লন্ডন থেকে

ছয় দিনের ব্যক্তিগত সফরে লন্ডন এসে পৌছেছেন প্রধানমন্ত্রী: গাড়ি বহরে ডিম, জুতা নিক্ষেপ করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি

শীর্ষবিন্দু নিউজ: ছয় দিনের ব্যক্তিগত সফরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডন এসে পৌঁছেছেন। এটি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত ব্যক্তিগত সফর। লন্ডনে অবস্থানকালে তিনি পরিবারের সদস্যদের সাথে সময় কাটানো ছাড়াও চোঁখের চিকিৎসা নেবেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ এমপি প্রধানমন্ত্রীর বোনের মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক।

প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইট (বিজি-০০১) লন্ডন সময় বিকেল তিনটা একচল্লিশ মিনিটে হিথ্রো বিমান বন্দরের টার্মিনাল ফোর-এ এসে পৌঁছালে বিমানবন্দরে রয়েল ভিআইপি স্যুইটে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান লন্ডনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান, সহকারী হাইকমিশনার খন্দকার তালহা, প্রেস মিনিস্টার সাংবাদিক নাদিম কাদির, ডিফেন্স এডভাইজার ব্রিগেডিয়া পাশা হাবিব উদ্দিন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের পক্ষে সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ, সহ-সভাপতি জালাল উদ্দিন, সেক্রেটারি সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, এ্যাসিসটেন্ট সেক্রেটারি আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, জয়েন্ট সেক্রেটারি নঈম উদ্দিন রিয়াজ, জয়েন্ট সেক্রেটারি মারুফ চৌধুরী সহ ইউকে আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও প্রধান মন্ত্রীর পরিবারের সদস্যরা।

এদিকে, চারদিন ব্যাপী বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশের প্রথম দিনে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হোটেল স্যুটের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি। শুক্রবার (১২ জুন) সেন্ট্রাল লন্ডনের অজিভাত এলাকা পার্কলেনের হিলটন হোটেলের সামনে দুপুর ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের সহস্রাধিক নেতাকর্মী অবস্থান করে। এয়ারপোর্ট হতে হোটেলে এসে পিছনের দরজা দিয়া প্রবেশের সময় সেখানে অবস্থানরত শতাধিক নেতাকর্মী হাসিনার গাড়ি বহরে ডিম, জুতা নিক্কেপ করেছে।

হোটেল স্যুটের সামনে নানা দাবি সম্বলিত ব্যানার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে ও মাথায় কালো কাপড় বেঁধে বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, তরুণ দল ও মহিলা দলের নেতাকর্মীরা শেখ হাসিনার লন্ডন সফরের প্রতিবাদ জানায়। এ সময় নেতাকর্মীরা ডাউন ডাউন শেখ হাসিনা, শেইম শেইম শেখ হাসিনা, হাসিনা মাস্ট গো, কিলার হাসিনা গো এ ওয়ে, ইত্যাদি নানা দাবি সম্বলিত ব্যানার নিয়ে জ্বালোরে জ্বালো আগুন জ্বালো, একশান একশান ডাইরেক্ট একশন ইত্যাদি নানা শ্লোগান দেয়।

যুক্তরাজ্য বিএনপি সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব ও গণতান্ত্রিক চেতনাবিরোধী শেখ হাসিনার হাতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব মোটেও নিরাপদ নয়। তাই গণতান্ত্রিক মূল্যবোধবিরোধী শেখ হাসিনাকে গণতন্ত্রের সুতিকাগার ব্রিটেনে বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী মানুষ স্বাগত জানাতে পারে না। শেখ হাসিনা যেখানেই যাবেন তাকে সেখানেই প্রতিহত করা হবে। ৫ জানুয়ারীর একটি ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা ক্ষমতা দখল করেছেন যা বৃটেন, আমেরিকা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। তিনি অবৈধ প্রধানমন্ত্রী।

পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান, বিশেষ করে ভারতের সঙ্গে দীর্ঘ প্রতিক্ষীত স্থল সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের পক্ষ থেকে আগামী ১৪ জুন লন্ডনে প্রধানমন্ত্রীকে পার্ক লেন হোটেলে সংবর্ধনা দেয়া হবে। আগামী ১৭ জুন প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার দেশে ফিরে যাবেন। তবে তিনি ঢাকায় না গিয়ে সরাররি সিলেট যাবেন এবং ঐদিন সিলেটে অবস্থান করবেন। ১৮ জুন সিলেট থেকে ঢাকায় যাবেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও ইতিমধ্যেই কানাডা থেকে লন্ডনে এসে পৌঁছেছেন বলে জানা যায়।

প্রধান মন্ত্রীর সফর সঙ্গি হিসেবে রয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া এডভাইজার ইকবাল সোবহান চৌধুরী, প্রেস সেক্রেটারি এ কে এম শামীম চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রীকে মোটর শুভযাত্রা সহকারে নিয়ে আসা হয় সেন্ট্রাল লন্ডনের পার্ক লেনের হিলটন হোটেলে, এসময় রাস্তার উভয় পাশে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান হাজার হাজার প্রবাসী বাঙ্গালী, হোটেলের বাইরে অপেক্ষমান যুক্তরাজ্য মহিলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে প্রধান মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ করে ইউকে মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্যরা। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খালেদা কোরেশী, হোসনেয়ারা মতিন, আনজুমানারা অঞ্জু প্রমুখ।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close