অন্য পত্রিকা থেকে

নতুন নাগরিকদের প্রথম উপহার পিন কোড

সাবিত খান: ছিটমহলবাসীদের দীর্ঘ দিনের বঞ্চণার ইতি ঘটতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ছিটমহল বিনিময়ের মাধ্যমে। শুক্রবার মধ্যরাতে এ দুই দেশ আনুষ্ঠানিকভাবে ছিটমহল বিনিময় করবে। আর এই ঐতিহাসিক স্বাধীনতা প্রাপ্তির অবিস্মরণীয় মুহূর্তটি খুব কাছ থেকে দেখার বিরল সৌভাগ্যের অধিকারী হচ্ছেন পশ্চিম বঙ্গের কুচবিহার জেলার ম্যাজিস্ট্রেট পি উলাগানাথান।

অনুমোদনের ৪১ বছর পর স্বাক্ষরিত বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ ও ভারত ১৬২ টি ছিটমহল বিনিময় করবে। এর পঞ্চাশ হাজার অধিবাসীরা বিচ্ছিন্নতার বোধ নিয়ে শুধু জাতীয়তার সংকটেই ভোগেনি, বঞ্চিত হয়েছে বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা থেকে। ভারত বাংলাদেশের ৫৫ টি ছিটমহলে প্রবেশগম্যতা পাবে যেখানে ১৪ হাজার অধিবাসী।

এই মানুষদের কোনো ঠিকানা নেই। তাই ঠিকানা প্রদানের উদ্দেশ্যে তাদের প্রত্যেককে একটি করে পিন কোড প্রদান করা আমার প্রথম কাজ। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি’কে এমনটি জানিয়েছেন উলাগানাথান।

ছিটমহলের অধিবাসীরা থেকে যাওয়ার ব্যাপারে তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। উলাগানাথান বলেন, ভারতের সীমান্তের ভেতর অবস্থিত বাংলাদেশী ছিটমহলবাসীদের কেউ ভারত ছাড়তে চায়নি। আবার বাংলাদেশের সীমান্তের ভেতর ভারতের ১১১ টি ছিটমহলের ৩৭ হাজার অধিবাসীদের অধিকাংশই সেখানেই থেকে যাচ্ছে। মাত্র ৯৮০ জন ভারতে আসতে চেয়েছে। স্থানীয়রা সেখানে সামাজিক বন্ধন তৈরি করেছে, বাড়ি বানিয়েছে, জমি কিনেছে। তাই ৬৮ বছর ধরে তারা যেখানে আছে সেখানেই থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তিনি বলেন, ভূমি ছেড়ে আসা ৯৮০ জন খুবই বঞ্চিত এবং তাদের সেখানে কিছুই না থাকায় ভারতীয় ছিটমহল যা বাংলাদেশের সীমান্তের অন্তর্ভূক্ত হয়েছে তা ছেড়ে ভারতে আসছে। আগামীকাল থেকেই প্রায় ভারতীয় সীমান্তের ভেতরেই বসবাস করা ১৪ হাজার অধিবাসীসহ বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে আসা ৯০০ জন নতুন নাগরিককে যথাযথ সুযোগ সুবিধা প্রদানের পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবে ভারত। এই চরমভাবে বঞ্চণার শিকার অধিকাংশেরই শিক্ষা নেই যেহেতু তারা বাংলাদেশী স্কুলে শিক্ষার সুযোগ পায়নি। বিস্ময়কর হলেও সত্য, যে এদের মধ্যে অনেকেরই আমাদের জীবনে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় যে বিদ্যুত, সে বিষয়ে কোনো ধারণাই নেই।

ভারতীয় হিসেবে আনুষ্ঠানিক পরিচিতি, জীবনের মৌলিক অধিকার বঞ্চিত অধিবাসীরা তাদের বাড়িতে ৬৮ টি মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে উদযাপন করবে। দীর্ঘ ৬৮টি বছরের বন্দি জীবনের সীমাহীন দুর্ভোগের সমাপ্তি হতে যাচ্ছে আজ রাতে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close