জাতীয়

তারেকের বক্তব্য পাগলের প্রলাপ

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: তারেক রহমানের জিভ সামলাতে তার মা খালেদা জিয়াকে বলেছেন শেখ হাসিনা। তা না হলে সমুচিৎ জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তিনি। বঙ্গবন্ধুকে রাজাকার বলা ছাড়াও আওয়ামী লীগকে নিয়ে বিতর্কিত বিভিন্ন বক্তব্যের জন্য তারেক রহমানকে অশিক্ষিত জানোয়ার বলেও আখ্যায়িতও করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

লেখাপড়া শেখেনি, জানোয়ারের মতো কথা বলে। জানোয়ারের শিক্ষা কিভাবে দিতে হয়, মানুষ তা জানে। মানুষের কাছ থেকে জানোয়ার যে শিক্ষা পায়, তাই দেওয়া উচিত এবং মানুষ তা দেবেও। বুধবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিজয় দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় একথা বলেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসনের উদ্দেশে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হাসিনা বলেন, কুপুত্রকে জিভ সামলে কথা বলতে বলবেন। নইলে বাংলার মানুষ সহ্য করবে না, বিশ্ববাসীও মেনে নেবে না। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের মতো ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলার মামলারও বিচার করা হবে, বলেন শেখ হাসিনা। এই মামলায় খালেদার ছেলে তারেক অন্যতম আসামি। তারেক ১৫ ডিসেম্বর লন্ডনে বিএনপির এক অনুষ্ঠানে বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে ‘রাজাকার’ বলেন। এর আগেও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিতর্কিত বক্তব্য দেন তিনি।

তারেক রহমানের উদ্দেশে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, উনি কিছু দিন পর পর কথা ছাড়ছেন। অর্বাচীনের মতো কথা বলেন। এগুলো আসলে পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কিছু নয়। আজ বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত রবার্ট গিবসনের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। সাংবাদিকেরা তাঁকে প্রশ্ন করেছেন, লন্ডনে বসে তারেক রহমান বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন, তা তিনি জানেন কি না।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমরা তৃণমূল থেকে রাজনীতি করে এসেছি, এখন তো আর ওটা লাগে না। তাই যা খুশি তাই বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়া (জিয়াউর রহমান) মাঝেমধ্যে বঙ্গবন্ধুর কাছে যেতেন, কিন্তু খালেদা জিয়াকে নিয়ে যেতেন না। তাই বঙ্গবন্ধু তাঁকে খালেদা জিয়াকে সঙ্গে নিয়ে যেতে বলতেন। খালেদা ও জিয়াকে এক করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। এমনই মহান নেতা ছিলেন তিনি। এর উল্টো প্রতিশোধ হিসেবে তারেক রহমান অর্বাচীনের মতো কথা বলছেন। এসব লোক রাজনীতি করার উপযুক্ত নন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমি অবাক হয়েছি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কথায়। তিনি নাকি বলেছেন, বুদ্ধিজীবী হত্যা করেছে মুজিব বাহিনী। বুদ্ধিজীবীদের পরিবার-পরিজনেরা জানেন, কারা হত্যা করেছে। বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের কারও ফাঁসি হয়েছে, কারও ফঁাসির রায় হয়েছে। এ হত্যাকারীদের রক্ষার জন্য তিনি এ কথা বলেছেন। তাঁকে অসম্মান করি না, তিনিও আমাকে সম্মান করেন। যদিও মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতে গিয়ে তিনি দেশে ফিরে এসেছিলেন। কী করে তিনি বললেন, বুদ্ধিজীবী হত্যা করেছে আওয়ামী লীগ?’ তিনি বলেন, জিয়া যুদ্ধ করেছেন বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে।

 

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close