জাতীয়

দেশে আগামীকাল ঈদ

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: প্রায় এক মাস সিয়াম সাধনার পর খুশির ঈদ সমাগত। আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল সারা দেশে উদযাপিত হবে মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তম উৎসব ঈদুল ফিতর। এবারের পবিত্র রমজান মাস ২৯ দিনের হলে আজ চাঁদ দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে আগামীকাল সারা দেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।

আর ৩০ দিনের হলে শনিবার চাঁদ দেখা না গেলেও রোববার ঈদ হবে। এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি আজ সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে বৈঠকে বসবে। এ বৈঠকেই চূড়ান্ত হবে ঈদ কাল না পরশু হবে। পবিত্র ঈদুল ফিতরকে উপলক্ষ করে দেশের প্রায় প্রতিটি ঘরে প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। সাধ্যমতো সব পরিবারই নতুন জামা-কাপড় কিনেছে। খাবার তৈরির জন্য কেনা হয়েছে সেমাই, চিনি, দুধসহ সুস্বাদু খাদ্যসামগ্রী। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ঈদের আগে দরিদ্র লোকদের ফিতরা-জাকাত দিয়ে থাকেন।

এবারের সর্বনিম্ন ফিতরা নির্ধারণ করা হয়েছে ৬৫ টাকা। ইসলামের বিধান অনুযায়ী ঈদের জামাতের আগেই ফিতরা পরিশোধ করে দিতে হয়। এদিকে গ্রামের বাড়িতে আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে ঈদ করার জন্য রাজধানীর প্রায় অর্ধেক লোক নানা কষ্ট-বিড়ম্বনা উপেক্ষা করে ঘরমুখে ছুটে চলেছেন। এক মাস সিয়াম সাধনার মধ্য দিয়ে জীবনকে পূতঃপবিত্র করে গড়ে তোলার সাধনার পর তার পরিপূর্ণতা দিতে মুসলমানরা ঈদ উৎসবে মেতে ওঠেন। আর এ উৎসব আপনজনদের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিতেই মানুষের এ নিরন্তর ছুটে চলা।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ এডভোকেট, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ, জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মকবুল আহমাদ পৃথক বাণীতে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। এদিকে সারাদেশে মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় ঈদের দিন রাজধানীতে হালকা এবং দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামীকাল পবিত্র ঈদ-উল ফিতর উদযাপিত হতে পারে।

আর ৩০ রোজা পূর্ণ হলে ঈদ হবে পরের দিন রোববার। আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ গতকাল সাংবাদিকদের জানান, শনিবার সারা দেশে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এরমধ্যে দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বৃষ্টি এবং ঢাকায় ছিটেফোঁটা বৃষ্টি হতে পারে। এই পূর্বাভাস শুক্রবার আরও স্পষ্টভাবে পাওয়া যাবে বলে জানান বজলুর রশিদ। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র মাঝারী অবস্থায় রয়েছে বলে পূর্বাভাসে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর। গতকাল দুপুরের পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মাঝারী থেকে ভারী বৃষ্টি হয়েছে। ঢাকায় ৬৩ মিলিমিটার এবং সর্বোচ হাতিয়ায় ১২৩ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।

প্রেসিডেন্টের বাণী: প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ এডভোকেট পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীসহ বিশ্বের সব মানুষকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানান। তিনি বলেন, ঈদ অর্থ আনন্দ, খুশি। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার পর ঈদুল ফিতর মানবজাতির জন্য বয়ে আনে এক অনাবিল আনন্দ ও খুশির বারতা। ঈদ সব শ্রেণী-পেশার মানুষের মধ্যে গড়ে তুলে সমপ্রীতি, সৌহার্দ্য ও ঐক্যের বন্ধন। এদিন ধনী-গরিব, আশরাফ-আতরাফ নির্বিশেষে সবাই এক কাতারে শামিল হয় এবং ঈদের আনন্দকে ভাগাভাগি করে নেয়। শান্তিপূর্ণ ও সৌহার্দ্যময় সমাজ গঠনে ঈদুল ফিতরের আবেদন তাই চিরন্তন। পবিত্র ঈদুল ফিতরের শিক্ষা আমাদের সুন্দর সমাজ গঠনে উদ্বুদ্ধ করুক- এ প্রত্যাশা করি।

প্রধানমন্ত্রীর বাণী: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেয়া বাণীতে বলেন, মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার পর সবার জন্য আনন্দের বার্তা নিয়ে এসেছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। মুসলিম জাহানের প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আমি দেশবাসী ও বিশ্বের সকল মুসলমানকে জানাই ঈদ মোবারক। তিনি বলেন, ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের অনুপম শিক্ষা দেয়। সাম্য, মৈত্রী ও সমপ্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ করে সকল মানুষকে। ব্যক্তি, সমাজ ও জাতীয় জীবনের সর্বক্ষেত্রে ঈদুল ফিতরের শিক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে আমি সবার প্রতি আহ্বান জানাই। ঈদ ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবার জীবনে আনন্দের বার্তা বয়ে নিয়ে আসুক, এই কামনা করছি।

খালেদা জিয়ার বাণী: ঈদুল ফিতর উপলক্ষে এক বাণীতে বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব মুসলমানকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ব্যক্তিজীবনকে সুন্দর ও পরিশুদ্ধ করে গড়ার লক্ষ্যে মুমিন মুসলমানরা মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার পর অনাবিল আনন্দের বারতা নিয়ে ঈদুল ফিতর সমাগত। ঈদুল ফিতর বিশ্ব মুসলিমের সবচেয়ে বড় উৎসব।

আর ঈদুল ফিতরের উৎসব সমাজের সব ভেদরেখা ও সীমানা অতিক্রম করে মানুষে মানুষে মহামিলন ঘটায় ও সৃষ্টি করে পরস্পরের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছাবোধ। ধনী-গরিব, উঁচু-নিচু নির্বিশেষে সকল মানুষকে এক কাতারে দাঁড় করায়। হানাহানি, হিংসা, বিদ্বেষ ও তিক্ততার গ্লানি থেকে মানুষের মনকে এক অনাবিল শান্তি ও সমপ্রীতির চেতনা দান করে ঈদুল ফিতরের উৎসব।

তাই আজকের এ উৎসবের দিনে প্রতিটি মুসলমান নর-নারী সৌহার্দ্যের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে আনন্দকে একত্রে উপভোগ করতে হবে। ঈদুল ফিতর নির্মল আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ মর্মবাণী মানবজাতির কাছে পৌঁছে দেয়, তা হচ্ছে ‘সকলের তরে সকলে মোরা’। এ মর্মবাণী সামাজিক অন্যায় ও অসাম্যকে অতিক্রম করে এক নিবিড় ভ্রাতৃত্ববোধের প্রেরণা জাগায়। আর এ প্রেরণায় উদ্দীপ্ত হয়ে সমাজের অপেক্ষাকৃত দরিদ্র, অবহেলিত ও বঞ্চিত মানুষের প্রতি সাহায্য ও সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দেয়া মুসলমান হিসেবে আমাদের কর্তব্য।

ঈদুল ফিতরের এ দিনে আমি মহান আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিনের দরবারে মোনাজাত করি বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির জন্য। আলাদা বাণীতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close