লন্ডন থেকে

চলতি বাজেট সময়োপযোগী এবং ন্যায়ভিত্তিক: মেয়র জন বিগস

১ হাজার কাউন্সিল বাড়ী নির্মান, ফ্রি স্কুল মিল এবং ফ্রন্ট লাইন সার্ভিসে অতিরিক্ত বরাদ্দ দিয়েছে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল।

সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক ৩ বছরের মধ্যে ৫৮ মিলিয়ন পাউন্ড সাশ্রয়ের আইনী বাধ্যবাধকতার বিপরীতে একটি সময়োপযোগী এবং ন্যায়ভিত্তিক বাজেট প্রণয়ন করতে পেরেছেন বলে দাবী করেছেন টাওয়ার হ্যামলেটেসের মেয়র জন বিগস।

আগামী ৩ বছরের জন্য মেয়র প্রস্তাবিত টাওয়ার হ্যামলেটসের বাজেট গত ২২ ফেব্রুয়ারী, বুধবার ফুল কাউন্সিল অধিবেশনে কাউন্সিলারদের সংখ্যাগরিষ্ট ভোটে পাশ হয়। এটি ছিলো মেয়র বিগসের দ্বিতীয় বাজেট। বাজেট পাশের পর মেয়র বিগস এক বিশেষ বিবৃতিতে বলেন, ৩ বছরের মধ্যে ৫৮ মিলিয়ন পাউন্ড সাশ্রয়ের মানে হচ্চেছ আমাদেরকে প্রতি ৬ পাউন্ডে ১ পাউন্ড সাশ্রয় করতে হবে। কঠিন কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া ছাড়া এটা কখনোই সম্ভব ছিলো না।

মেয়র জানান, পাশ হওয়া বাজেটে ফ্রন্ট লাইন সার্ভিস তথা লাইব্রেরী, চিলড্রেন সেন্টার, লেইজার সেন্টার, আইডিয়া স্টোর এবং এওয়ার্ড বিজয়ী পার্কগুলোর ফান্ডকে সুরক্ষা করা হয়েছে। পাশাপাশি সকল প্রাইমারী স্কুলে ফ্রি স্কুল মিল এবং কম আয়ের বাসিন্দাদের জন্য ১০০% কাউন্সিল ট্যাক্স বেনিফিটও অব্যাহত রাখা হয়েছে।

মেয়র আরো বলেন, কনজারভেটিব সরকারের ভয়াবহ ব্যয় সংকোচনকে সামনে রেখে এমন একটি বাজেট প্রণয়ন ছিলো কাউন্সিলের সামনে বিরাট চ্যালেঞ্জের। তাদের ফান্ডিং কাট স্থানীয় সরকারগুলোতে মারাত“কভাবে প্রভাব ফেলেছে। ব্রিটেনের অন্যান্য বারার মতো এই কাটকে মাথায় নিয়ে একটি ব্যালেন্স বাজেট প্রনয়ন টাওয়ার হ্যামলেটসের জন্য বাধ্যতামূলক ছিলো। একারনে কয়েকটি সার্ভিসে সংস্কার এনে এবং স্বল্প খরচ দ্বারা পরিচালনার মাধ্যমে অর্ধেকেরও বেশী অর্থ সাশ্রয় করা হয়েছে।

উদাহরন হিসাবে মেয়র জানান, বছরে ১১ মিলিয়ন সাশ্রয় হবে প্রকিউরমেন্ট, ডেভট ম্যানেজমেন্ট এবং ট্রেজারী ম্যানেজমেন্ট থেকে এবং ২০২০ সালের মধ্যে ১২ মিলিয়ন পাউন্ড সাশ্রয় হবে সেন্ট্রাল সাপোর্ট সার্ভিসে কম খরচ করে। এসব সাশ্রয়ের কারনে ফ্রন্ট লাইন সার্ভিস অব্যাহত রাখার পাশাপাশি বাসিন্দাদের কাছে গুরুত্বপূর্ন খাতগুলোতে বিনিয়োগ বাড়ানো সম্ভব হয়েছে বলেও মেয়র জানান।

এই গুরুত্বপূর্ন খাতগুলো হচ্চে – পরিষ্কার পরিচ্চছন্নতা, রাস্তাঘাট, আইন শৃংখলা, বায়ু দূষন মোকাবেলা, কাউন্সিল ঘরবাড়ীর মানোন্নয়ন ইত্যাদি। এছাড়া ১ হাজার অতিরিক্ত শিক্ষানবিসি নিয়োগে, পাবলিক প্লেসে ফ্রি ওয়াইফাই এবং চাকুরীর সুযোগ সৃষ্টিতেও বিনিয়োগ বাড়ানো হয়েছে। বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১ হাজার নতুন কাউন্সিল বাড়ী নির্মান এবং অন্যান্য সোশাল অবকাঠামো নির্মানে। দারিদ্র্য মোকাবেলায় ষ্ক্রপোভার্টি ফান্ডেম্ব ৫ মিলিয়ন পাউন্ডও বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, কাউন্সিল গত বছর ষ্ক্রইয়র বারা, ইয়র ফিউচারম্ব শীর্ষক পাবলিক কনসালটেশন পরিচালনা করে। এতে অংশ নেয়া ১৭৪২ জন বাসিন্দার মধ্যে ৪৮% বাসিন্দা বিভিন্ন সার্ভিস অব্যাহত রাখার স্বার্থে কাউন্সিল ট্যাক্স বৃদ্ধিকে সাপোর্ট করেছিলেন আর বিরোধীতা করেছিলেন ৩৮%। এর ফলে ৪.৯৯% কাউন্সিল ট্যাক্স বৃদ্ধির কঠিন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

একারনে একটি ব্যান্ড ডি প্রপার্টির জন্য সপ্তাহে ৮৮ পেন্স কাউন্সিল ট্যাক্স বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক এই বৃদ্ধি প্রাপ্ত অংশের ৩% সরাসরি চলে যাবে এডাব্ব সোশাল কেয়ার খাতে। বাকী ১.৯৯% খরচ হবে বাসিন্দাদের চাহিদা মোতাবেক ফ্রন্ট লাইন সার্ভিস খাতে। এই বৃদ্ধির পরও টাওয়ার হ্যামলেটসের কাউন্সিল ট্যাক্স হচ্চেছ লন্ডনের মধ্যে ৭ম সর্বনিম্ম। পাশাপাশি স্বল্প আয়ের বাসিন্দাদের জন্য শতভাগ কাউন্সিল ট্যাক্স বেনিফিট অব্যাহত রাখা হয়েছে।

জরীপে অংশ নেয়া ৪৩% বাসিন্দা ফ্রন্ট লাইন সার্ভিস অব্যাহত রাখা এবং ৫৫% বাসিন্দা কাউন্সিলের দক্ষতা বৃদ্ধির পক্ষে মতামত দিয়েছিলেন। বাজেট প্রনয়নকালে মেয়র বাসিন্দাদের এসব চাহিদাকে প্রাধান্য দেন। মেয়র বিরোধী দলের কাউন্সিলার রাবিনা খান গ্রুপের সংশোধনী বাজেটে ফ্রি স্কুল মিল, চিলড্রেন সেন্টার এবং শিক্ষানবিসি সেক্টরে ফান্ডিং কাটের প্রস্তাবকে বাতিল করে দেন।

ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম পাশ হওয়া বাজেটকে বাসিন্দাদের বিজয় হিসাবে আখ্যায়িত করেন। কারন এই বাজেটে ফ্রি স্কুল মিল, পার্ক, আইডিয়া স্টোর এবং কমিউনিটি ল্যাংগুয়েজকে রক্ষা করা হয়েছে। এছাড়া ইসল এবং শিক্ষানবিসি খাতে বিনিয়োগ বাড়িয়ে কর্মসংস্থানের প্রতি জোড় দেয়া হয়েছে। এর বিপরীতে বিরোধী কাউন্সিলারদের ফ্রি স্কুল মিল, ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার এবং দারিদ্র্য বিমোচনে ফান্ডিং কাটের প্রস্তাবকে লজ্জাজনক বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close