Featuredঅন্য পত্রিকা থেকে

ছয় ঘণ্টায় ফাঁসি সম্ভব

ছয় ঘণ্টায় ফাঁসি সম্ভব!

নিউজ ডেস্ক: লিখিত আদেশ পেলে ফাঁসি কার্যকরে ছয় ঘণ্টা সময় লাগবে কারাগারের। সেভাবেই প্রস্তুত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার। এ কথা জানিয়েছে কারাগারের উচ্চ পর্যায়ের সূত্র।

দায়িত্বশীল সূত্রটি জানায়, আইন মন্ত্রণালয় থেকে যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকরে প্রস্তুতি নেওয়ার আদেশ আগেই পাওয়া গেছে। সে অনুযায়ী পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে কেন্দ্রীয় কারাগার। এরই মধ্যে মহড়া সম্পন্ন হয়েছে। ফাঁসির মঞ্চকে প্রস্তুত করা হয়েছে সব ধরনের সতর্কতায়।

কারা কর্তৃপক্ষ যাতে আদালতের আদেশ হাতে পেয়ে দ্রুত সে আদেশ বাস্তবায়ন করতে পারে সে লক্ষ্যে সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে, এমনটা বাংলানিউজকে জানিয়ে দায়িত্বশীল সূত্রটি উল্লেখ করে, মাত্র ছয় ঘণ্টার মধ্যেই সম্পন্ন করা যাবে ফাঁসির প্রক্রিয়া।

এদিকে বুধবার সন্ধ্যায় আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক জানিয়েছেন, কারা কর্তৃপক্ষকে প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। বুধবার দুপুরে কারা মহাপরিদর্শকের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকও সম্পন্ন করেন আইনমন্ত্রী।

গতকাল সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের ডেকে জানান, আদালতের পূর্ণাঙ্গ রায়ের প্রয়োজন নেই, সংক্ষিপ্ত রায়ের লিখিত কপি হাতে পেলেই রায় কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া যাবে। আর রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাওয়ার যে সুযোগ তা রায় ঘোষণা থেকে সাত দিন পর্যন্ত বলবত থাকবে বলেও জানান আইনমন্ত্রী।

এদিকে কারাগারের নির্ভরযোগ্য সূত্রগুলো বাংলানিউজকে জানিয়েছে, কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকর করার জন্য জল্লাদও নির্দিষ্ট করে রাখা হয়েছে। জল্লাদ শাহজাহান, জল্লাদ জনি ও জল্লাদ রাজুর সমন্বয়ে তিন সদস্যের প্যানেল প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে জনির হাতেই হতে পারে কামারুজ্জামানের ফাঁসি। গত সোমবার (৩ নভেম্বর) কামারুজ্জামানের করা আপিল আবেদনের ওপর রায় দিতে গিয়ে একটি অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া ফাঁসির আদেশ বহাল রাখেন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close