চায়না মহাদেশ জুড়ে

উন্নত দেশগুলোর সাথে পাল্লা দিয়ে এয়ারলাইন্স ইন্ড্রাস্ট্রিতে এগিয়ে চীন

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ: ইউরোপ-আমেরিকার মতো উন্নত দেশগুলোর সাথে পাল্লা দিয়ে বিভিন্ন ধরনের শিল্প খাতে বিনিয়োগের পর এবার বিমান তৈরীতে বিনিয়োগ করেছে চীন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রথমবারের মতো দেশটিতে তৈরি হলো যাত্রীবাহী বিমান। কমার্শিয়াল এয়ারক্রাফট করপোরেশন অব চায়নার (সিওএমএসি) তত্ত্বাবধানে বিমানটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন করা হয়।

সি ৯১৯ মডেলের বিমানটি দেখতে কিছুটা সরু। ৩৯ মিটার লম্বা বিমানটির যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ১৬৮ জন। সাংহাইয়ের একটি কারখানায় প্রায় এক বছর ধরে তৈরি করা হয় বিমানটি। এর আগেও সিওএমএসি ৭৮ থেকে ৯০ আসন বিশিষ্ট ছোট জেট বিমান তৈরি করেছে। এগুলোর পরীক্ষামূলক উড্ডয়নও সম্পন্ন হয়েছে। তবে মার্কিন ফেডারেল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের ছাড়পত্রের অভাবে এগুলো যুক্তরাজ্যের আকাশসীমায় চলাচলের অনুমতি পাচ্ছে না।

এনডিটিভি জানিয়েছে, এত দিন নিজেদের জন্য ইউরোপ থেকে এয়ারবাস কিনেছে চীন। আর বোয়িং বিমানগুলো আসত যুক্তরাষ্ট্র থেকে। নতুন বিমানটিকে চীনের অনেক বছরের প্রচেষ্টার ফল হিসেবে দেখা হচ্ছে। এখন ইউরোপ বা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রতিযোগিতাও শুরু করতে পারে তারা।

সিওএমএসির চেয়ারম্যান জিন ঝুয়াংলং বলেছেন, চীনের নিজস্ব প্রযুক্তির এই বিমান তৈরি দেশটির জন্য একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। শুরুতে এ বছর ওড়ার পরিকল্পনা থাকলেও আপাতত সেটি পেছানো হয়েছে। আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো যাত্রা করবে বিমানটি। যদিও সি৯১৯ বিমানটি চীন তৈরি করেছে তবু কয়েকটি বিদেশি সংস্থা এর ইঞ্জিনের মতো জিনিস সরবরাহ করেছে।

 

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close