লন্ডন থেকে

শত শত নন মুসলিমের উপস্থিতিতে ইস্ট লন্ডন মসজিদে ভিজিট মাই মস্ক ডে পালিত

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: বিভিন্ন সময় ইসলাম-বিদ্বেষী নানা অপপ্রচার নন-মুসলিম কমিউনিটিতে মুসলমানদের সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণার জন্ম দিয়েছে। এই নেতিবাচক ধারণা দূর করতে মুসলিম কাউন্সিল অব বৃটেনের (এমসিবি) উদ্যোগে এ বছর দ্বিতীয়বারের মতো দেশব্যাপী পালিত হলো ভিজিট মাই মস্ক ডে।

ত ৭ ফেব্রয়ারি রোববার শতশত নন-মুসলিম মসজিদের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। তারা দেখেন কীভাবে অজু পড়তে হয়, কীভাবে নামাজ পড়া হয়, ইমাম কীভাবে নামাজ পড়ান ইত্যাদি। গতবার এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়েছিলো ২০টি মসজিদ আর এবার অংশগ্রহণ করলো ৮০টি। এই কর্মসূচির আওতায় বৃটেনের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ইস্ট লন্ডন মস্ক এন্ড লন্ডন মুসলিম সেন্টারটি নন-মুসলিম পুরুষ ও মহিলাদের জন্য সারাদিন খুলে দেয়া হয়।

দিনব্যাপী ভিজিট মাই মস্ক ক্যাম্পেইনে নন-মুসলিমদের স্বাগত জানান মসজিদের মিডিয়া এন্ড কমিউনিকেশন অফিসার সালমান ফার্সি, পাবলিক রিলেশন্স অফিসার জুবের হোসেন, ট্যুর এন্ড ভিজিটর ফ্যাসিলিটেটর শারমিন বেগম, ইসলাম অ্যাওয়ারনেস প্রজেক্ট মহিলা গ্রপের লীডার আসমা খান ও ইসলাম অ্যাওয়ারনেস প্রজেক্ট পুরুষ গ্রপের লীডার আসলাম উদ্দিন। সারাদিনে ৩ শতাধিক নন-মুসলিমের সমাগম ঘটে।

সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ১৫টি গ্রপে নন মুসলিমদের মসজিদ ঘুরে দেখানো হয়। আগতরা ইসলাম, মুসলমান, মসজিদ, পর্দাপ্রথা ইত্যাদি নানা বিষয়ে ট্যুর গাইডদের কাছে জানতে চান। তাদের কাছে অত্যন্ত সুন্দর ও সাবলিলভাবে বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়। মসজিদ একটি প্রার্থণার স্থান, এটি সকলের জন্যই উন্মুক্ত। এখানে গোপনীয় কোনো কিছু হওয়ার প্রচারণা সম্পূর্ণ অমূলক– এমন একটি স্বচ্ছ ধারণা নিয়েই ফিরে যান তাঁরা।

এ সময় ইস্ট লন্ডন মসজিদের সাবেক চেয়ারম্যান ও ট্রাস্টি ড. মুহাম্মদ আব্দুল বারী বলেন, এটি এমসিবি’র একটি চমৎকার উদ্যোগ। এ ধরনের কর্মসূচি আরও বেশি করে পালন করা উচিত। মসজিদগুলোকে সকলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার পাশাপাশি নন-মুসলিমদের প্রতি আমাদের উদার মানসিকতা পোষণ করতে হবে। আর এভাবেই আমরা মুসলিম কমিউনিটি সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণাগুলো দুর করতে পারবো।

ইস্ট লন্ডন মসজিদের ইমাম ও খতীব শায়খ আব্দুল কাইয়ূম বলেন, ইসলাম ও মুসলমানদের সম্পর্কে যে ভুল বুঝাবুঝি আছে তা দূর করতে এই ক্যাম্পেইন একটি বলিষ্ট ভুমিকা পালন করবে।

তিনি বলেন, অপেন ডে উপলক্ষে সারাদিনই শতশত নারী পুরুষ অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে পরম আগ্রহে মসজিদদের কার্যক্রম ঘুরে দেখেছেন। তাঁরা মসজিদের কার্যক্রম দেখে এতটাই খুশি হয়েছেন যে, মুসলমানদের সম্পর্কে ভুলবুঝাবুঝি দূর করতে তারা নিজেরা কাজ করার তাগিদ অনুভব করছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close