জাতীয়

ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান না পাওয়া দু:খ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বললেন ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে

শীর্ষবিন্দু নিউজ: এক সময় ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাননি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দু;খ প্রকাশ করে তিনি বললেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে কাজ করার করতে হবে।

তিনি বলেছেন, যারা ভোগের চিন্তা থেকে রাজনীতি করে তারা দেশকে কিছু দিতে পারবে না। আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের জন্মই হয়েছে এদেশের মানুষের কল্যাণে। দেশের মানুষকে একমাত্র আওয়ামী লীগই কিছু দিতে পেরেছে। আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে তখনই এদেশের মানুষ কিছু না কিছু পেয়েছে। ত্যাগের মনোভাব থাকার কারণেই আওয়ামী লীগ সরকার দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে যেতে পেরেছে। দুপুরে রাজধানীর সোহারাওয়াদী উদ্যানে ছাত্রলীগের ২৮তম সম্মেলনের উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দুদিন ব্যাপী সম্মেলনে আগামীকাল ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠনটির নেতৃত্ব নির্বাচিত হবে কাউন্সিল অধিবেশনের মাধ্যমে। সকালে শুরু হওয়া সম্মেলনে ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতারা বক্তব্য রাখেন। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ, দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ও প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদের। ছাত্রলীগ সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগের সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, মন্ত্রিসভার সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগের সম্মেলনেই প্রথম স্বচ্ছ ব্যালট বাক্সের ব্যবহার হয়েছিল। এরপর আমরা জাতীয় নির্বাচনে এ ধরণের বাক্স ব্যবহার করি। এবারও ভোটের মাধ্যমে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব নির্বাচন হবে। কাউন্সিলররা যাদের ভোট দেবে তারাই সংগঠনের নেতৃত্বে আসবে।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে মনে রাখতে হবে লেখাপড়া হলো সবার আগে। যারা লেখাপড়ায় মনোযোগী তাদেরকে নির্বাচিত করতে হবে। উন্নয়ন ও অগ্রগতির পথে এগিয়ে যেতে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে প্রত্যেককে নিরলস ভাবে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মসূচিও তুলে ধরেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close