যুক্তরাজ্য জুড়ে

ভায়াগ্রার রাজধানী ব্রাডফোর্ড

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: বৃটেনের মিডিয়ায়ই ব্রাডফোর্ডকে বলা হচ্ছে ভায়াগ্রার রাজধানী। কারণ, বৃটেনে এ এলাকায়ই সব থেকে বেশি মানুষ ভায়াগ্রা সেবন করে। সেখানে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টিকারী এই সাড়া জাগানো ট্যাবলেটটির ব্যাপক চাহিদা। যেসব এলাকায় সব চেয়ে বেশি ভায়াগ্রা বিকিকিনি হয় তার তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে সরকারি পর্যায় থেকে।

এসব এলাকায় দুর্বল পুরুষরা যৌন উত্তেজনা সৃষ্টির জন্য হয়তো ভায়াগ্রা সেবন করেন, না হয় একই রকম অন্য কোন ওষুধ সেবন করেন। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভায়াগ্রা সেবন করেন ব্রাডফোর্ডের পুরুষরা।

সরকারি হিসেবে বলা হয়েছে, শুধু ২০১৫ সালে শুধু ইংল্যান্ডে ৩৫ লাখেরও বেশি এমন ওষুধের প্রেসক্রিপশন দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবসা হয়েছে ভায়াগ্রায়। ওই ডাটায় দেখা গেছে, একই ব্যক্তিকে বার বার এ ওষুধ সেবনের প্রেসক্রিপশন দেয়া হয়েছে। ব্রাডফোর্ড সিটি ক্লিনিক্যাল কমিশনিং গ্রুপের কাছ থেকে ৯৯৭৫ জন পুরুষ এমন প্রেসক্রিপশন নিয়েছেন।

এর ফলে দেখা যাচ্ছে, ওই শহর বা এলাকায় বসবাসকারী প্রতিজন পুরুষের মধ্যে যৌন জীবনে অক্ষম গড়ে ০.২৩ জন পুরুষ যৌন উত্তেজনা সৃষ্টিকারী ওষুধ নিয়েছেন। জাতীয় পর্যায়ে গড়ে প্রতিজন পুরুষে এ ওষুধ সেবনের হার ০.১৩। তবে বাডফোর্ডে এই হার দ্বিগুন। ভায়াগ্রা বা এ জাতীয় ওষুধ সেবনের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্লাকপুল। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে সাউথ লিঙ্কনশায়ার।

এছাড়া শীর্ষ দশটি শহরের মধ্যে অন্য যে নামগুলো এসেছে তা হলো নর্থ নরফোক, নর্দামবারল্যান্ড, বার্নসলে, লিঙ্কনশায়ার ইস্ট, ডারহাম ডালস, সেইন্ট হেলেনস ও ইস্টার্ন চেশায়ার। তবে দক্ষিণের পুরুষদের মধ্যে কমই এমন ওষুধের জন্য চিকিৎসকের কাছে যান। এ ওষুধ সবচেয়ে কম প্রেসক্রাইব করা হয়েছে ইস্ট সারেতে। সেখানে ৮৮১৭১ জন পুরুষের মধ্যে মাত্র ৬৮০০ পুরুষকে এ ওষুধ দেয়া হয়েছে। প্রায় কাছাকাছি অবস্থানে রয়েছে রিচমন্ড ও কিংস্টোন।

এছাড়া যেসব এলাকায় খুব কম এ ওষুধ প্রেসক্রাইব করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে নটিংহাম ওয়েস্ট, রেডব্রিজ, ব্রুমলে, হিলিংডন, উইন্ডসোর ও সাউথ রিডিং। জাতীয় পর্যায়ে মোট ৩৫৬৫৪৬১ টি প্রেসক্রিটশন দেয়া হয়েছে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টিকারী ওষুধ সেবনের। এতে যে ব্যবসা হয়েছে তার অর্থমূল্য ৪ কোটি ৭০ লাখ পাউন্ড।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close