খিষ্ট্রিয় থেকে

অতএব বিগ ব্যাং-ই সঠিক সৃষ্টিতত্ব

বাইবেলে বর্ণিত  সৃষ্টিতত্ত্ব আমাদের জাদুতে বিশ্বাস করতে শেখায়। অতএব বিগ ব্যাং-ই সঠিক  সৃষ্টিতত্ত্ব। -পোপ ফ্রান্সিস

wpid-bang.jpg

দ্বীন দুনিয়া ডেস্ক: গত ২৮ শে অক্টোবর বিজ্ঞান বিষয়ক এক সমাবেশে এই উক্তি করেন খ্রিস্টধর্মের  সর্বোচ্চ পদাধিকারী পোপ ফ্রান্সিস। তিনি বলেন, ঈশ্বর তো কোন জাদুকর নন যে,  জাদু-কাঠির ছোঁয়ায় সবকিছু করে ফেলবেন! বাইবেলে বর্ণিত সৃষ্টিতত্ত্ব আমাদের জাদুতে  বিশ্বাস করতে শেখায়। কিন্তু সেটা ঠিক নয়। বরং বিগ ব্যাং-ই সঠিক সৃষ্টিতত্ত্ব। আর  ঈশ্বর চেতনার সঙ্গে এর কোন বিরোধ নেই।

তিনি বলেন, ‘বিজ্ঞান-তত্ত্বের সঙ্গে ধর্মের কোন বিরোধ নেই। মহাবিশ্বের  সৃষ্টিতত্ত্ব হিসাবে আমরা বিগ ব্যাং-কেই মেনে নিয়েছি। ঈশ্বরই সৃষ্টিকর্তা, এই কথা  বললেও সৃষ্টির স্বরূপ বুঝতে বিগ ব্যাংয়ের মতো তত্ত্বের প্রয়োজন রয়েছে। জেনেসিসে  যেভাবে সৃষ্টিতত্ত্বের ব্যাখ্যা করা হয়েছে, তা পড়লে মনে হয়, ঈশ্বর স্রেফ এক জাদুকর  এবং তার জাদু-কাঠির ছোঁয়ায় সব কিছু সৃষ্টি করে ফেলেছেন! পোপের এই মন্তব্য নিয়ে  কট্টরপন্থী খ্রিষ্টানদের মধ্যে সমালোচনার ঝড় উঠলেও বিজ্ঞানীরা তার এই মন্তব্যকে  স্বাগত জানিয়েছেন।

[কেবল বিস্ফোরণেই কিছু সৃষ্টি হয় না। বরং এর জন্য  সৃষ্টিকর্তা প্রয়োজন হয়। যিনি জীবজগত ও তাদের বাসোপযোগী করে ভূমন্ডল ও নভোমন্ডল  সৃষ্টি করেন। অতএব কেবল বিগ ব্যাং-ই শেষ কথা নয়। আল্লাহ বলেন, ‘অবিশ্বাসীরা কি দেখে না যে, নভোমন্ডল ও ভূমন্ডল একত্রিত ছিল। অতঃপর আমরা  উভয়কে পৃথক করে দিলাম এবং আমরা পানি দ্বারা সকল প্রাণবান বস্ত্তকে সৃষ্টি করলাম।  এরপরও কি তারা বিশ্বাস স্থাপন করবে না?’(আম্বিয়া ৩০)।]

Tags
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close