গ্যালারী থেকে

বাংলাদেশ ৪৩৩ রানে অলআউট

গ্যালারী থেকে ডেস্ক: চা বিরতির পর এক ঘন্টার মধ্যে বাকি তিন উইকেট হারালো বাংলাদেশ। তবে এর মধ্যেই বাংলাদেশ মজবুত অবস্থান গড়ে নিয়েছে খুলনা টেস্টে। তাইজুল ও শাহাদাত অস্টম উইকেটে রান ৪৩ রান যোগ করে কৃতিত্ব দেখান। তাইজুল ৪৪ বলে ৩২ রান করে আউট হওয়ার পর ৭ রানে শেষ হয়ে যায় ইনিংস। শাহাদাত করেন ১৮ রান। এই দুই উইকেট নেন চাতারা।

১৩৭ রান করে ওয়ালারের বলে বোল্ড হন সাকিব আল হাসান।  নবম টেস্ট খেলা অফ স্পিনার ওয়ালারের প্রথম টেস্ট শিকার সাকিব। এর কিছু পর শুভাগতকেও আউট করেন তিনি। হোম করেন ১৫ রান। ১৮০ বলের ইনিংসে সাকিব। ১৮টি চার আর দুটি ছক্কা হাঁকান। অহেতুক ঝুঁকিপূর্ণ রান নিতে গিয়ে আউট হয়ে ফিরলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। দুপুরের বিরতির পর কোন রানই করতে পারেন নি তিনি। এই সময়ে সাকিব যোগ করেন ৭ রান। সাকিব অফের দিকে বল ঠেলে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

কিন্তু মুশফিক রান নিতে ছুটে গিয়ে সময়মতো পৌছতে পারেন নি ক্রিজে। সিকান্দার রাজা সরাসরি বল ছুঁড়ে ভেঙ্গে দেন স্টাম্প। এনিয়ে টেস্টে চারবার রান আউট হলেন তিনি। তবে সাকিব রয়েছেন অবিচল। তিনি এর কিছু পরই তার শতরান পুরো করেন। ১৫৩ বলে তিনি তার তৃতীয় শতরানটি করেন দুটি ছক্কা আর ১২টি চারের সাহায্যে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ ৩৮৭/৭।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে তামিম ইকবাল আর সাকিব আল হাসান দুজনই প্রায় একসঙ্গে ছুঁলেন তার ল্যান্ডমার্ক। ওপেনার তামিম শতরান আর চার নম্বরে নামা সাকিব অর্ধশতরান পূর্ণ করেছেন আজ। মধ্য্হ্ন বিরতি পর্যন্ত সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৩১৬। সাকিব ৮৯ আর মুশফিক ১১ রান নিযে আছেন। খুলনা টেস্টের দ্বিতীয় দিনে দেখে শুনেই ব্যাট করেন দুই বাঁহাতি। সাকিব ৫০ পূর্ণ করেন ৭১ বলে। আগের দিন তামিম ৫০ করেছিলেন ১৬৯ বলে। পরের ৫০ করতেও তামিম খেলেন প্রায় সমান বল। ৩৪ ইনিংস পর তার এই শতক। ৩১২ বলে ৯৯ থেকে চার মেরে স্বপ্নের তিন অঙ্কে পৌঁছান তিনি। ৩ উইকেটে ১৯৩ রান নিয়ে খেলতে নেমে তামিম-সাকিব জুটি দারুন খেলে স্কোর ৩০০ পার করিয়ে নিয়েছেন। সাবেক অধিনায়ক ও সহ অধিনায়কের এ জুটি ১০০ রানও তুলে ফেলেছে। তামিম শেষ পর্যন্ত ১০৯ রান করে আউট হন। ৩৩২ বলেল ইনিংসে চার মারেন ১০টি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close