এশিয়া জুড়ে

দেশে ফেরার পর মিয়ানমারের শীর্ষ মুসলিম আইনজীবী খুন: জাতিসংঘের গভীর নিন্দা

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: মিয়ানমারের শীর্ষ মুসলিম আইনজীবী ও ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) আইনি পরামর্শক কো নি এক দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হয়েছেন। ইন্দোনেশিয়া সফর শেষে রোববার বিকালে দেশে ফেরার পর ইয়াংগুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার পার্কিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। খবর বিবিসি’র।

কাই লিন নামে এক দুর্বৃত্ত নাইন এমএম পিস্তল দিয়ে ৫৩ বছর বয়সী কো নি’র মাথায় গুলি করে হত্যা করে। এ সময় ঘাতককে আটকাতে গিয়ে এক টেক্সি চালকও গুলিতে আহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় ঘাতক কাই লিনকে পুলিশ আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। মিয়ানমারে এভাবে আততায়ীর হাতে দেশের শীর্ষ স্থানীয় কর্মকর্তাদের নিহতের ঘটনা খুবই বিরল। আইনজীবী কো নিকে কেন হত্যা করা হয়েছে তা এখনও রহস্যাবৃত্ত।

মিয়ানমারের তথ্যমন্ত্রী পি মিন্টের নেতৃত্বে ২১ সদস্যের প্রতিনিধিদলের অন্যতম সদস্য হিসেবে কো নি ইন্দোনেশিয়া সফর করেন। ইন্দোনেশিয়ায় বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে জাতীয়ভাবে বিরোধ মেটানোর অভিজ্ঞতা জানতে সরকারি কর্মকর্তা ও মুসলিম নেতাদের প্রতিনিধিদলটি দেশটি সফর যান।

নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক নেত্রী অং সান সু চির দল এনএলডি ২০১৬ সালে ক্ষমতায় আসে। এনএলডি ক্ষমতায় যাওয়ার অনেক আগেই সংবিধান সংশোধনীর কাজ শুরুর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন কো নি।

মিয়ানমারে জাতীয় বিরোধ মেটাতে কো নি সংবিধান সংশোধনের জোরালো সমর্থনকারীদের মধ্যে অন্যতম। এ নিয়ে সম্প্রতি সু চির সঙ্গে তার দূরত্ব তৈরি হয়। যদিও এনএলডি ক্ষমতায় আসার পর অনেকের ধারণা ছিল মিয়ানমারের অ্যাটর্নি জেনারেল হবেন কো নি।

কো নি’র এ হত্যার মধ্য দিয়ে মিয়ানমারে সংখ্যালঘু ও ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীকে নিয়ে জাতীয় বিরোধ নিষ্পত্তির পথ অনেকটা রুদ্ধ হয়ে গেল। জাতিসংঘের মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংঘি লি এক টুইট বার্তায় কো নি’র হত্যার গভীর নিন্দা জানিয়েছেন। দেশটির সবচেয়ে বিখ্যাত ও সম্মানিত মুসলিম আইনজীবী হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close