লন্ডন থেকে

বাংলাদেশ আলোর মিছিল নিয়ে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে: লন্ডনে প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ অন্ধকার থেকে বর্তমান সময়ে আলোর মিছিল নিয়ে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এই উন্নয়ন এখন আর কেউ থামিয়ে রাখতে পারবেনা। প্রবাসী বাংলাদেশী ও মুক্তিযুদ্ধাদের ত্যাগের কারনে এটা সম্ভব হয়েছে বলে জানান যুক্তরাজ্য সফররত বাংলাদেশ সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের করেন সেলিম রহমান। সংগঠনের সভাপতি আলহাজ্ব সাজ্জাদ মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মল্লিক শাকুর ওদুদ এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পীকার কাউন্সিলার আব্দুল মুকিত চুন্নু এমবিই।

আরো বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা আলহাজ্ব নূরুল হক লালা মিয়া, আব্দুল আলী রউফ, আলহাজ্ব গিয়াস মিয়া, তফাজ্জুল হোসেন, হাসনাত আহমদ চুনু, আশীক চৌধুরী, কাজী খালেদ, আরজু মিয়া এমবিই, আলহাজ্ব আব্দুল সাত্তার, এখলাছুর রহমান, এম ইকবাল হোসেন, মঞ্জুর আলী আফজাল, মোবারক আলী, ইলিয়াছ মিয়া, কাজী কবির, শিপন কোরেশ, শেখ মোফাজ্জল হোসেন তরাফ উদ্দিন, তাজ উদ্দিন, সিপন কুরেশী, আব্দুল হক জমির, এম এইচ তারা মিয়া, শামীম আহমদ, মো: আব্দুল বাছির কয়েছ, এলাইছ মিয়া মতিন, আযম খান, সোবা মিয়া, আলফাজুর রহমান জাকির, মুজিবুর রহমান মুজিব, শফিউল আলম বাবু, মো: আঙ্গুর আলী, শেখ ইস্তাব উদ্দিন, আব্দুল হালিম, আব্দুল হাই আজাদ, প্রমুখ।

প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান তার বক্তব্যে বলেন,  তিনি স্থানীয় উন্নয়ন কর্মকান্ডের কথা বলতে গিয়ে বলেন, কলকলি থেকে পাইলকাপন পর্যন্ত রাস্তার টেন্ডার হয়েছে। আগামী বছরের মধ্যে সম্পন্ন হবে। এছাড়া আগামী ফেব্রুয়ারী মাসে রানীগঞ্জ সেতুর ভিত্তির প্রস্তর স্থাপন হবে। তিনি এজন্য প্রবাসীদের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি সুনামগঞ্জ প্রবাসীদের দেশে গিয়ে বিনিয়োগের আহবান জানান। বিশেষ করে সুনামগঞ্জে বেসরকারী মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে প্রবাসীদের বিনিয়োগ করার পরামর্শ প্রদান করেন। তিনি বলেন, এক্ষেত্রে সরকার সার্বিক সহযোগিতা করবে।

তিনি বলেন, দাসত্বের বাংলাদেশ, পরাধীনতার বাংলাদেশ, সেখান থেকে আমরা বের হয়ে এসেছিল। বাংলাদেশ এখন বিশ্বে সম্মানের আসনে রয়েছে। আগামী তিন বছরের মধ্যে বাংলাদেশের প্রতিটি গ্রামে বিদ্যুত পৌছাবে। তিনি বলেন, অর্থনৈতিকভাবেও আমরা মোটামুটি স্বচ্ছল রয়েছি। কাউকে এখানে না খেয়ে মরতে হচ্ছে না।

তিনি আরো বলেন, এমন কোন ক্ষেত্র নেই যেখানে উন্নয়ন হচ্ছে না। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগের ক্ষেত্রে অভুতপূর্ব উন্নয়নে হচ্ছে। আগামীতেও বহু উন্নয়ন কর্মসূচি হাতে রয়েছে। তিনি প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা বাংলাদেশ নিয়ে গর্ব করে কথা বলতে পারেন। তিনি জানান, ২০১৮ সালের মধ্যে পদ্মা সেতুর কাজ সম্পন্ন হবে। ঢাকা- চট্রগ্রাম ৪ লেইন রাস্তার কাজ একেবারেই শেষ পর্যায়ে। আগামী অর্থ বছরে ঢাকা সিলেট ৪ লেইনের কাজ শুরু হবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close