যুক্তরাজ্য জুড়ে

যুক্তরাজ্যে আরেক বাংলাদেশীর পতন: এমপি প্রার্থিতা প্রত্যাহার করল লেবার পার্টি

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যে সাধারণ নির্বাচনে এমপি পদে সুমন হকের প্রার্থিতা বাতিল করেছে লেবার পার্টি। যুক্তরাজ্যে সাধারণ নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সুমন হকের এমপি পদে মনোনয়ন বাতিল করেছে লেবার পার্টি।

স্কটল্যান্ডে জন্ম নেওয়া সুমন হকের পূর্বপুরুষের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতকে। মাত্রাতিরিক্ত মদ পান করে গাড়ি চালানোর অভিযোগে গতকাল শুক্রবার আদালতে হাজিরা দিতে হয় সুমন হককে। এরপরই লেবার পার্টি তাঁর মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেয়। সুমন হক স্কটল্যান্ডের অ্যাবার্ডিনশায়ারের বেনফ অ্যান্ড বুখান আসনে লেবার দলের প্রার্থী হয়েছিলেন। তিনি ছিলেন স্কটল্যান্ডের আসনে এমপি পদে মনোনয়ন পাওয়া প্রথম কোনো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী।

স্কটল্যান্ডের সংবাদমাধ্যমগুলোতে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, গত বছরের ১ মে সুমন হক মাত্রাতিরিক্ত মদ্ খেয়ে গাড়ি চালানোর সময় পুলিশের কাছে ধরা পড়েন। এ সময় তাঁর গাড়ি চালানোর লাইসেন্স ও গাড়ির ফিটনেস সার্টিফিকেট ছিল না। এসব অভিযোগে সুমন হক গতকাল অ্যাবার্ডিন শহরের শেরিফ কোর্টে হাজিরা দিতে যান। তিনি সব অভিযোগ অস্বীকার করেন। আগামী মাসে এই মামলার বিচার শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

সুমন হকের অভিযোগের ব্যাপারটি জানাজানি হলে লেবার পার্টি এক বিবৃতিতে বলে, লেবার পার্টির প্রতিনিধিত্ব করা থেকে সুমন হককে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং সাধারণ নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে সুমন হকের ওপর থেকে আমরা সমর্থন প্রত্যাহার করে নিলাম। যুক্তরাজ্যে মদ্যপান করে গাড়ি চালানো ফৌজদারি অপরাধ।

এ ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানতে গতকাল বিকেলে সুমন হকের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হয়। তবে তাঁকে পাওয়া যায়নি। তাঁর ফেসবুক পেজটিও তুলে নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনের মাত্র ১২ দিন বাকি থাকতে সুমন হকের প্রার্থিতা বাতিল করার পরিপ্রেক্ষিতে লেবার দল আসনটিতে নতুন করে আর প্রার্থী দিতে পারবে না। কারণ গত ৯ এপ্রিল মনোনয়ন জমাদানের দিন শেষ হয়েছে।

আগামী ৭ মে যুক্তরাজ্যে সাধারণ নির্বাচন হবে। এই নির্বাচনে দেশটির প্রধান তিনটি দল থেকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মোট ১২ জন এমপি পদে মনোনয়ন পান। সুমন হকের প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় এই সংখ্যা কমে এখন ১১টি পদে নেমে এল।

এদিকে, গত বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যে একমাত্র মুসলিম ও অশ্বেতাঙ্গ মেয়র বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত লুৎফর রহমান নির্বাচনে জালিয়াতির দায়ে আদালতে দোষী সাব্যস্ত হন। তাঁকে তাৎক্ষণিকভাবে পূর্ব লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের মেয়র পদ থেকে অপসারণ করা হয়। ওই ঘটনার পরদিনই বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি প্রার্থী সুমন হকের পতন ঘটল।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close