Americaযুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

যুক্তরাষ্ট্রে ছাত্র-শিক্ষিকার অনৈতিক সম্পর্ক

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: মাত্র ১৩ বছর বয়সী এক ছাত্রের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন ২৪ বছর বয়সী শিক্ষিকা আলেকজান্দ্রিয়া ভেরা। বেশ কয়েক মাস চলেছে তাদের এ সম্পর্ক। এর এক পর্যায়ে ওই শিক্ষিকা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। ঘটনা ফাঁস হলে তিনি পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন।

তবে বুধবার বিকেলে তিনি পুলিশে ধরা দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে অব্যাহতভাবে শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আনা হয়েছে। আদালত তাকে এক লাখ ডলারের বিনিময়ে জামিন দিয়েছে।

এ ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের হিউজটনে। সেখানকার স্টোভাল মিডল স্কুলের এই শিক্ষিকা তার ছাত্রকে দেখে তার প্রেমে পড়ে যান। এরপর চলে অবাধ শারীরিক সম্পর্ক। এখন ওই ছাত্রের বয়স ১৪ বছর। গত বছর একদিন সে তার ক্লাস বাদ দিয়ে ইনস্টাগ্রামে তার শিক্ষিকার ফোন নম্বর চেয়ে একটি মেসেজ পাঠায়।

তাতে সে বলে, তারা কি একান্তে কিছু সময় কাটাতে পারবে কিনা। ওদিকে শিক্ষিকা ভেরার রয়েছে ৪ বছর বয়সী একটি কন্যা।

তিনি এটর্নি অফিসকে বলেছেন, পরের দিনই তিনি গাড়ি চালিয়ে চলে যান ওই ছাত্রের বাসায়। তখন তার পিতামাতা বাসায় ছিলেন না। সেদিনই প্রথমবার তাদের মধ্যে শারীরিক মিলন ঘটে। পুরো বছরই তাদের এই অবাধ মেলামেশা চলতে থাকে। প্রায় প্রতিদিনই তারা একে অন্যের সংস্পর্শ ছাড়া থাকতে পারতো না।

এক শিক্ষার্থী বলেছে, ক্লাসের মাঝেই অভিযুক্ত ছাত্র তার শিক্ষিকাকে জড়িয়ে ধরতো। এটা সবাই দেখেছে। তারপরই তারা অসংলগ্ন কথাবার্তা চালিয়ে যেত। এক পর্যায়ে ভেরা সাক্ষাত করেন ওই ছাত্রের পিতামাতার সঙ্গে।

তাদেরকে বলেন যে, তিনি তাদের ছেলের গার্লফ্রেন্ড। জানুয়ারিতে ভেরা জানান যে, তিনি অন্তঃসত্ত্বা। এর জন্য দায়ী ওই ছাত্র। এ খবরে তাকে এপ্রিলে বাধ্যতামুলক ছুটিতে পাঠানো হয়।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close