যুক্তরাজ্য জুড়ে

বৃটেনজুড়ে এক্সিডেন্ট এন্ড ইমার্জেন্সি সার্ভিসের উপর চার্জের পরিকল্পনা করছে সরকার

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: ফ্রি চিকিৎসা সুবিধা ক্রমান্বয়ে ফুরিয়ে আসছে বৃটেনে অবস্থানরত বিদেশী রোগিদের জন্য। আর তা শুধু নন ইইউ নাগরিক নয়। ইইউ এবং নন ইইউ সবার জন্য। দ্যা টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ রকই এক ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে।

বৃটেন সফররত ইউরোপিয়ান ইকোনমি এরিয়ার বাইরের ভিসিটররা ইউকেতে অবস্থানের সময় তাদের ভিসার সঙ্গে এনএইচএসের নির্ধারিত বা পরিকল্পিত কিছু সেবার জন্য একটি ফি পরিশোধ করে আসেন। নির্ধারিত সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী তারা এনএইচএসের সেবা পেয়ে থাকেন। তবে এবার ওই ফির ক্ষেত্র এক্সিডেন্ট এন্ড ইমার্জেন্সি চিকিৎসা সেবা পর্যন্ত বাড়ানোর পরিল্পনা করছেন হেলথ সেক্রেটারী জেরেমি হ্যান্ট।

বর্তমানে নন ইমার্জেন্সি এনএইচএস সার্ভিসের জন্য হেলথ ট্যুারিজমের অংশ হিসাবে বিদেশীরা প্রায় ১শ ৫০ শতাংশ চার্জ পরিশোধ করে থাকেন। আগামী এপ্রিল থেকে নন ইইউ নাগরিকদের ইউকে সফরের সময় ৬ মাসের বেশি অবস্থান করলে তাদের ভিসার আবেদনের সঙ্গে হেলথ সার্চার্জ হিসেবে নির্ধারিত একটি ফি পরিশোধ করতে হবে।

ডিপার্টমেন্ট অব হেলথ জানিয়েছে, ভিসা গ্রহণের সময় যে সেবাগুলোর জন্য ভিসিটররা ফি পরিধোশ করেন তাদের অবশ্যই সেবা দিয়ে যান ডাক্তাররা। অথবা ইউকেতে যাদের পরিবার আছে, তাদের ট্যাক্স বা তাদের অর্থের বিনিয়মেয় তারা এনএইচএসের সেবা পান।

কিন্তু নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে নন ইইএ মাইগ্র্যান্ট, রিফিউজি, এসাইলাম সিকারদের ক্ষেত্রে এনএইচএসের ইমার্জেন্সি সার্ভিসে চার্জ আরোপ করা হবে। ভিসিটর গর্ভবতী মহিলাদের চার্জ পরিশোধের আগ পর্যন্ত মেটার্নিটি ইউনিটে পাঠানো হবে না বলে জানিয়েছেন হেলথ ডিপার্টমেন্টের এক মূখপাত্র।

দ্যা টাইমসে প্রকাশিত এক সংবাদে জানানো হয়েছে, বিদেশী রোগিরা বর্তমানে এক্সিডেন্ট এন্ড ইমার্জেন্সি সেবা, এম্বুলেন্স সার্ভিস, ফ্রি জিপি সুবিধা নিতে পারেন। তবে সরকারের নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে ইউকে সফররত যে কোনো বিদেশী রোগি এনএইচএসের এক্সিডেন্ট এবং ইমার্জেন্সি সার্বিস ব্যবহার করলে বা জরুরী এম্বুলেন্স কল করলে তার জন্য নির্ধারিত একটি ফি বা চার্জ পরিশোধ করতে হবে।

এর মাধ্যমে ৫শ মিলিয়ন পাউন্ড এনএইচএস সঞ্চয় করতে পারবেন বলে মনে করছে সরকার। এ বিষয়টির উপর আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সরকার কনসালটেশন প্রক্রিয়া শুরু করবে বলে জানা গেছে। যদিও এর প্রতিক্রিয়ায় দ্যা ব্রিটিশ মেডিকেল এসোসিয়েশন জানিয়েছে, ডাক্তারের কাজ হলো রোগিদের সেবা দেয়া। কিন্তু সরকারের নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে ডাক্তারদের বোর্ডার গার্ডের ভুমিকায় নামতে হবে।

ইইএ অর্থাৎ ইউরোপিয়ান ইকোনমি এরিয়ার মধ্যে ইউরোপিয় ইউনিয়নও পড়ে। নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে, ইউকে সফরকারী ইউরোপিয় ইউনিয়নভুক্ত দেশের নাগরিকদের এনএইচএস সার্ভিসের ইমার্জেন্সি সেবা নিতে গেলে ইউরোপিয়ন হেলথ ইন্স্যুরেন্স কার্ড দেখাতে হবে। পরবর্তীতে তাদের স্ব স্ব দেশের সরকারের কাছ থেকে বৃটিশ সরকার সেই অর্থ আদায় করে নিবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close