দুনিয়া জুড়ে

সৌদি আরবে আপহরণ করে মুক্তিপণ বাংলাদেশে: আটক ৩

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সৌদি আরবের রিয়াদে বাংলাদেশি এক গাড়িচালককে অপহরণ করেছে অপর এক বাংলাদেশি। সৌদিতে তাঁকে অপহরণ করে বাংলাদেশে পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের সময় র্যাবের হাতে আটক হয় দুই নারীসহ তিনজন। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নারায়ণগঞ্জের আদমজীনগর র্যাব-১১ প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে র্যাবের অধিনায়ক কামরুল হাসান জানান, গত ২ জুন সৌদি আরবের রিয়াদের রওদা এলাকা থেকে প্রবাসী গাড়িচালক শফিকুল ইসলাম খোকনকে অপহরণ করে বাংলাদেশেরই অপর প্রবাসী মঞ্জুর মোল্লা ও তার সহকর্মীরা।

র্যাবের এ কর্মকর্তা আরো জানান, মঞ্জুর মোল্লা আন্তর্জাতিক অপহরণ চক্রের সদস্য। অপহরণের পরের দিন শফিকুলের স্ত্রী জহুরা বেগমের কাছে মুঠোফোনে ভিডিওকল করে তাঁর স্বামীকে যে নির্যাতন করা হচ্ছে, তা দেখানো হয়। পরে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে মঞ্জুর মোল্লা। আবাসিক হোটেলে রাখা শফিকুলকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় নির্যাতনের দৃশ্য ভিডিও ও ইমুতে পাঠানো হয় পরিবারের কাছে। টাকা দেওয়ার জন্য গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলদী এলাকার দুটি বিকাশ নম্বরও দেওয়া হয়।

কামরুল জানান, বিষয়টি অপহৃত শফিকুলের বড় ভাই তোফাজ্জল হোসেন র্যাব-১১-এর সদর দপ্তরে জানান। পরে র্যাব পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে সৌদি পুলিশকে জানায়। এ ঘটনায় রিয়াদের রওদা থানায় মামলা করা হয়।

এদিকে মুক্তিপণের টাকা দেওয়ার জন্য যে মোবাইল নম্বর দেওয়া হয়েছিল, তা ট্র্যাকিং করে বুধবার সন্ধ্যায় গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলদী এলাকা থেকে অপহরণ চক্রের হোতা মঞ্জুর মোল্লার স্ত্রী রুবী বেগম, শ্যালক সাইফুল ইসলাম ও শ্যালিকা রাহিমাকে ২০ লাখ টাকাসহ আটক করা হয়। এর আগে বুধবার বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় সৌদি পুলিশ রিয়াদ থেকে অপহৃত শফিকুল ইসলামকে উদ্ধার ও অপহরণকারী চক্রের সদস্য জাকির হোসেন নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close