গ্যালারী থেকে

বিশ্বরেকর্ড গড়ে সামনে এগিয়ে তামিম-ইমরুল

গ্যালারী থেকে ডেস্ক: ১৯৬০ সাল। দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার পাঁচ ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্ট। ওভালে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৫৫ রানেই প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ডের। জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ দাঁড়ায় পাহাড়সমান, ৪১৯ রান। অর্থাৎ ২৬৪ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে ইংল্যান্ড। তখনো টেস্টের দুই দিন বাকি। ম্যাচ বাঁচানোর কঠিন চ্যালেঞ্জ ইংলিশদের সামনে।

কিন্তু বাকি দুই দিনের গল্পটা কি জানেন?

যে ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ১৫৫ রানে অলআউট, সেই তারাই দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে! কত রানে জানেন? ৯ উইকেটে ৪৭৯ রান! অবিশ্বাস্য তাই না?

আর সেই অবিশ্বাস্য কাজটাই করে দেখিয়েছিলেন দুই ইংলিশ ব্যাটসম্যান কলিন কাউড্রে ও জিওফ পুলার। ম্যাচের তৃতীয় ইনিংসে দুজনের উদ্বোধনী জুটিতে এসেছিল ২৯০ রান!

এত দিন ওটাই ছিল টেস্টের তৃতীয় বা চতুর্থ ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে সর্বোচ্চ সংগ্রহ। তবে এখন থেকে রেকর্ডটির পাশে আর কাউড্রে-পুলারের নাম লেখা থাকবে না! কারণ ৫৫ বছরের অক্ষত রেকর্ডটি এবার ভেঙে দিলেন বাংলাদেশের তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস।

পাকিস্তানের বিপক্ষে খুলনা টেস্টে ম্যাচের তৃতীয় ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে কাউড্রে-পুলারের ২৯০ রান ছাড়িয়ে নতুন ইতিহাস গড়েছেন দুই টাইগার ওপেনার। সেই সঙ্গে টেস্টে ক্রিকেটের ইতিহাসে কোনো টেস্টের তৃতীয় বা চতুর্থ ইনিংসে প্রথমবারের মতো তিনশ` রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছেন, ৩১২ রান।

মজার বিষয়, ইংল্যান্ডের মতো বাংলাদেশও রানের পাহাড় মাথায় নিয়েই তাদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইংল্যান্ড যেখানে ২৬৪ রানে পিছিয়ে ছিল, সেখানে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ পিছিয়ে ছিল ২৯৬ রানে! বাংলাদেশের জন্যও ম্যাচ বাঁচানো তখন বিশাল এক চ্যালেঞ্জ। তবে তামিম-ইমরুলের রেকর্ড জুটিতে সে চ্যালেঞ্জটা ভালোমতোই মোকাবিলা করছে বাংলাদেশ।

টেস্টের তৃতীয় বা চতুর্থ ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে তৃতীয় সর্বোচ্চ (তামিম-ইমরুলের রেকর্ডের অাগে যা দ্বিতীয় ছিল) সংগ্রহের রেকর্ড অ্যান্ড্রু স্ট্রস ও মার্ক ট্রেসকথিকের। ২০০৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ডারবান টেস্টের তৃতীয় ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে ইংল্যান্ডকে ২৭৩ রান উপহার দিয়েছিলেন দুজন।

টেস্টের তৃতীয় বা চতুর্থ ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতে পাঁচ সর্বোচ্চ সংগ্রহ:

জুটি রান ইনিংস প্রতিপক্ষ ভেন্যু সাল

তামিম ইকবাল-ইমরুল কায়েস (বাংলাদেশ) ৩১২ তৃতীয় পাকিস্তান খুলনা ২০১৫

কলিন কাউড্রে-জিওফ পুলার (ইংল্যান্ড) ২৯০ তৃতীয় দক্ষিণ আফ্রিকা ওভাল ১৯৬০

অ্যান্ড্রু স্ট্রস-মার্ক ট্রেসকথিক (ইংল্যান্ড) ২৭৩ তৃতীয় দক্ষিণ আফ্রিকা ডারবান ২০০৪

গর্ডন গ্রিনিজ-ডেসমন্ড হায়নেস (উইন্ডিজ) ২৫০* চতুর্থ অস্ট্রেলিয়া জর্জটাউন ১৯৮৪

ম্যাথু হেইডেন-জাস্টিন ল্যাঙ্গার (অস্ট্রেলিয়া) ২৪২ তৃতীয় উইন্ডিজ অ্যান্টিগা ২০০

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close