যুক্তরাজ্য জুড়ে

বৃটেনের চাকরি বাজারে ব্রেক্সিটের প্রভাব পড়েছে

শীর্ষবিন্দু ডেস্ক: ব্রেক্সিট গণভোটের প্রভাব পড়েছে বৃটেনের চাকরি বাজারে। নতুন করে কর্মকর্তা, কর্মচারী নিয়োগে অধিক সতর্কতা অবলম্বন করছেন নিয়োগকারীরা।

একই সঙ্গে তাদের অধীনস্ত কর্মচারীদের প্রশিক্ষণে কম বিনিয়োগ করছেন। মানবসম্পদ বিষয়ক পেশাদার ও নিয়োগ বিষয়ক প্রতিষ্ঠান আদেক্কো গ্রুপ ইউকে অ্যান্ড আয়ারল্যান্ডের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন সিআইপিডি প্রকাশিত এক জরিপে এমনটাই বেরিয়ে এসেছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। সোমবার প্রকাশিত হয় এ জরিপের ফল।

তাতে দেখা যায়, আগামী তিন মাস কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়োগের প্রবণতা কমেছে। ব্রেক্সিট গণভোটের আগে নতুন স্টাফ নিয়োগের প্রবণতা ছিল শতকরা ৪০ ভাগ। কিন্তু আগামী তিন মাসে সেই প্রবণতা কমে দাঁড়িয়েছে শতকরা ৩৬ ভাগ।

ব্রেক্সিট ও তার প্রেক্ষিতে পাউন্ডের দরপতনের কারণে কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য প্রতি ৫ জন নিয়োগকারীর মধ্যে একজন বিনিয়োগ কমিয়ে দিতে চেয়েছেন।

তারা মনে করছেন, পাউন্ডের দরপতনের ফলে তাদের আমদানি খরচ বৃদ্ধি পাবে। তবে এসব খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে শতকরা মাত্র ৭ ভাগ নিয়োগকারীর। এসব কথা বলা হয়েছে ওই জরিপে। সিআইপিডির ভারপ্রাপ্ত অর্থনীতি বিষয়ক প্রধান ইয়ান বৃঙ্কলে বলেছেন, ব্রেক্সিট পরবর্তী অব্যবহিত পর পরই অনেক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান স্বাভাবিকভাবে তাদের কর্মকান্ড পরিচালনা করছে। সার্বিকভাবে নিয়োগের মানসিকতা ইতিবাচক।

কিন্তু কিছু প্রতিষ্ঠানে, বিশেষ করে বেসরকারি খাত অর্থনৈতিক আঘাত মোকাবিলায় প্রস্তুতি নিচ্ছে। অনেক নিয়োগকারী বলেছেন, ব্রেক্সিটের ফলে অভিবাসী কর্মীদের কি বৃটেন ছাড়তে হবে কিনা তা এত তাড়াতাড়িই বলা যাবে না।

তবে তাদের প্রতি ৫ জনের একজন আগামী ১২ মাসের মধ্যে বৃটেন ছাড়ার কথা বিবেচনা করছেন।

বেশির ভাগ অর্থনীতিবিদ মনে করেন, ধীর গতিতে প্রবৃদ্ধি অর্জনের ফলে বৃটেন আবার একটি অর্থনৈতিক মন্দার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে বৃটেনের ভবিষ্যত বাণিজ্যিক সম্পর্ক কেমন হবে এ বিষয়টি এখনও অনিশ্চিত।

এরই মধ্যে এ মাসের শুরুতে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড তার সুদের হার কর্তন করেছে। এ ছাড়া অর্থনীতিতে ব্রেক্সিটের আঘাত মোকাবিলায় আরও পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close