শিক্ষাঙ্গন

কিভাবে ইংরেজিতে সাবলীলভাবে কথা বলবেন

শিক্ষাঙ্গন ডেস্ক: যুগটাই এখন এমন, ইংরেজি ছাড়া কোন কিছু চিন্তাও করা যায় না। কি চাকরি, কি পড়াশোনা সব জায়গায়ই ইংরেজিতে দক্ষতা এখন প্রাথমিক চাহিদা। দক্ষতা বিভিন্ন রকমের হতে পারে। তাদের ভিতরে ইংরেজিতে বলার দক্ষতা এখন সবচেয়ে বেশি চাহিদাসম্পন্ন দক্ষতা।

বিভিন্ন বহুজাতিক কোম্পানিতে ভালো চাকরি পেতে গেলে ভালো ইংরেজি বলতে পারার কোন বিকল্প নেই। এমনও দেখা গেছে, সব রকম যোগ্যতা থাকা স্বত্বেও শুধুমাত্র ইংরেজিতে সাবলীলভাবে কথা না বলতে পারার জন্য অনেকেরই বহুজাতিক কোম্পানিতে চাকরি হয় না। সময় এসেছে এখন সামনে এগিয়ে যাওয়ার, নিজের দক্ষতা বাড়ানোর।

কিভাবে ইংরেজিতে সাবলীলভাবে কথা বলবেন? নিচের টিপসগুলো অনুসরণ করুন:

ভয় দূর করুন: ইংরেজিতে আপনি হয়তো কথা বলতে চান। কিন্তু আপনার ভয় লাগে। মনে হয়, আপনি ভুলভাল বলে বসবেন, আটকে যাবেন। আশেপাশের সবাই আপনাকে নিয়ে হাসাহাসি করবে। কে হাসলো বা কি করলো, ওইসব ভুলে যান। আপনি যদি শুরুই না করেন, আপনি কখনোই বুঝতে পারবেন না আপনার কোথায় ভুল হচ্ছে, কোন জায়গায় আপনাকে উন্নতি করতে হবে। কাজেই অহেতুক ভয় অথবা লজ্জ্বা দূর করুন।

ইংরেজিতে ভাবতে শিখুন: আমরা যখন কথা বলি, আমাদের মাথার ভিতরে আগে কথাগুলো সাজাই। তারপরেই বলা শুরু করি। এখন আপনি যদি ইংরেজি বলতে গিয়ে বাংলাতেই কথা সাজানো শুরু করেন অথবা ভাবা শুরু করেন, আপনি ভালোভাবে ইংরেজিতে কথা বলতে পারবেন না। কাজেই কথা শুরু করার আগে ইংরেজিতে চিন্তা করতে শিখুন। ভাবতে শিখুন। ইংরেজিতেই কথা সাজাতে শিখুন আপনার মস্তিষ্কে।

শব্দভাণ্ডার বাড়ান: এটা একটা খুবই সাধারণ সমস্যা, কথা বলতে গিয়ে উপযুক্ত শব্দ খুঁজে না পাওয়া। এই সমস্যার সমাধান একটাই। সেটা হচ্ছে ইংরেজিতে Vocabulary বাড়ানো। প্রতিদিনই চেষ্টা করুন নতুন নতুন কিছু শব্দ শিখতে। সহজ শব্দগুলোই শিখুন, যেগুলো আপনি কথা বলার সময় ব্যবহার করতে পারবেন।

মিডিয়াকে কাজে লাগান: ইংরেজিতে কথা বলার ক্ষেত্রে আপনি বিভিন্ন মিডিয়া অথবা মাধ্যমের সাহায্য নিতে পারেন। ইংরেজি বই, ইংরেজি পত্রিকা পড়ুন। টেলিভিশনের ইংরেজি সংবাদ, বিভিন্ন প্রোগ্রাম দেখুন। ইংরেজি মুভি দেখুন। সম্ভব হলে Subtitle সহ দেখুন। এতে আপনার শেখাটা অনেক তাড়াতাড়ি হবে। নিজের Voice রেকর্ড করে শুনুন। এতে আপনার Confidence বাড়বে, নিজের ভুলগুলোও বুঝতে পারবেন।

সমমনা বন্ধু খুঁজে নিন: এমন কিছু বন্ধু খুঁজে বের করুন, যারা আপনারই মতো ইংরেজিতে কথা বলা শিখতে চান। তাদের সাথে প্রতিদিন একবার হলেও বসে ইংরেজিতে কথা বলার চর্চা করুন। সেটা এক ঘণ্টার জন্য হলেও। এভাবে ৫/৬ জন মিলে প্রতিদিন ইংরেজিতে কথা বলতে থাকলে আপনি নিজেও বুঝতে পারবেন না যে কত দ্রুত আপনি ইংরেজিতে দক্ষভাবে কথা বলতে শিখে গেছেন।

আরও কিছু টিপস

ক. অনেকে মনে করে থাকেন ইংরেজি খবরের কাগজ পড়লে ইংরেজি শেখা যায়। এটি ভুল ধারণা। কারণ খবরের কাগজের সাথে তিন-চার খানা ডিকশনারি নিয়ে বসতে হয়। যেকোন কিছুই শিখবার সহজ উপায় হলো বিনোদনের মাধ্যমে শেখা।

খ. গ্রামার বই পড়ে আপনি ইংরেজি ভাষার শুদ্ধ প্রয়োগ শিখতে পারবেন। এটা জরুরি বিষয়। তবে আজকাল যেসব গ্রামার বই বাজারে পাওয়া যায়, সেগুলোতে সৃজনশীলতার মাখামাখি। ভয়েস, ন্যারেশন, সেন্টেনস স্ট্রাকচার এসবের বালাই নেই। শুধু উপরের অংশটি পড়ে নিচের প্রশ্নের উত্তর দাও। এজন্যই আজকালকার ইংরেজি শুনলে হাসি পায়। পুরনো বই এর দোকানে গিয়ে খুঁজে দেখুন আশির দশকের কোনো গ্রামার বই পান কিনা। কাজে লাগবে।

গ. ইংলিশ মুভি দেখা হলো সবচেয়ে সহজ উপায় ভালো ইংরেজি বলবার জন্য। যারা একটু কাঁচা, তারা সাবটাইটেলসহ দেখবেন। এক্ষেত্রে মুভি সিলেকশানটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আমি কয়েকটি মুভির নাম এখানে উল্লেখ করছি পারলে সংগ্রহ করে দেখা শুরু করে দিন। ‘নটিং হিল’, ‘শার্লক হোমস টিভি সিরিয়াল কালেকশান’ এদুটির কথাই এখন বলছি, কারণ দুটি মুভিতেই ব্রিটিশ ইংরেজি ভাষার ব্যাকরণিক ভিত্তিতে ডায়ালগ রচিত।

ঘ. অনেকে ভাবতে পারেন ব্রিটিশ ইংলিশ তো চলে না! ভাষাটি আগে সহজভাবে শিখে নেন! তারপর ইউএস চলতি ভাষার দিকে নজর দেন। না হলে, বলতে গিয়ে গুবলেট হয়ে যাবে। ভালো ইংরেজি জানা মানুষের সঙ্গে কথা বলতে গেলে মুচকি হাসির খোরাকে পরিণত হবেন, না হলে! ‘দ্যা পাইরেটস অব দ্যা ক্যারিবিয়ান’ মুভির সিকুয়্যালগুলো দেখুন। বিশেষ করে ফলো করুন ক্যাপটেন জ্যাক স্প্যারোর ডায়ালগ। দেখবেন কিভাবে তিনি ছোট ছোট শব্দের মাধ্যমে অনেক বড় অভিব্যক্তি প্রকাশ করছেন। মনে রাখবেন, কথা বলবার সময় আপনার অভিব্যক্তি আপনার শব্দ ভাণ্ডারের অভাবকে কিছুটা হলেও ঢেকে দেবে।

ঙ. ইউএস ইংলিশ শিখবার জন্য ‘জেফ ডানাম’ লিখে ইউটিউবে সার্চ দিন। দেখুন শুনুন। অনেক কাজে দেবে। জেফ হচ্ছেন পৃথিবীর কয়েক জনের মধ্যে প্রথম সারির একজন স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান এবং পৃথিবীর সেরা ভেন্ট্রোকুইলস্ট। উনার শো মানুষ হাজার ডলারে টিকিট কেটে দেখে থাকেন উচ্চমার্গীয় বিনোদনের জন্য। আপনারও ভালো লাগবে। তবে ইংরেজি ভাষাটা কিছুটা ব্রিটিশ ধাচে শিখে নিতে হবে আগে। তাহলেই আপনি ইউএস ধাচের ইংরেজি অ্যাকসেন্টের সাথে তাল মিলিয়ে লিসনিং এবং লার্নিং টা খুব উপভোগ্যভাবে চালিয়ে নিতে পারবেন।

নিজের ইচ্ছাশক্তিকে কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যান। আপনিই জয়ী হবেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close