অন্য পত্রিকা থেকে

বিজ্ঞান চর্চায় মুসলিমদের অবদান নেই

আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সার্বিক উন্নতির জন্য বিজ্ঞানের সঙ্গে আত্মিক সংযোগ তৈরির পরামর্শ দিলেন প্রবাদ প্রতিম মুসলিম বিজ্ঞানী পারভেজ আমির আলি হুডভয়৷ হায়দরাবাদ সাহিত্য উৎসব উপলক্ষে মৌলানা আজাদ উর্দু বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত এক আলোচনাসভায় বক্তৃতা দিচ্ছিলেন হুডভয়৷

বিজ্ঞানের জগতে মুসলিমদের উত্থান ও পতন শীর্ষক ওই আলোচনাসভায় তিনি বলেন, অতীতটা কিন্তু এমন ছিল না৷ গণিত, বিজ্ঞান, সাহিত্য, ভাষা, জ্যোতির্বিদ্যা, রসায়নে আরবীয়দের, পারসিকদের অবদান স্মরণীয়৷ ৫০০ থেকে ৭০০ বছর আগে মুসলিমরা জ্যোতির্বিদ্যা ও দর্শনে এমন অবদান রেখেছিলেন যাকে আজও কুর্নিশ জানায় গোটা দুনিয়া৷ আল হায়থাম ওরফে আল হাজেন লিখেছিলেন ‘দি বুক অফ অপটিকস’৷

মুসলিম বিজ্ঞানী পারভেজ আমির স্পষ্ট করে বলেন, শুধু ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের সব দেশেই মুসলিম সম্প্রদায় পিছিয়ে পড়ছে বিজ্ঞানের সঙ্গে সংযোগহীনতার কারণে৷ ধর্মীয় ভাবাবেগ ও আচারকে মুসলিমরা যতটা গুরুত্ব দিয়ে দেখেন তার ছিটেফোঁটাও সময় দেন না বিজ্ঞানচর্চায়৷ নেই কোনও আগ্রহও৷

ফলে দীর্ঘ ৫০০ বছর ধরে আধুনিক বিজ্ঞানচর্চায় মুসলিমদের কোনও অবদান নেই৷ উঠে আসেননি কোনও নাম করা মুসলিম বিজ্ঞানী যিনি মানব সভ্যতাকে ন্যূনতম উজ্জ্বল দিশা দেখাতে পেরেছেন৷

কিন্তু ইতিহাস ক্ষমা করেনি৷ মুসলিম বিজ্ঞানীদের এই অনুপস্থিতির মূল্য চোকাতে হচ্ছে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদেরই৷ মেধাহীনতা, ধর্মীয় গোঁড়ামি আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে ধরেছে৷ বিজ্ঞান গবেষণায় অনীহা ও অনাগ্রহ তৈরি হয়েছে৷ ধর্মগুরুদের পক্ষ থেকেও কোনও উৎসাহ দেওয়া হয়নি৷ দীর্ঘ পাঁচ শতাব্দী ধরে ইসলামের সঙ্গে বিজ্ঞানের দূরত্ব বেড়েই গিয়েছে৷

ফলে যুগে যুগে মুসলিমরা আধুনিক বিজ্ঞানের সুফল থেকে বঞ্চিত রয়ে গিয়েছেন৷ বিজ্ঞানমনস্কতা, মেধা ও শিক্ষার দৈন্য যুগে যুগে গ্রাস করেছে বেশিরভাগ মুসলিমকে৷ কিন্তু অন্য ধর্মে এই গোঁড়ামি থাকলেও ছবিটা এত করুণ ও ভয়াবহ নয়৷ বিশ্বের অন্য ধর্মগুলি যুগে যুগে নমনীয় হয়ে বিজ্ঞানকে আপন করে নিয়েছে এবং নতুন নতুন আবিষ্কারকে স্বীকৃতি দিয়েছে৷ ধর্মীয় বেড়াজালের ঘেরাটোপে মানুষকে আটকে রাখেনি৷

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close