আফ্রিকা জুড়ে

নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মুহাম্মাদু বুহারি এগিয়ে

আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: নাইজেরিয়ার তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিরোধীদলীয় প্রার্থী মুহাম্মাদু বুহারি ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট জোনাথন গুডলাক থেকে ২৫ লাখ ভোটে এগিয়ে আছেন। সোমবার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দেশটির ৩৬টি রাজ্যের মধ্যে আর মাত্র ছয়টি রাজ্যের ভোট গণনা বাকি ছিল।

তিনদশক আগে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নাইজেরিয়ার ক্ষমতা দখল করেছিলেন বুহারি। তিনদশক পরে এবার গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত হয়ে তিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। নির্বাচনী প্রচারণাকালে দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতি পরিষ্কার করার প্রতিশ্রুতি দেয়া ৭২ বছর বয়সী সাবেক জেনারেল এক কোটি ২৯ লাখ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে প্রাণীবিজ্ঞানের সাবেক অধ্যাপক প্রেসিডেন্ট জোনাথন পেয়েছেন এক কোটি ২ লাখ ভোট।

জোনাথনের পাঁচ বছরের শাসনকালেই আফ্রিকার শীর্ষ খনিজ তেল উৎপাদি দেশ হয়ে আফ্রিকার সবচেয়ে বড় অর্থনীতিতে পরিণত হয় নাইজেরিয়া। কিন্তু দুর্নীতি কেলেঙ্কারি ও বোকো হারাম জঙ্গিদের প্রাণঘাতী বিদ্রোহী লড়াই তাকে ডুবিয়েছে। তবে ছয়টি রাজ্যের ভোট গণনা এখনও বাকি আছে। এসব রাজ্য আবার জোনাথনের শক্ত ঘাঁটি দক্ষিণাঞ্চলীয় তেল সমৃদ্ধ নাইজার নদী উপত্যকায় অবস্থিত। তাই শেষ পর্যন্ত ভোটের হিসাব উল্টে যাওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক সময় সকাল ৯টায় ভোটের ফলাফল ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। দক্ষিণের নদীবহুল রাজ্যগুলোতে জোনাথন ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। নিজ এলাকায় ভোটের এই একচেটিয়া প্রাধান্য দেশটিতে নিযুক্ত কূটনীতিক, পর্যবেক্ষক ও বুহারির প্রতি সহানুভূতিশীলদের মধ্যে সন্দেহের সৃষ্টি করেছে।

এই সন্দেহের বশে দেশটির কোথাও কোথাও বুহারির অল প্রগ্রেসিভ কংগ্রেস (এপিসি) দলীয় কর্মীরা প্রতিবাদ বিক্ষোভও করেছেন। দক্ষিণের তেল খনি শহর হারকোর্টে এপিসি’র প্রায় একশ নারী সমর্থকের এ ধরনের একটি বিক্ষোভ পুলিশ কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে ভুণ্ডুল করে দিয়েছে। স্থানীয় নির্বাচন কমিশনের দপ্তরের সামনে এ ঘটনা ঘটেছে। ১৭ কোটি জনসংখ্যার দেশটিতে শনি ও রোববার অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণকালে সহিংসতায় অন্ততপক্ষে ১৫ জন নিহত হয়েছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close