অন্য পত্রিকা থেকে

বাংলা ভাষা শেখার স্কুলের যাত্রা শুরু

মোস্তফা ইমরান: মালয়েশিয়াপ্রবাসী বাংলাদেশি শিশুদের কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার যৌথ বিনিয়োগে যাত্রা শুরু করেছে লিটল টুইঙ্কেলস্ প্রি-স্কুল।

রাজধানী কুয়ালালামপুরের গ্যান্তিং ক্লাং সড়কের ডানা কোটায় বুধবার এই স্কুলের উদ্বোধন করেন মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশনের প্রথম সচিব এস কে শাহিন। উদ্বোধন শেষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এস কে শাহিন মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, শিশুরা যেন কোনো মতেই পড়াশোনাকে বোঝা মনে না করে সেদিকে স্কুল কর্তৃপক্ষকে মনোযোগী হতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্কুলের প্রধান নির্বাহী পরিচালক সিসিলিয়া শারমিনি। তিনি বলেন, অপেক্ষাকৃত কম খরচে মানসম্মত শিক্ষা মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্তদের কাছে পৌঁছে দিতে আমাদের এই উদ্যোগ। আমরা বিশ্বাস করি শিকড় মজবুত হলে গাছ বড় হতে কোনো সমস্যা হবে না। এই ধারণাকে সামনে রেখে থ্রি এম (Manage, Motivate, Mould) ধারণা নিয়ে বাচ্চাদের মাঝে আমরা কার্যকরী শিক্ষা উপহার দেওয়ার চেষ্টা করব। সিসিলিয়া শারমিনি সাবেক ব্যাংকার।

স্কুলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিরা স্কুলের অন্যতম পরিচালক বাংলাদেশি হাফিজুর রহমান বলেন, মালয়েশিয়ায় বসবাস করে বাংলাদেশি পরিবার একেবারে কম নয়। অনেকে আবার স্বল্প খরচে ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা করানোর জন্য মালয়েশিয়াকে প্রথম পছন্দ হিসেবে বেছে নিচ্ছেন। এখানে বিদেশিদের স্কুলের পড়াশোনার খরচ ও বেশি।

মূলত মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার ও তাদের ছেলেমেয়েদের কথা মাথায় রেখে আমরা এই প্রি-স্কুল প্রতিষ্ঠা করেছি। দুই ধাপে বিভক্ত স্কুলটিতে দুপুর ১২টা পর্যন্ত পড়ানো হবে এবং বিকেল ৫টা পর্যন্ত ঘরোয়া পরিবেশে তাদের যত্ন সহকারে রাখা হবে। এর মাধ্যমে দু-দেশের সাংস্কৃতিক একটা বন্ধনও তৈরি হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

হাফিজুর রহমান জানান, ইংলিশ মিডিয়াম এ স্কুলে বাংলাভাষা ও সংস্কৃতি শিক্ষা দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে একজন বাংলাদেশি শিক্ষিকা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশসহ যে কোনো দেশ থেকে মালয়েশিয়ায় এসে দুই থেকে ছয় বছরের বাচ্চাদের পড়াশোনা করাতে ইচ্ছুক অভিভাবকদের ভিসার ব্যাপারেও সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে। হাফিজুর রহমান ইউনিভার্স ব্রিলিয়ান্ট রিসোর্সেসের পরিচালক। তিনি আরও জানান, ভবিষ্যতে বাংলাদেশিদের জন্য পূর্ণাঙ্গ স্কুল প্রতিষ্ঠার চিন্তা তাদের রয়েছে।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মালয়েশিয়ান তরুণী ময়ূরী আলহেন্দ্রান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত বাংলাদেশিকে বিয়ে করা মালয়েশিয়ান তরুণী শাহিদা শাশা জানান, আমরা যারা বাংলাদেশি ছেলেদের বিয়ে করেছি তাদের জন্য এই প্রি-স্কুল শতভাগ উপযোগী। এর মাধ্যমে একই সঙ্গে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার ভাষা জানতে পারবে শিশুরা। এ ছাড়া কর্মজীবী মায়েরা তাদের বাচ্চাদের রাখার একটা নির্ভরযোগ্য স্থান খুঁজে পাবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close