গ্যালারী থেকে

বাংলাদেশের জয় মানতে পারছে না পাকিস্থান

গ্যালারী থেকে ডেস্ক: ষড়যন্ত্র তত্ত্ব থেকে বেরই হতে পারলো না পাকিস্তানিরা। একে তো বাংলাদেশের কাছে তারা ‘ধবল ধোলাই’ হয়ে গেছে, সে লজ্জ্বা ঢাকতেই সম্ভবত এখন একের পর এক প্রলাপ বকে যাচ্ছে পাকিস্তানি ক্রিকেটার থেকে ভক্তরা। বাংলাদেশের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকার এভাবে হার যেন মানতেই পারছেন না পাকিস্তারিরা। তারা বলছে, কিভাবে সম্ভব, বাংলাদেশের কাছে এভাবে দক্ষিণ আফ্রিকার মত দল হেরে যায়?

বাংলাদেশের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকার সিরিজ পরাজয়ের মধ্যে ফিক্সিংয়ের গন্ধও খুঁজে পাচ্ছেন রমিজ রাজা, মিসবাহ-উল হক থেকে শুরু করে পাকিস্তানি ক্রিকেট সমর্থকরা এবং এ জন্য আইসিসির কাছে তাদের দাবি, ফিক্সিংয়ের তদন্ত করা হোক।

পরপ দুই ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১৬০ থেকে ১৬৮ রানের মধ্যে বেধে ফেলে যথাক্রমে ৭ এবং ৯ উইকেটের দুটি বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। একই সঙ্গে প্রথমবারের মত ক্রিকেটের কোন ফরম্যাটে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, জিম্বাবুয়েকে দিয়ে শুরু করে টানা চারটি সিরিজও জিতে নিল মাশরাফি অ্যান্ড কোং।

বুধবার চট্টগ্রামে প্রোটিয়াদেরকে ৯ উইকেটে বিধ্বস্ত করার দৃশ্য যেন সইতেই পারছিলেন না পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা। বরাবরই তিনি বাংলাদেশের ক্রিকেট বিদ্বেষী। বাংলাদেশের কোন সাফল্য দেখলেই নাক সিটকানো যার স্বভাব। তিনিই কি না প্রোটিয়াদের হারের মধ্যে ফিক্সিংয়ের ষড়যন্ত্র খুঁজে পাচ্ছেন। অনেকগুলো টুইতে তিনি ফিক্সিং তদন্তের দাবি জানান। হ্যাশ ট্যাগ দিয়ে তিনি লিখেন #InvestigateBANvSAmatches

শুরুতেই তিনি লিখেছেন, ‘প্লিজ আইসিসি বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা ২য় এবং ৩য় ওয়ানডে ম্যাচ দুটি তদন্ত করুন।’“@ICC pls investigate the #BanvSA 2nd & 3rd ODI match as I believe @OfficialCSA has a deal with Bangladesh to ensure they play champ trophy.” দক্ষিণ আফ্রিকার পরাজয়ের পর ট্ইুটারে তিনি লিখেন, ‘এত সহজে কিভাবে বাংলাদেশের কাছে হেরে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা? এখানে নিশ্চয় ভিন্ন কোন কিছু রয়েছে। আইসিসির উচিৎ, অবশ্যই এর তদন্ত করা।’ এই একটি মাত্র টুইট করেই তিনি থেমে থাকলেন না। করে গেছেন টুইটের পর টুইট।

একটি টুইটে তিনি দাবি করেন, ‘বাংলাদেশ হয়তো এটা নিয়ে আমার সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠবে। তবুও আমি টুইট করে যাবো, পাতানো ম্যাচের তদন্তের দাবিতে।’

অপর এক টুইটে তিনি লিখেন, ‘দিল মে কুচ কালা হ্যায়। এটা কোনভাবেই বোধগম্য নয় যে, কিভাবে দক্ষিণ আফ্রিকা পরপর দুই ম্যাচে ১৬০এর আশে-পাশে অলআউট হয়!’

পাকিস্তানকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে বাদ দেওয়ার জন্যই নাকি বাংলাদেশ টাকা ঢেলে এমন জয় কিনে নিয়েছে। এ কারণেই তিনি একটি টুইটে লিখেছেন, ‘আইসিসির জন্য লজ্জা হয় যে, কিভাবে শেখ হাসিনার টাকা খেয়ে অন্ধ হয়ে গেছে।’ একই ধরনের আরেকটি টুইটে তিনি লিখেন, ‘এভাবে ম্যাচ ফিক্সিং করেই হয়তো তারা পাকিস্তানকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে বাদ দিয়ে দিচ্ছে। এ কারণেই আমরা ন্যায় বিচাার দাবি করছি।’

শেষ পর্যন্ত আইসিসিকে বিদ্ধ করে রমিজ রাজা লিখেন, ‘আইসিসি কখনওই বৈধ ক্রিকেট পরিচালনা করতে সক্ষম নয়। তারা এখন ফিক্সিংকে বিকেন্দ্রীকরণ শুরু করে দিয়েছে।’

রমিজ রাজার এসব টুইটকে কপি-পেস্ট করে পাকিস্তানে চলছে টুইটার ঝড়। তার টুইটগুলো পুরো কপি করে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশের জয়ের মাঝে ফিক্সিং রয়েছে কিনা আইসিসির কাছে তদন্তের দাবি জানিয়েছেন, পাকিস্তানের বর্তমান টেস্ট দলের অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক, ক্রিকেটার মোহাম্মদ ছিমাসহ অনেকে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close