, জয়ললিতাকে কারা চিকিৎসকদের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সেবা দেওয়া হচ্ছে। কোনো বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়ার জন্য জয়ললিতা অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু কর্মকর্তারা তাঁকে কড়া জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি দণ্ডিত। তাঁর ক্ষেত্রে কারাবিধি মানতে হবে। কারাবিধি অনুযায়ী রাতে জয়ললিতাকে খাবার দেওয়া হয়েছে বলে কারাগারের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

দুর্নীতির অভিযোগে দায়ের করা মামলার চূড়ান্ত শুনানিতে অংশ নিতে গতকাল সকালে চেন্নাই থেকে বেঙ্গালুরুর ওই আদালতে হাজির হন জয়ললিতা। সেখানকার কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে শুনানি হয়। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছিল, ১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত প্রথম দফায় তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় জয়ললিতা ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিপুল সম্পদের মালিক হন।

অল ইন্ডিয়া আন্না দ্রাবিড় মুনেত্রা কাজাগাম (এআইএডিএমকে) দলের সাধারণ সম্পাদক জয়ললিতা দক্ষিণ ভারতের শীর্ষ প্রভাবশালী নেতাদের অন্যতম। বিভিন্ন সময়ে জোট সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হিসেবে কেন্দ্রেও উল্লেখযোগ্য রকম প্রভাব বিস্তার করেছেন তিনি। রাজনীতিতে আসার আগে তিনি জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ছিলেন।

বাদীপক্ষের কৌঁসুলিরা আদালতে যুক্তি দেখান, জয়ললিতা যখন মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হন, তখন মাত্র এক রুপি বেতন গ্রহণ করতেন। অথচ পাঁচ বছর ক্ষমতায় থেকেই তিনি তাঁর সম্পদ ৬৬ কোটি রুপিতে নিয়ে গেছেন। ধারণা করা হয়, জয়ললিতার অবৈধ এ সম্পদের মধ্যে রয়েছে দুই হাজার একর জমি, ৩০ কেজি স্বর্ণ ও ১২ হাজার শাড়ি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close