গ্যালারী থেকে

বোল্ট স্প্রিন্টার নন ম্যারাথনবিদ: সাময়িক বিছানা সঙ্গী রিও স্বর্ণ জয়ী জেডি ডুয়ার্টের অভিযোগ

গ্যালারী থেকে ডেস্ক: রিও কন্যা জেডি ডুয়ার্টের সাথে তার রাত কাটানোর আলোচনাটা ফুরাচ্ছেই না। উসাইন বোল্ট বিশ্ব ইতিহাসের দ্রুততম স্প্রিন্টার। এখন ডুয়ার্টে বর্ণনা দিচ্ছেন বোল্টের সাথে রিওতে কাটানো তার সেই উদ্দাম রাতের।

রাত ৯টার পর অলিম্পিক ভিলেজে বাইরের মানুষের থাকার অনুমতি নেই। কিন্তু তিনি বোল্ট! তাই ডুয়ার্টেকে নিয়ে সেখানে রাত কাটাতে পেরেছেন। যে রাতে বিছানায় জ্যামাইকান বিদ্যুৎকে মোটেও স্প্রিন্টার মনে হয়নি ২০ বছরের এই যুবতীর, মনে হয়েছে রীতিমতো ম্যারাথনবিদ!

রিওর অলিম্পিক ভিলেজে বোল্টের সাথে ডুয়ার্টের রাতটা এভাবেই কেটেছে!

আর সেই রাতের অন্তরঙ্গ সময়ের বর্ণনা দিতে গিয়ে ডুয়ার্টে বলেছেন,তার শরীরটা চ্যাম্পিয়নের। কিন্তু আর সবই খুব সাধারণ। ও খুব গতি সম্পন্ন হবে ভেবেছিলাম। আসলে তা হয়নি।

ডুয়ার্টের বর্ণনায় তাই ৩০ বছরের বোল্ট স্প্রিন্টার নন, ম্যারাথনবিদ! অলিম্পিকে ট্রিপল ট্রিপল জিতলেও ওই রাতে ডুয়ার্টের সাথে তৃতীয়বার ব্যস্ত হননি বোল্ট টানা তিন অলিম্পিকে তিনটি করে ইভেন্টে তিনটি করে সোনা জিতে ইতিহাস গড়েছেন বোল্ট।

এটা ২১ আগস্টের ঘটনা। সেদিন ছিল বোল্টের ৩০তম জন্মদিন। রিওতে ইতিহাস গড়া বোল্ট সেখানকার এক নাইট ক্লাবে পার্টি করেন। ডুয়ার্টেকে সেখানেই দেখেন। এবং নিয়ে যান অলিম্পিক ভিলেজে, তার রুমে। তারপর কাটে রাত। ডুয়ার্টে জানাচ্ছেন, সকাল ৯টায় বোল্ট তার হাতে ১০০ ডলারের একটি নোট ধরিয়ে দিয়ে বিদায় দেন।

আর বলেন, ৭ সেপ্টেম্বর থেকে প্যারা অলিম্পিক শুরু হবে। তখন দ্বিতীয়বার ডেট করবেন তারা।

কিন্তু বোল্ট লন্ডনে ফিরে গিয়ে আবার পার্টিতে মজেছেন। তাই দেখে নিজেকে যেন প্রতারিত লাগছে ডুয়ার্টের, কখনো ভাবতে পারিনি ওর গার্লফ্রেন্ড আছে বা এত মেয়ের সাথে সময কাটে। সে দারুণ দেখতে, বিরাট তারকা। কিন্তু নির্লজ্জ। তার সাথে বিছানার অভিজ্ঞতা ভালোই।

কিন্তু এখন নিজেকে তার আর দশটা মেয়ের মতোই লাগছে। এখন মনে হচ্ছে যেমন দ্রুত সোনার পদক জেতে তেমন দ্রুত মেয়ে বদলায় ও।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close