ইউরোপ জুড়ে

হামলার পর অনেক মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে ফ্রান্সজুড়ে

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: বুধবার পূর্ব প্যারিসের একটি চরমপন্থী মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ফ্রান্সে চলমান জরুরি অবস্থার অধীনে দেশটির ১৬০টি মত মসজিদ বন্ধ করে দিচ্ছে সরকার।

ফ্রান্স এই প্রথম কোনো প্রার্থনালয়ের বিরুদ্ধে এ ধরনের ব্যবস্থা নিল। বর্ণবাদী দৃষ্টিভঙ্গী প্রসারের অভিযোগে এসব মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে ফ্রান্সের প্রধান ইমামরা।

ইউরোপের মধ্যে জার্মানির পরই ফ্রান্সে সবচেয়ে বেশি মুসলিম বাস করেন। দেশটিতে প্রায় ৫০ লাখ মুসলমান রয়েছে যা দেশটির মোট জনসংখ্যার ৭.৫ শতাংশ। ফ্রান্সে ২৬০০ মসজিদ রয়েছে বলে জানান আলাওউই।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্ড কাজেনুভ বুধবার সাংবাদিকদের জানান যে জরুরি অবস্থার অধীনে গত দুই সপ্তাহে তিনটি মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। জরুরি অবস্থা জারি হলে মৌলিক অধিকার সংকুচিত হয়ে পড়ে। অনেকেই আশঙ্কা করেছিলেন, ফ্রান্সের নজিরবিহীন জরুরি অবস্থার শিকার হবেন মুসলিম সম্প্রদায়।

ফ্রান্সের মসজিদের ইমাম নিয়োগ দেয়ার দায়িত্বপ্রাপ্ত হাসান আল আলাওউই বুধবার আলজাজিরাকে বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আমাদের জানিয়েছে যে যথাযথ লাইসেন্স না থাকায় ১০০ থেকে ১৬০টি মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হবে। এসব মসজিদ ঘৃণা ছড়ায় বলেও অভিযোগ তার।

কাজেনুভ জানান, পূর্ব প্যারিসে বন্ধ করে দেয়া চরমপন্থী ঐ মসজিদে জিহাদি কাগজপত্র জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। প্যারিসে গত ১৩ নভেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার পর ফরাসি নিরাপত্তা বাহিনী এখন পর্যন্ত ২২৩৫টি অভিযান পরিচালনা করেছে এবং ২৩২জনকে আটক করেছে। এ সময় ৩৩৪টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close