প্রযুক্তি আকাশ

উইন্ডোজ ১০: যে পাঁচটি নতুন ফিচার সম্পর্কে আপনার জানা উচিৎ

প্রযুক্তি আকাশ ডেস্ক: আজ থেকে সারাবিশ্বের উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা এই জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেমের সর্বশেষ সংস্করণ উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করতে পারবেন। যারা আগেভাগেই ফরমায়েশ দিয়ে রেখেছেন, তারা ইতিমধ্যেই নিজেদের কপি পেতে শুরু করেছেন।

যখন আরও কপি সহজলভ্য হবে, তখন উইন্ডোজ নিজে থেকেই আপনাকে জানিয়ে দেবে আপনার ডিভাইস উইন্ডোজ ১০-এর জন্য উপযোগী কিনা। যদি উত্তর ইতিবাচক হয়, তাহলে উইন্ডোজ ১০ স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিনামূল্যে ডাউনলোড হয়ে যাবে। এ খবর দিয়েছে খালিজ টাইমস।

নতুন উইন্ডোজে কিছু নতুন বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটির প্রশংসা করেছেন প্রযুক্তি সমালোচকরাও। এ নতুন ফিচারগুলো কতটুকু কার্যকর বা গ্রাহকবান্ধব হবে তা সময়ই বলবে। তবে যারা উইন্ডোজ ১০ নিয়ে আগ্রহী, তারা জেনে নিতে পারেন এ ফিচারগুলো সম্পর্কে। কর্টানা: কর্টানা নামের একটি ‘সহকারী’ যুক্ত করা হয়েছে উইন্ডোজ ১০-এ। এটি অনেকটা অ্যাপলের ‘সিরি’র মতো। তবে মাইক্রোসফট কর্টানাকে ডাকছে ‘বিশ্বের প্রথম সত্যিকারের ডিজিটাল সহকারী’ হিসেবে। কর্টানাকে ব্যবহারকারীরা লিখে বা ইংরেজিতে বলে নির্দেশ দিতে পারেন।

এটি যুক্ত করা যাবে উইন্ডোজ স্মার্টফোনেও। কর্টানা আপনাকে তার নিজের বিবেচনায় বিভিন্ন বিকল্প সুপারিশ করবে। এছাড়া ওয়েবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তথ্যে আপনাকে সহজ প্রবেশাধিকারও দেবে এটি। মনে করিয়ে দেবে আপনার গুরুত্বপূর্ন কাজের কথা। উইন্ডোজ প্রোটেক্টর: উইন্ডোজ ১০-এ রয়েছে বিনামূল্যের একটি অফিসিয়াল অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার প্রোগ্রাম। এর নাম দেয়া হয়েছে উইন্ডোজ প্রোটেক্টর।

আপনার ডিভাইস আজীবন উইন্ডোজ প্রোটেক্টরের মাধ্যমে নিরাপত্তা হালনাগাদ গ্রহণ করতে পারবে। বর্তমানে এ ধরণের সেবা যেকোনো অপারেটিং সিস্টেমের জন্যই প্রথম। মাইক্রোসফট এজ: উইন্ডোজ ১০-এ মাইক্রোসফট একটি নতুন ইন্টারনেট ব্রাউজারের সূচনা করেছে। ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের সমাপ্তি ঘটাতেই আগমন ঘটেছে এ নতুন ব্রাউজার মাইক্রোসফট এজ-এর। এর মাধ্যমে ব্রাউজারের প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক বাজারে আবারও আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করতে চায় মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফট এজ-এ রয়েছে বিল্ট-ইন শেয়ারিং ও কমেন্টিং সিস্টেম। রয়েছে বিশেষ রিডার ইন্টারফেস।

এর ফলে পড়ার ওয়েবসাইটগুলো পড়তে বিশেষ সুবিধা পাবেন ব্যবহারকারীরা। কর্টানার সঙ্গে সংযুক্ত করা হলে এজ আপনাকে আপনার ব্যাক্তিগত রুচি অনুযায়ী সরবরাহ করবে বিভিন্ন ফলাফল ও পরামর্শ। মাইক্রোসফট অফিস ২০১৬: মাইক্রোসফট অফিসের নতুন সংস্করণ আনা হয়েছে উইন্ডোজ ১০-এ। অফিস ২০১৬-এর হালনাগাদকৃত ডেস্কটপ স্যুইট রয়েছে অপারেটিং সিস্টেমটিতে। অফিস ২০১৬-এর ওয়ার্ড, এক্সেল ও পাওয়ারপয়েন্ট আবার ব্যবহার করা যাবে উইন্ডোজ চালিত মোবাইল, ট্যাবলেট বা অন্যান্য ডিভাইসেও।

এক্সবক্স লাইভ গেমিং নেটওয়ার্ক: উইন্ডোজের এ নতুন সংস্করণে গেমারদের জন্যও রয়েছে বিশেষ সুবিধা। এক্সবক্স লাইভ গেমিং নেটওয়ার্কের সঙ্গে সংযুক্ত করা যাবে উইন্ডোজ ১০-কে। এর ফলে খেলার পাশাপাশি একই সময়ে বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাবে। একটি গেম ডিভিআর-এর মাধ্যমে নিজের খেলাটি রেকর্ড করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close