ভারত জুড়ে

মুসলিমপন্থি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে পক্ষপাতী হয়ে মুসলিমদের সুবিধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। এমন অভিযোগের জবাব দিয়েছেন সুষমা।

তিনি এমনিতেই টুইটারে খুব সক্রিয়। সেই টুইটার বেছে নিয়েই তিনি জানান দিয়েছেন, ভারতীয়রা তার মানুষ। তিনি কোনো ধর্মীয় গোষ্ঠী বা জাতকে আলাদাভাবে সুবিধা দিচ্ছেন না। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এতে বলা হয়েছে, হিন্দু জাগরণ সংঘ থেকে একটি টুইট দেয়া হয়েছে। তাতে সুষমা স্বরাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দৃষ্টি আকর্ষণ করে লেখা হয়েছে, মোদি জি আপনার সুষমা শুধুই মুসলিমদের ভিসা দেয়ার বিষয়টিতে খেয়াল রাখেন। কিন্তু হিন্দুরা ভারতীয় ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে হয়রান হচ্ছেন। এটা অত্যান্ত শোচনীয়।

এই টুইটটি নজরে আসে সুষমা স্বরাজের। জবাবে তিনি লিখেছেন, ভারত আমার দেশ। ভারতীয়রা আমার মানুষ। জাতি, তাদের অবস্থা, ভাষা বা ধর্ম আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়।

উল্লেখ্য, টুইট ব্যবহারের কারণে এরই মধ্যে সুষমা স্বরাজ দেশে বিদেশে পরিচিতি পেয়েছেন। অনেকে তার টুইট করাকে টুইট ডিপ্লোম্যাসি বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে বিভিন্ন ইভেন্টে টুইট করে চলেছেন। এর মাধ্যমে তিনি বিভিন্ন মানুষের সমস্যার সমাধানও দিয়ে চলেছেন। সেটা যত বড় বা ছোট সমস্যাই হোক না কেন। এমনকি হাসপাতালের বিছানায় বসেও তিনি জনগণের সেবা দিয়েছেন। তিনি যে শুধু ভারতীয়দের সেবা দিয়েছেন বা সহায়তা করছেন তা-ই নয়।

একই সঙ্গে ভারতের বাইরের মানুষের সমস্যা সমাধানে সচেষ্ট হয়েছেন। বৃটিশ এক দম্পতি ভারতে গর্ভ ভাড়া নিয়ে কন্যা সন্তানের জনক-জননী হয়েছেন। তাদেরকে বৃটিশ পাসপোর্ট পেতে সহায়তা করেছেন তিনি।

উপসাগরীয় দেশগুলোতে বিভিন্ন সমস্যায় অনশনরত প্রায় ১০ হাজার ভারতীয় অভিবাসীকে উদ্ধারে নির্দেশনা দিয়েছেন। মহাত্মা গান্ধী ও ভারতীয় জাতীয় পতাকা নিয়ে অনলাইন বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান অ্যামাজন যে কান্ড ঘটিয়েছে তাতে তিনি হস্তক্ষেপ করেছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close