Americaযুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

হেরে গিয়েও নতুন এক রেকর্ড গড়লেন হিলারি

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের জটিল প্রক্রিয়ায় হিলারি ক্লিনটন হেরে গেলেও তিনি নতুন এক রেকর্ড গড়েছেন।

নির্বাচনে জয়ী ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে তিনি ১.৫ শতাংশ বা প্রায় ২০ লাখ ভোট বেশি পেয়েছেন। ১৮৭৬ সালের পর (১৪০ বছরের মধ্যে) আর কোনো পরাজিত প্রার্থী এত বেশি ভোট পেয়ে পরাজয়ের স্বাদ গ্রহণ করেননি। খবর দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের।

নিউ জার্সি, ইলিনয়, ম্যারিল্যান্ড এবং ক্যালিফোর্নিয়ার ভোট গণনা শেষে এই ফল পাওয়া গেছে। এতে দেখা যায়, হিলারি ট্রাম্পের চেয়ে ২০ লাখ ১৭ হাজার ৫৬৩ ভোট বেশি পেয়েছেন। হিলারি যত ভোট পেয়েছেন, এর আগে নির্বাচনে জয়ী সাতজন প্রেসিডেন্ট প্রার্থীও তা পাননি।

গত সাতটি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মধ্যে ছয়টিতেই বেশি ভোট পেয়েছেন ডেমোক্র্যাটরা। কিন্তু তারা বেশি ভোট পেয়েও দুইবার ক্ষমতায় যেতে পারেননি। (আল গোর ২০০০ সালে এবং হিলারি এবারের নির্বাচনে)।

এদিকে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্প গত ৪০ বছরের মধ্যে সংখ্যালঘুদের সবচেয়ে কম ভোট পেয়েছেন। তিনি কৃষ্ণাঙ্গদের মাত্র ৮ ভাগ, হিস্পানিকদের ২৮ ভাগ আর এশীয়-আমেরিকানদের ২৭ ভাগ ভোট পেয়েছেন।

১৯৯২ সালের পর কোনো প্রেসিডেন্ট প্রার্থী এশীয় বংশোদ্ভূতদের এত কম ভোট পাননি। ট্রাম্পের জন্য সংখ্যালঘুদের এত কম ভোট রাজনৈতিক ও বর্ণবাদী সংঘাতের ফল বলে মনে করা হচ্ছে।

জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত হচ্ছে নিকি হলে

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত হচ্ছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত নিকি হলে, যিনি সাউথ ক্যারোলিনার গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বুধবার ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণ টিম এই ঘোষণা দিয়েছে। ফলে হলেই হচ্ছেন ট্রাম্প প্রশাসনে ঊর্ধ্বতন পদে নিয়োগ পাওয়া প্রথম নারী।

ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণাকালে তিক্ত বিরোধে জড়িয়ে পড়েছিলেন তারা। হলে ফ্লোরিডার সিনেটর মার্কো রুবিওকে প্রেসিডেন্ট পদে সমর্থন দিয়েছিলেন। এক বিবৃতিতে ট্রাম্প আশা প্রকাশ করেছেন, বিশ্ব মঞ্চে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রতিনিধিত্ব করার ক্ষেত্রে হলে হবেন একজন মহান নেতা।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close