দুনিয়া জুড়ে

যে কারনে সহসাই দেশে ফিরছেন না জাকির নায়েক

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: বহুল আলোচিত ও বিশ্বখ্যাত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েক আগামীকাল মঙ্গলবার মুম্বাইতে সংবাদ সম্মেলন করবেন বলেই নির্ধারিত ছিলো সবকিছু।

বর্তমানে সৌদি আরবে অবস্থানরত জাকির নায়েক ভারতে আসার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করে ফেলেছেন বলে আজ সোমবার সকাল পর্যন্ত খবর এসেছিলো। তার ভারতে আসার ব্যাপারে মুম্বাই বিমানবন্দরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করাও হয়েছিলো।

তবে সৌদি আরব থেকে মুম্বাই ফেরার টিকিট আকস্মিকভাবে আজ সোমবার বাতিল করেছেন জাকির নায়েক। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমস তার ফিরতি টিকিট বাতিলের খবরটি নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে হিন্দুস্থান টাইমস-এর খবরে বলা হয়েছে, গুলশান হামলার দুই জঙ্গি জাকির নায়েকের দ্বারা উদ্ধুব্ধ, এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ও ভারতের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের মুখে ভারতে ফেরার টিকিট বাতিল করেছেন তিনি।

হিন্দুস্থান টাইমস বলছে, সম্ভবত সৌদি আরব থেকেই একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করবেন তিনি।

জাকির নায়েকের দেশে না ফেরার সম্ভাব্য কারন

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, খুব সহসাই আর ভারতে ফিরছেনা ড জাকির নায়েক । এর কারন হিসেবে বিভিন্ন সংবাদপত্রে ইতমধ্যে উঠে এসেছে সম্ভাব্য কারন।

এর আগে নিরাপত্তার খাতিরে ভারতীয় পুলিশ তার মুম্বাই আসার বিষয়টি গোপন রেখেছে উল্লেখ করে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, ভারতের গোয়েন্দারা ডা. জাকির নায়েকের প্রতিটি পদক্ষেপ সুক্ষ্মভাবে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। তার ভারতে আসা নিয়ে নিরাপত্তা এবং যেকোনো ধরনের অনাকাংক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে যথেষ্ট পরিমাণে পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে। ভারত পৌঁছানোর পর গোয়েন্দা থেকে তাকে তলব করা হতে পারে বলেও জানায় দৈনিকটি।

অন্যদিকে, জাকির নায়েককে নিয়ে সাম্প্রতিক বিভিন্ন বিতর্ককে কেন্দ্র করে এবার আগুনে ঘি ঢেলেছেন পতঞ্জলী আয়ুর্বেদের প্রতিষ্ঠাতা ও ইয়োগা গুরু বাবা রামদেব। জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও দাবি জানিয়েছেন রামদেব।

সোমবার এএনআইকে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি জাকির নায়েককে উদ্দেশ্য করে বলেন ”কিছু লোক ধর্মের নামে অধর্মকে ছড়িয়ে দিতে চাইছেন। তিনি অনতিবিলম্বে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকারের দৃস্টি আকর্ষণ করেন।

অন্যদিকে, ভারতের ইসলামী বক্তা ও গবেষক জাকির নায়েককে আটকের দাবি জানিয়েছে শিবসেনা। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে প্রকাশ, জাকির নায়েককে আটকের দাবি জানিয়েছে শিবসেনাও । শিবসেনার এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মোদি সরকারের উচিত জাকির নায়েকের পিস টিভির সব কলকব্জা খুলে নষ্ট করে দেওয়া।

জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মুহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারের সঙ্গে জাকির নায়েককে তুলনা করে বলা হয়েছে, মাসুদ আজহারের মত ধর্মান্ধরা যেভাবে প্রকাশ্যে বিষ উগড়ে দেয়, জাকির নায়েকও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সেই কাজটিই করছেন।

শিবসেনার তরফ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য এই কাজকে তিনি শান্তি স্থাপনের নাম দিয়েছেন মাত্র। দীর্ঘদিন ধরে দেশদ্রোহীদের পুষছেন। শান্তিতে তার কতটা বিশ্বাস তা বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টের ঘটনা থেকেই আঁচ করা সম্ভব। জাকির নায়েককে রুখতে সরকারের ভূমিকারও তীব্র সমালোচনা করেছে শিবসেনা।

ওই বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, মোদি সরকারের উচিত জাকির নায়েকের পিস টিভির সব কলকব্জা খুলে নষ্ট করে দেওয়া। সরকার চাইলে যে কোনো সময় কালো টাকা ফিরিয়ে আনতে পারে। অবিলম্বে জাকির নায়েকের আর্থিক জোগানের পথ বন্ধ করাই সরকারের মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত। না হলে ধর্মের নামে জাকির নায়েকের মারপ্যাঁচে গোটা দেশ ধরাশায়ী হবে।

জাকির নায়েককে রুখতে দেশে পা রাখার সঙ্গে সঙ্গেই তাকে আটক করতে হবে। হজ সেরে সোমবার বিকেলে সৌদি আরব থেকে ভারতে পৌঁছার কথা ছিল জাকির নায়েকের। কিন্তু তিনি এখনই দেশে ফিরছেন না।

ইতোমধ্যেই তার ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের সামনে কড়া নিরাপত্তা বসানো হয়েছে। জাকির নায়েক দেশে ফিরলেই তার বিরুদ্ধে মিছিলের ডাক দিয়েছে বেশ কিছু সংস্থা।

সম্প্রতি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টে ভয়াবহ হামলার সঙ্গে জড়িত দুই জঙ্গি টুইটারে জাকির নায়েককে অনুসরণ করতো। গণমাধ্যমের খবরে এমন তথ্য প্রকাশের পর থেকেই জাকির নায়েক এবং তার পিস টিভির ওপর নজরদারি বাড়ানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতেই ভারত এবং বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে জাকির নায়েকের বক্তব্য খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে নিজের বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জাকির নায়েক। তার দাবি, বাংলাদেশের ৯০ ভাগ মানুষই তাকে চেনে। আর জঙ্গিরা তাকে চিনতেই পারে বা তাকে অনুসরণ করতেই পারে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, তার কথায় জঙ্গিরা উৎসাহিত হচ্ছে। কারণ তিনি কাউকে জঙ্গিবাদের দিকে উৎসাহিত করছেন না।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close