আরববিশ্ব জুড়ে

৩৫০ বেত্রাঘাতের অপেক্ষায় সৌদি আরবের জেলে বন্দী ব্রিটিশ নাগরিক কার্ল অ্যান্ড্রো

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: ২৫ বছর ধরে থাকেন সৌদি আরব চাকুরী সূত্রে বসবাস করে আসছেন ব্রিটেনের নাগরিক কার্ল অ্যান্ড্রো। যিনি পেশায় একজন ওয়েল এক্সিকিউটিভ।

গত বছর দেড়েক আগে তার কারের বুটের মধ্যে জেদ্দাতে হোম মেইড ওয়াইন এর বোতল খুজে পায় সৌদি পুলিশ। বাস মদ পাওয়ার দরুন পুলিশ, তারপর আদালত। ইসলামিক শরীয়া আইন ও শরীয়া কোর্টে কার্লের হয় জেল। গত ১২ মাস ধরে তিনি জেল খাটছেন।

কার্ল অ্যান্ড্রো যখন জেলে যান তখন বয়স ছিলো ৭৪। বর্তমানে আরো বেশী। তার জেলের মেয়াদ আরো দুই মাস বেড়েছে। এখন তার শাস্তি হবে শরীয়া আইন অনুযায়ী বেত্রাঘাত। তাও ৩৫০ বেত্রাঘাত।

সৌদি আরবে মদ নিষিদ্ধ। ট্যাবলয়েড সান পত্রিকার রিপোর্ট অনুযায়ী জেদ্দার ব্রিমান জেল টর্চারের জন্য বিখ্যাত, যেখানে কার্ল রয়েছেন।

ব্রিটেনে অবস্থানরত তার পরিবার বলছে, তিনি অন্ধকার এক কুঠুরিতে আছেন, যেখানে সূর্যের আলো ঢুকার রাস্তা নেই। তার উপর তার আছে অ্যাজমা। বর্তমানে ক্যান্সারের রুগেও তিনি ভুগছেন বলে তার ছেলে স্কাই নিউজকে জানিয়েছেন।

এমতাবস্থায় পরিবার বলছে, তার তিন সন্তান হিউজ, ক্রিস্টেন এবং সাইমন আবেদন করেছেন, বেত্রাঘাত নেয়ার মতো তার শরীরে দখল সইবেনা। তিনি মারা যেতে পারেন। সেজন্যে তার পরিবার দাবী করছে, ব্রিটিশ সরকার যেন হস্তক্ষেপ করেন তার মুক্তির ব্যাপারে।

ফরেন অফিস বলছে, তারা এ বিষয় সৌদি আরবের সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রাখছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close