ইউরোপ জুড়ে

রাশিয়ায় হাজারো মানুষের বিক্ষোভ: বিরোধী নেতা নাভালনি সহ আটক কয়েক শত

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: আগামী বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন রাশিয়ায়। সেই নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সামনে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ানোর আশা করছেন বিরোধী দলীয় নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনি।

তিনি দুর্নীতি বিরোধী অবস্থান নিয়েছেন। রোববার মস্কোতে দুর্নীতি বিরোধী র‌্যালি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদিন রাশিয়ায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভে অংশ নেয় কয়েক হাজার রাশিয়ান।

ওই বিক্ষোভ মিছিল থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে কয়েক শত নেতাকর্মী ও বিক্ষোভকারীকে। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

এতে বলা হয়, রাজধানী পুলিশের হিসাবে মস্কোর পুশকিন স্কয়ারে সমবেত হয়েছিল প্রায় ৭ হাজার মানুষ। এর আগে ২০১১ ও ২০১২ সালে ক্রেমলিন বিরোধী বিক্ষোভ হয়েছিল। সেই বিক্ষোভের পর রোববারের বিক্ষোভ ছিল আকারে সবচেয়ে বড়। বিরোধী নেতা নাভালনির রয়েছে একটি সংগঠন। এর নাম ফাউন্ডেশন ফর ফাইটিং করাপশন। এ সংগঠনের সঙ্গে বিক্ষোভে যোগ দিতে তিনি রাশিয়ার জনসাধারণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন।

বলেছিলেন, ভদিভস্তক ও সেন্ট পিটার্সবুর্গ সহ বড় বড় শহরে বিক্ষোভে অংশ নিতে। তার ডাকে সাড়া দিয়েছিলেন বিপুল সংখ্যক রাশিয়ান। এদিন বিক্ষোভ থেকে তাকে আটক করার পূর্ব মুহূর্তে নাভালনি ধন্যবাদ জানান সবার প্রতি।

তিনি বলেন, দেশের পূর্বাঞ্চল থেকে এত মানুষ মস্কোতে ছুটে এসেছেন, যোগ দিয়েছেন রাজপথের বিক্ষোভে, এ জন্য আমি ভীষণ খুশি।

উল্লেখ্য, নাভালনির ফাউন্ডেশন তদন্ত করে দেখতে পায় রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি মেদভেদেভ বিপুল পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়েছেন। তার রয়েছে অনেক ম্যানসন, প্রমোদতরী ও আঙ্গুরের খামার। সরকার থেকে তিনি যে বেতন পান তা দিয়ে এ সম্পদ অর্জন করা সম্ভব নয়।

তাই এক্ষেত্রে তিনি দুর্নীতি করেছেন এমন দাবি তুলে তার পদত্যাগ দাবি করা হয়। মস্কোতে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন ইভান গ্রোনস্টেইন।

তিনি বলেছেন, উত্থাপিত দুর্নীতির অভিযোগের কোনোই তদন্ত হয় নি। তাই জনগণ ক্ষিপ্ত, অসন্তুষ্ট। তবে রাষ্ট্রীয় মিডিয়ায় বলা হয়েছে, অন্যায় উস্কানি দেয়ার অপরাধে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বিক্ষোভকারীদের। রিপোর্টে বলা হয়, রোববারের এই বিক্ষোভ চলাকালে ব্যাপক সহিংসতা শুরু হয়।

বিক্ষোভকারীরা অভিযোগ করেন, পুলিশ তাদের ওপর অতিরিক্ত শক্তি প্রয়োগ করেছে। মস্কোতে ফুটপাত দিয়ে একজন প্রবীণ ব্যক্তিকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যেতে দেখা যায় পুলিশকে। বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের অনেকের মুখে ছিল সবুজ রঙ করা।

নাভালনির মুখে সম্প্রতি সবুজ এন্টিসেপটিক তরল ছুড়ে মারা হয়েছিল। তারই প্রতীক হিসেবে এ রঙ ব্যবহার করা হয়েছে। তবে বিরোধী পক্ষ যে অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী মেদভেদেভের পদত্যাগ দাবি করছে তাকে প্রচারণামুলক হামলা বলে আখ্যায়িত করেছেন তার এক মুখপাত্র।

ওদিকে ভদিভস্তকে বিক্ষোভ থেকে আটক করা হয়েছে ৩০ জনকে। তারা বহন করছিল প্রধানমন্ত্রীকে উত্তর দিতে হবে লেখা ব্যানার।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close