বেড়ানো

কম খরচে ঘুরে আসুন মেঘ-পাহাড়ের স্বপ্নিল এক দেশ হতে

বেড়ানো ডেস্ক: ঘুরতে যাওয়া অনেকেরই নেশা। দেশের সব জায়গা ঘুরা হয়ে গেলে ঘুরে আসতে পারেন পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের দার্জিলিং থেকে। মেঘের দেশ, পাহাড়ের দেশ দার্জিলিং এ একবার ঘুরে আসলে বার বার যেতে চাইবে মন। ছবির মত সুন্দর এই স্থানটি হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত। চলুন, জেনে নিন কোথায় থাকবেন, কোথায় খাবেন, কীভাবে যাবেন সহ খরচাপাতির টুকিটাকি।

কীভাবে যাবেন:

স্বপ্নের দেশ দার্জিলিং এ যাওয়াটা খুব বেশি ঝামেলার নয়। আপনি চাইলে আকাশ পথে না যেয়ে রেলপথ বা সড়কপথেও যেতে পারেন। বিমানপথে যেতে চাইলে ঢাকা থেকে কোলকাতা, কোলকাতা থেকে শিলিগুড়ি। তারপর শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিং।

এই গেল আকাশ পথে যাওয়ার কথা। যদি সড়কপথে যেতে চান, তবে বুড়িমারী বর্ডার দিয়েই যেতে হবে। ঢাকার গাবতলী থেকে প্রতিদিন অসংখ্য যাত্রীবাহী বাস চলাচল করে উত্তরবঙ্গের বুড়িমারী সীমান্তের উদ্দেশ্যে। তবে এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র শ্যামলী বাস শিলিগুড়ি পর্যন্ত যায়। বর্ডারের ট্রাভেল ট্যাক্স দিতে হয়। বর্ডারের সব ফরমালিটি বাসের লোকজন করে দিবে।

তাই বর্ডার নিয়ে ঘাবড়ের যাওয়ার কোন কারণ নেই। এছাড়া রেস্ট নেয়ার জন্য আছে বাস কাউন্টারের খুবই ভাল ব্যবস্থা। এরপর শিলিগুড়ি থেকে পাহাড়ী পথে দার্জিলিং যেতে জীপ লাগবে। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাবেন স্বপ্নের দেশ দার্জিলিং এ।

কোথায় থাকবেন:

দার্জিলিং-এ থাকার মত হোটেলের কোন অভাব নেই। তাই পূর্ব বুকিং দিতে হবে এমনটি ভাবা ঠিক নয়। তবে দেশ থেকে হোটেলের কিছু নাম জেনে নিতে পারেন। গুগলে সার্চ দিয়েই আপনি অসংখ্য হোটেলের নাম পাবেন। এখানে মাঝারি দাম থেকে অল্প দামের অনেক হোটেল পাবেন আপনি। প্রায় প্রতিটি হোটেলেই রয়েছে দর্শনীয় স্থানসমূহ ঘুরে বেড়ানোর জন্য আকর্ষণীয় জিপ, সার্বক্ষণিক গরম পানির ব্যবস্থা, ঠাণ্ডা প্রতিরোধে ওষুধসহ যে কোন মুহূর্তে যে কোন সমস্যার তাৎক্ষণিক সেবা। তবে দালালের ব্যাপারে সাবধান থাকবেন।

কোথায় খাবেন:

হোটেলগুলোতে বাঙালি খাবারসহ সব ধরনের খাবারের ব্যবস্থা আছে। ৪০-৭০ রুপি দিয়ে সবজী, মুরগী বা খাসী দিয়ে সেরে নিতে পারবেন রাতে বা দুপুরের খাবারটা। ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের খাবার খেতে পারবেন এখানে আপনি। তবে হোটেলের খাবারের দাম বেশি পড়বে। তার চেয়ে স্ট্রিট ফুড খেয়ে নিতে পারেন। এখানকার স্ট্রিটফুড গুলো দারুন মজাদার। কম দামে বেশি পরিমাণে পেটভরে খেয়ে নিতে পারেন স্ট্রিটফুডগুলো।

কোথায় ঘুরবেন:

দার্জিলিং এ ঘুরতে যাওয়ার মত জায়গার অভাব নেই। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য স্থানগুলো হল টাইগার হিল, পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু রেলওয়ে স্টেশন ঘুম, হ্যাপি ভ্যালি টি গার্ডেন, গোরখা স্টেডিয়াম, বাতাসিয়া লুপ, কাঞ্চনজঙ্ঘা পাহাড়, দিরদাহাম টেম্পল ইত্যাদি।

কোথায় করবেন কেনাকাটা:

দার্জিলিং শহরের কেনাকাটার জন্য রয়েছে ছোট বড় অনেকগুলো শপিং মল। তবে মহাকাল মার্কেটের কলাকেন্দ্র আর বিগ বাজার থেকে কেনা ভাল। দার্জিলিং বা শিলিগুড়ি দুই জায়গাতেই বিগ বাজার আছে। এছাড়া লাডেন-লা রোডের মার্কেটে পাবেন শীতের পোশাক, হাতমোজা, কানটুপি, মাফলার, সোয়েটারসহ লেদার জ্যাকেট, নেপালি শাল এবং শাড়ি, অ্যান্টিক্স ও গিফট আইটেম, লেদার সু, সানগ্লাস।

খরচ:

দেশের বাইরে হলেও দার্জিলিং শহরের যেতে খুব বেশি খরচ করতে হয় না। দার্জিলিং এ থাকা, খাওয়া, যাতায়াত বাবদ প্রতিজনে সর্বোচ্চ খরচ ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা হতে পারে। বুড়িমারি দিয়ে গেলে খরচ কম পড়বে। কলকাতার হয়ে গেলে খরচটা কিছুটা বেড়ে যাবে। বছরের প্রায় সময় ট্যুরিজম কোম্পানিগুলো নানা অফার দিয়ে থাকে। ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা থাকলে খেয়াল রাখুন ট্যুরিজম কোম্পানিগুলোর বিজ্ঞাপনে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close