অন্য পত্রিকা থেকে

হজে যেসব স্বাস্থ্যঝুঁকি হতে পারে

প্রত্যেক বিত্তবান ও শারীরিকভাবে সক্ষম মুসলমানের জন্য জীবনে একবার হজ করা ফরজ। হজে যেহেতু প্রায় ২০ লাখ লোকের ধর্মীয় সমাবেশ, তাই এতে বিভিন্ন সংক্রমণ রোগের ঝুঁকি বেশি।

এছাড়া সৌদি আরবের পরিবেশ, তাপমাত্রাগত কারণে হাজিগণ নানাবিধ স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে পারেন। হজের স্বাস্থ্যঝুঁকি প্রতিরোধে তাই আগাম প্রস্তুতির পাশাপাশি চাই সচেতনতা।

হজে স্বাস্থ্যঝুঁকি যা হতে পারে:

১. মেনিনগোকক্কাস মেনিনজাইটিস, ইবোলা, সার্স, ফ্লু ইত্যাদি সংক্রমণ রোগ দিয়ে আক্রান্ত হতে পারেন।

২. হজের সময় অতিরিক্ত হাঁটাহাটির কারণে পায়ে ব্যথা, ফোলা ও ফোসকা পড়তে পারে।

৩. প্রচণ্ড গরমের জন্য হিটস্ট্রোক হতে পারে।

৪. পানিশূন্যতা থেকে মাথাব্যথা, মাথা ঘোরানো, অবসাদ ও ক্লান্তি ভাব হতে পারে।

৫. ধুলাবালির জন্য হাঁচি, কাশি, হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট হতে পারে।

৬. ভ্রমণজনিত কারণে বমি বমি ভাব বা বমি হওয়ার সমস্যা হতে পারে।

৭. অনিয়ন্ত্রিত ও বেশি করে চর্বিজাতীয় খাবার এবং সুষম খাবারের অভাবে এসিডিটি, পেটে ব্যথা, ডায়রিয়া হতে পারে।

৮. অনিদ্রাজনিত স্বাস্থ্য সমস্যা হতে পারে।

৯. ডায়াবেটিস রোগীদের অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস ও ওষুধ গ্রহণ বিভিন্ন স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়াতে পারে।

১০. উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস ও ওষুধ গ্রহণ বিভিন্ন স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়াতে পারে।

স্বাস্থ্যঝুঁকি প্রতিরোধে যা করবেন

১. হজে রওনা হওয়ার আগে প্রয়োজনীয় ওষুধ গুছিয়ে নিন। সঙ্গে নিন প্রেসক্রিপশন। চশমা ব্যবহারকারীদের জন্য অতিরিক্ত একটি চশমা নিতে ভুলবেন না।

২. সংক্রমণ রোগ প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহার করুন।

৩. হজের আগেই হাঁটার অভ্যাস করুন। এতে পা ব্যথা কম হবে। পায়ের যত্ন নিন।

৪. সূর্যের ক্ষতিকর প্রভাব হতে বাঁচতে সান ব্লক, ক্রিম ব্যবহার করুন।

৫. যতটা সম্ভব ছায়ায় থাকুন। রোদে গেলে ছাতা ব্যবহার করুন।

৬. বেশি ভিড় এলাকা এড়িয়ে চলুন।

৭. বেশি করে বিশুদ্ধ পানি ও পানীয় খাবার গ্রহণ করুন।

৮. অসুস্থ ব্যক্তি হতে দূরে থাকুন এবং ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নভাবে থাকুন।

৯ . উট, দুম্বা, ঘোড়া ইত্যাদি প্রাণী স্পর্শ না করলেই ভালো।

১০. উটের কাঁচা দুধ খাওয়া এড়িয়ে যান।

১১. সুস্থভাবে হজ পালনে চাই পর্যাপ্ত ঘুম, বিশ্রাম ও সুষম খাবার।

১২. চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী জীবনরক্ষাকারী ওষুধ নিন।

লেখক: সহকারী অধ্যাপক, গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ, সাভার, ঢাকা।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close