রাধুনী

রসে ভরা রসগোল্লার রেসিপি

রাধুনী ডেস্ক: আমরা বাঙ্গালীরা বরাবরি মিষ্টি পাগল হিসেবেই পরিচিত। যেকোন সুখবর বা উৎসবের আয়োজনে মিষ্টি আমাদের থাকা চাই! আমরা সবাই সাধারনত দোকান থেকেই মিষ্টি কিনে খাই, তবে নিজের হাতে বানানো রসগোল্লার মজাই আলাদা। তাই আজকে শেয়ার করছি আপনাদের সাথে বাঙ্গালীর প্রিয় রসে ভরা রসগোল্লার রেসিপি।

উপকরণ:

২ লিটার দুধ

ভিনেগার / লেবুর রস

২ চা–চামচ ময়দা

১/৬ চা–চামচ বেকিং পাউডার

৩ কাপ চিনি

৫ কাপ পানি

২/৩টা এলাচের

প্রথমে ছানা তৈরি করে নিতে হবে, একটি হাড়িতে দুধ জ্বাল দিতে থাকুন।

মুখ খুলে ২/৩টা এলাচ দুধে দিয়ে দিন।

দুধ ফুটতে শুরু করলে ১/২ চা-চামচ সিরকা ঢেলে নাড়াতে থাকুন।

এভাবে কয়েকবার সিরকা ঢালার পর পানি এবং ছানা পুরোপুরি আলাদা হয়ে যাবে তারপর

ছানাটি ছাকনি দিয়ে ছেকে আলাদা করে, ঠান্ডা পানিতে ভাল করে

ধুয়ে নিন। ৮-১০ ঘন্টা একটা পাতলা কাপড়ে পেঁচিয়ে বাতাসে ঝুলিয়ে রাখতে হবে।

এতে ভেতরের পানিটা বেরিয়ে আসবে।

ছানা তৈরি শেষে বেকিং পাউডার, ময়দা ও ছানা একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে সফট ডোয়ের মতো করে নিন। এবার এই ডো থেকে সমান ২৫ ভাগ করে মিষ্টির আকার দিন। যখন রসগোল্লা আকার দিছেন তখন চুলায় চিনি ও পানি একসঙ্গে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে সিরা করে নিন। মৃদু আঁচে রাখুন। রসগোল্লা সিরায় দিয়ে ১৫ মিনিট ঢেকে জ্বাল দিয়ে ১/৪ কাপ হাল্কা গরম পানি দিন। আবার ১০ মিনিট ঢেকে জ্বাল দিয়ে ১/৪ কাপ হাল্কা গরম পানি দিন। এবার ১০ মিনিট জ্বাল দিন । আমরা সব মিলিয়ে ৩৫ মিনিট রসগোল্লা জ্বাল দিবো। ৩০ মিনিট হলে ১ টি মিষ্টি উঠিয়ে মাঝে কেটে চেক করে নিন যে ভিতরে ঠিক মত হয়েছে কিনা। ভিতরে কাঁচা থাকলে ঠাণ্ডা হলে মিষ্টি শক্ত হয়ে যায়। মিষ্টি ঠিক মত হলে মিষ্টির সব যায়গায় একই রং থাকবে। আর কাঁচা অবস্থায় মাঝে সাদা থাকে। চুলা বন্ধ করে দিন। ঠাণ্ডা হলে পরিবারের কাছে পরিবেশন করুণ। রসগোল্লার রেসিপি থেকে সাহায্য নিয়ে তৈরি করে ফেলুন নরম নরম রসগোল্লা এবং চমকে দিন সবাইকে!

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close