রাজনীতি

দেশে রাজনৈতিক সংকট নেই তবে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চলছে

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: বর্তমানে দেশের পরিস্থিতি অস্বাভাবিক কিছু নয়। যেটুকু নাশকতামূলক ও সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটছে, তা দ্রুতই শান্ত হয়ে যাবে বলে মনে করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দেশে কোনো রাজনৈতিক সংকট নেই বলেও মনে করে দলটি।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলীয় বক্তব্য তুলে ধরেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। সংবাদ সম্মেলনে গতকাল সোমবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রেস ব্রিফিংয়ে দেওয়া বক্তব্যের জবাব দেয় আওয়ামী লীগ। খালেদা জিয়া তাঁর প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, আমাদের কর্মসূচি চলছে, পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চলবে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে একজন সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, বর্তমানে দেশে কী কোনো রাজনৈতিক সংকট চলছে? জবাবে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, রাজনৈতিক সংকট কোথায়? বর্তমানে যা চলছে, তা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। পেট্রলবোমা কী রাজনীতির অংশ? এটা রাজনীতির অংশ হতে পারে না।

নাশকতা প্রতিরোধে আওয়ামী লীগের জনসম্পৃক্ততার বিষয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ইতিমধ্যে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করার জন্য বেরিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে। আজ মিরপুরে (গাবতলী) ১৪ দলের সমাবেশ হচ্ছে। এরপর পর্যায়ক্রমে ঢাকাসহ সারা দেশে সমাবেশ করে দেশের সাধারণ মানুষকে প্রতিরোধ করার জন্য আহ্বান জানানো হবে। জাতি চায় দ্রুত সব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বন্ধ হোক। আমরা আশা করি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী খুব দ্রুত এসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সমাধান করবে।

লিখিত বক্তব্যে হানিফ বলেন, গতকাল বিএনপির চেয়ারপারসন অবরোধের নামে মানুষকে পুড়িয়ে মারার রাজনীতি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। এর মাধ্যমে খালেদা জিয়ার রাজনীতির স্বরূপ উন্মোচিত হয়েছে। গতকাল বিফ্রিংয়ের মাধ্যমে তিনি যে অবরুদ্ধ নন, তা-ই প্রমাণ করেছেন। অবরুদ্ধ না থাকা সত্ত্বেও তিনি সেখানেই থাকবেন বলে জানিয়েছেন। এটাই প্রমাণ করে এত দিন তিনি অবরুদ্ধের নাটক সাজিয়েছেন। যেটা আমরা আগে থেকেই বলে আসছিলাম।

তিনি দাবি করেন, আসলে আজকে জিয়া পরিবারের লোভের লেলিহান শিখায় বাংলাদেশ পুড়ছে। নারী-পুরুষ, শিশু-চিকিৎসক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য থেকে পরিবহনশ্রমিক, দিনমজুর, বাসযাত্রীকেউ রেহাই পাচ্ছেন না। জনগণ খালেদা জিয়ার এই ধ্বংসাত্মক রাজনীতির কর্মকাণ্ডকে সমর্থন করছে না বলেই তিনি জনগণের ওপর প্রতিশোধ নিচ্ছেন। এ জন্য বাংলাদেশের মানুষ তাঁর চরিত্রকে নিষ্ঠুর ডাইনি বুড়ির সঙ্গে তুলনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রাজ্জাক, আবদুস সোবহান গোলাপ, ফরিদুরনাহার লাইলী, হাবিবুর রহমান সিরাজ, আব্দুল মান্নান খান, আবদুস সাত্তার, আফজাল হোসেন, অসীম কুমার উকিল উপস্থিত ছিলেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close