গ্যালারী থেকে

আনুশকাই পরিণত করেছেন কোহলিকে

গ্যালারী থেকে ডেস্ক: আনুশকা শর্মা বেশ বিপদেই আছেন বলতে হবে। বিরাট কোহলি যখন ফর্ম হারিয়ে খাবি খাচ্ছিলেন, ভারতীয় সমর্থকদের অভিযোগ ছিল আনুশকাই নাকি এর জন্য দায়ী। এখন মোহালিতে সেই অতিমানবীয় ইনিংসটির পরও ছাড় পাচ্ছেন না বলিউড অভিনেত্রী।

এখন ভারতীয় সমর্থকেরা বলছেন, আনুশকার সঙ্গে বিচ্ছেদটাই নাকি শাপে বর হয়ে এসেছে কোহলির জন্য! সবাই যেন উঠেপড়ে লেগেছে আনুশকার পেছনে। এমন আচরণে সমর্থকদের ওপর দারুণ চটেছেন কোহলি। সাবেক প্রেমিকার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

এবার আনুশকার পক্ষে ব্যাট চালালেন সুনীল গাভাস্কারও। ভারতের এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই কিংবদন্তি বললেন, কোহলির আরও ভালো ক্রিকেটার হয়ে ওঠার পেছনে আনুশকার অবদান আছে। কোহলির মধ্যে আগে ছটফটে এক কিশোর ছিল। সেটি এখন ধীরে ধীরে পরিণত হয়ে দায়িত্ব নিতে শেখা পুরুষ হয়ে উঠছে। গাভাস্কার বলেছেন, কোহলিকে পরিণত করে তুলতে অনেক অবদান আছে আনুশকার।

ভক্তদের দাবি, আনুশকার সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়ার পর থেকেই কোহলি দারুণ ফর্মে ফিরে পেয়েছেন। আনুশকার মোহ কাটিয়ে ওঠায় কোহলির ধ্যান-জ্ঞান এখন কেবলই ক্রিকেট। অনেকে এমন কুৎসিত মন্তব্যও করেছেন, কোহলি নাকি ক্রিকেট বলটিতে আনুশকার চেহারা দেখছিলেন বলেই এমন মারকুটে মেজাজে ছিলেন!

ক্ষুব্ধ কোহলি পরে টুইট করেন, যারা আনুশকাকে নিয়ে এ রকম জঘন্য অপপ্রচারে নেমেছে তাদের লজ্জা থাকা উচিত। অকপটে জানান যে আনুশকার প্রভাব তার ক্যারিয়ারে সব সময়ই ইতিবাচক।

গাভাস্কারও নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বললেন, শুধু ক্রিকেটার নয়; মানুষ হিসেবেও কোহলির ওপর ইতিবাচক প্রভাব আছে আনুশকার। আনুশকার এমন সমালোচকদেরও এক হাত নিয়েছেন গাভাস্কার। তাঁদের বলেছেন, ঈর্ষাকাতর হতাশাবাদী।

গাভাস্কার বলেছেন, ‘আমি ঠিক নিশ্চিত নই যে আনুশকা-কোহলির ব্যক্তিগত সম্পর্ক এখন কী। কিন্তু আমি বলব যে আনুশকা চমৎকার একটি মেয়ে। আমার নিজস্ব পর্যবেক্ষণ হলো, কোহলি যখন ভারতের ব্যাটিংয়ের মূল ভরসা হয়ে উঠছিল, সেই সময় ও কোহলির মধ্যে একটা স্থিতি ভাব নিয়ে এসেছে। যেটা খুব জরুরি ছিল।’

কোহলির টুইট উদ্ধৃত করে গাভাস্কার বলেছেন, যারা এ রকম ছবি শেয়ারের প্রতিযোগিতায় নেমেছে তাদের জীবনে আসলে কোনো কাজ নেই, কোনো সাফল্য নেই। তাদের ভালোবাসার কোনো মানুষ নেই।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close