লন্ডন থেকে

ব্রিকলেন জামে মসজিদের চেয়ারম্যান আতাউর চৌধুরীর ইন্তেকাল

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা ও ব্রিকলেন জামে মসজিদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আতাউর রহমান চৌধুরী আর নেই (ইন্নালি¬লাহি….রাজিউন)। তিনি সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরীর বড় ভাই। বুধবার রাত ১০টা ৫০ মিনিটে তিনি যুক্তরাজ্যের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও চার ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের বাইশঘর গ্রাম নিবাসী মরহুম আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব চৌধুরীর ২য় পুত্র।

আতাউর রহমান চৌধুরী হাইস্কুলে অধ্যয়নকালীন সময়ে পরিবারের সাথে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান। সেখানে তিনি আইয়ুববিরোধী আন্দোলন সহ বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রবাসে সংগঠক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রবাসে তহবিল সংগ্রহসহ বিভিন্ন কর্মকান্ডে তৎপর ছিলেন। পচাত্তর পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের বিচারের পক্ষে প্রবাসে জনমত গড়ে তুলতেও সোচ্চার ছিলেন তিনি। ১৯৫২ সালে যুক্তরাজ্যে প্রতিষ্ঠিত বাঙালীর প্রাচীনতম সংগঠন বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

ব্রিটেনে বাঙালীদের বৃহত্তম মসজিদ ব্রিকলেন জামে মসজিদের সেক্রেটারির দায়িত্ব পালন করেন এবং মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত এই মসজিদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছিলেন। উলে¬খ্য যে- ব্রিকলেন জামে মসজিদের বর্তমান বৃহৎ পরিসর বৃদ্ধিতে তার অবদান অনস্বীকার্য। কয়েক মাস আগে প্রবাসে বাঙালীদের লাশ দেশে ফেরত পাঠানোর কার্যক্রম (ফিউনারেল সার্ভিস) চালু করেন তিনি।

৭০’র দশকে ব্রিটেনে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনেও তিনি নেতৃস্থানীয় ভূমিকা পালন করেন। যুক্তরাজ্যে প্রথম শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠালাভেও তার অসামান্য ভূমিকা ছিল। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংস্থা ও সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন। তাদের পারিবারিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দিলশাদ রেস্টুরেন্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ বাংলাদেশের অনেক জাতীয় নেতৃবৃন্দ আতিথেয়তা গ্রহন করেছেন।

আতাউর রহমান চৌধুরী দেশেও বিভিন্ন স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন।

শোকপ্রকাশ : বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা আতাউর রহমান চৌধুরীর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং স্থানীয় সরকার, পল¬ী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ গভীর শোক প্রকাশ করে তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close